আইয়ুব খান আর বর্তমান

আমি যতটুক জানি প্রথমে গ্যাসের দাম ছিল দুই চুলা ৩৫ টাকা। তার পর ক্রমে ক্রমে বেড়ে এখন হয়েছে ৬৫০ টাকা। তার পরো আমার দেশের অসহায়, মেহনিত মানুষের মাথার ঘাম পায়ে ফেলা উপর্জানের ফসলের উপর লালসা কমছে না কুলাঙ্গার বুর্জুয়া শ্রেনির। অথচ যারা কানাডার বেগম পাড়ায় গিয়ে রাত কাটায়। যারা বিলিয়ন বিলয়ন টাকা পাচার করে পশ্চিমে। ১০ লক্ষ টাকা খরচ করে টয়লেট বানায় আর দাত কেলিয়ে বলে মাত্র ১০ লাখ টাকা দিয়ে বানিয়েছে। যাদের কাছে ১০ লক্ষ টাকা মাত্র তাদের টনক নরানোর কোন ব্যাবস্থা করে না।

ইতিহাস পড়ে যা জানতে পাই আইয়ুব সরকার ও ঠিক এমনি ভাবে জুলুম, নির্যাতন করে ছিল আমার দেশের গরিব,খেটে খাওয়া,মেহেনিত মানুষের উপর। আর দেখিয়েছিল অপশক্তির উন্নয়ন লিলা। আইয়ুব খান তখন শিক্ষক,ছাত্র,জনতা,সংখ্যালঘু, আদিবাসী ও গন মানুষের উপর পাষবিক নির্যাতন করেছিল। ঠিক তারি ধারাবাহিতা বজায় রাখার চেষ্টায় মাতোয়ারা হয়েছে বর্তমান সরকার।

নাসির নগরে হিন্দুদের উপর হামলা, গাইবান্ধায় সাঁওতাল পল্লিতে আগুন, ফুলবাড়িয়া শিক্ষক হত্যা করে খুব মিল তৈরি করেছে আইয়ুবের সাথে। আমার মনে হয় বাংলদেশের নাম পরিবর্তন করে বাংলাস্থান বানানোর চেষ্টা করছে। আমি মনে করি যার বক্ষের ভেতরে একটু ৭১ এর চেতনা ধারন করবে সে কখনই চুপ করে থাকবে না। সে প্রতিবাদ করবেই।

কিন্তু আমি এখন এত অসহায়ত্ব অনুভব করছি যা বলার ভাষা ক্রমে ক্রমে হারিয়ে ফেলছি। গতকাল এর প্রতিবাদে আমার খুব প্রিয় একজন ব্যাক্তি রাজপথে নেমেছিল। কিন্তু আজ আমার একজন প্রিয় বন্ধুর মুখে শুনলাম সে নাকি গ্রেফতার হয়েছে। ছি ধিক্কার জানাই আমার মনে হয় আইয়ুব সরকার ভাব প্রকাশের অধিকার দিয়েছিল।

যদি তা না হতো তাহলে ৭১এর ৭ মার্চ শেখ সাহেব এত বড় সমাবেশ হত না। কিন্ত বর্তমান সরকার তাও করতে দিচ্ছে না। এইতো আজ জানতে পারলাম গার্মেন্টস শ্রমিকদের ১৫ হাজার টাকা বেতনের দাবিতে আন্দোলন সংঘটিত হয়। গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট সাভার আশুলিয়া থানার সভাপতি শ্রমিক নেতা সৌমিত্র কুমার দাসকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। আজ গ্রেফতার করেছে মিশু আপাকে।

তাদের অপরাধ একটাই কেন তারা শ্রমিকের ন্যায্য বেতনের দাবি করেছে।
কেন তারা অন্যায়ের প্রতিবাদ করেছে।
#টিটপ

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

10 + = 18