ইচ্ছার স্বাধীনতা?

ইচ্ছার স্বাধীনতা?

আমার কি ইচ্ছার স্বাধীনতা আছে? এর উত্তর নিম্নোক্ত ভাবে দেয়া যেতে পারে:
১) ইচ্ছার স্বাধীনতা আছে।
২) ইচ্ছার স্বাধীনতা নেই।
৩) ইচ্ছার স্বাধীনতা আছে এবং নেই!

উপরের বিষয়গুলো স্পষ্টীকরন করতে/বুঝতে হলে আগে আমাদের জানতে হবে আমাদের চিন্তার স্বাধীনতা আছে কিনা?

আমরা কি স্বাধীন ভাবে চিন্তা করতে পারি? আমরা কি চিন্তা করার সময় কোন একটি কাঠামোতে আবদ্ধ থাকি? মানুষ ও অন্যন্য প্রানী কি একই কাঠামোতে চিন্তা করে? আমার এবং অন্য মানুষ গুলোর মস্তিষ্কের বেসিক কিংবা অর্জিত সফ্টওয়্যার কি একই? যদি তাই না হয় তবে আমার চিন্তা করার বিষয়টিও কি নির্দিষ্ট সীমা-পরিসীমা-কাঠামোতে আবদ্ধ নয়?!

আমার চিন্তার স্বাধীনতা আছে তবে তা অবশ্যই একটি নির্দিষ্ট কাঠামোতে সীমাবদ্ধ_যে কাঠামোর বাইরে যাওয়া কোন ক্রমেই সম্ভব নয়। একটি বাঘ কিংবা একটি বানর কখনও মানুষের চিন্তার কাঠামোয় চিন্তা করতে পারেনা। একজন মানুষও একটি নির্দিষ্ট কাঠামোর বাইরে চিন্তা করতে পারবেনা।

অতএব, আমাদের চিন্তার স্বাধীনতা সীমিত। চিন্তার স্বাধীনতা সীমিত হওয়ায় ইচ্ছার স্বাধীনতাও সীমিত। ইচ্ছার স্বাধীনতা সীমিত হওয়ায় কর্মের স্বাধীনতাও সীমিত।

চিন্তার স্বাধীনতা মনের সঙ্গে সম্পর্কিত! মন আবার কোয়ান্টাম জগতের সাথে সম্পর্কিত! মন যেহেতু কোয়ান্টাম অনিশ্চয়তায় দুদোল্যমান থাকে সেহেতু আমাদের চিন্তার স্বাধীনতা সীমার মধ্যেও ব্যাপক। ইচ্ছার স্বাধীনতা যেহেতু মস্তিষ্কের সংস্কার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত সেহেতু চিন্তার স্বাধীনতার চেয়ে কম ব্যাপক! কর্মের স্বাধীনতা যেহেতু বস্তু জগতের সঙ্গে সম্পর্কিত সেহেতু উহা আরও কম ব্যাপক।
স্বাধীনতার ব্যাপকতার দিক দিয়ে উহাদেরকে নিম্নোক্তভাবে ব্যাখ্যা করা যায়:

চিন্তার স্বাধীনতা>ইচ্ছার স্বাধীনতা>কর্মের স্বাধীনতা।

মানুষ সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব কারন মানুষই সর্বোচ্চ স্বাধীনতা ভোগ করে।
তিনিই অনন্য( supper man) যিনি চিন্তা-চেতনায়-ইচ্ছায়-কর্মে সর্বোচ্চ স্বাধীন!!!

এমন এক ব্যক্তিত্বের কথা ভাবুন যিনি চিন্তা,ইচ্ছা ও কর্মে অসীম স্বাধীনতা ভোগ করেন! এবং সম্ভত তিনিই ঈশ্বর!!!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “ইচ্ছার স্বাধীনতা?

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

29 + = 38