মধ্য পন্থাই উত্তম পন্থা

শুধু সুখে কিংবা শুধু দুঃখে বাস্তবতা অনুভূত হয়না। প্রকৃত বাস্তবতা অনুভূত হয় সুখ ও দুঃখের মিশ্ননে। প্রান্তিক (-) গরীব ও প্রান্তিক (+) ধনী পরিবারের সদস্যরা প্রকৃত বাস্তবতা অনুভব করতে পারেনা। প্রকৃত বাস্তবতা অনুভব করতে পারে মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যরা।


“মধ্য পন্থাই উত্তম পন্থা”
__মুহাম্মদ (স).

প্রান্তিকতায় সত্য নেই, সত্য হলো মধ্যবিন্দুতে। বাস্তবতাই সত্য। প্রকৃত বাস্তবতার অবস্থান গড়, প্রচুরক, মধ্যক, মধ্যবিন্দু এবং/কিংবা একাধিক ক্রিয়ার লব্দিতে। প্রান্তিকতায় গতি, মধ্যবিন্দুতে স্থিতি।

আপনার পন্থা প্রান্তিক তার মানে আপনি অস্থিতিবান, আপনার পন্থা মধ্য তারমানে আপনি স্থিতিবান।

আপনার বয়স চল্লিশ। আপনার বয়স ০ (শূন্য) নয়, ৮০ (আশি)ও নয়। আপনি শিশুও নন, বৃদ্ধও নন। আপনার দৃষ্টি উভয় দিকে সম প্রসারিত। আপনার বয়সের অবস্থান মধ্যবিন্দুতে। আপনার পন্থাও হবে মধ্য পন্থী।

সামান্তরিকের কোন কৌনিক বিন্দুতে সন্নিহিত বাহুদ্বয় বরাবর দুইটি বল কিংবা ভেক্টর ক্রিয়াশীল হলে উহাদের লব্ধি সন্নিহিত বাহুর কোনটিতে ক্রিয়াশীল না হয়ে হয় কর্ন বরাবর।

সত্য কিংবা বাস্তবতা প্রকাশিত হয় ১ কিংবা ২এ নয়!
প্রকাশিত হয় উহাদের গড়ে কিংবা দেড়ে(১.৫)।

বাস্তবতা ইলেক্ট্রন কিংবা প্রোটনে নয়, বাস্তবতা প্রকাশিত হয় পরমানুতে। শুধু ধনাত্মকে কিংবা শুধু ঋণাত্মকে অর্ধ বাস্তবতা প্রকাশিত হয়। প্রকৃত বাস্তবতা প্রকাশিত হয় উহাদের ভারসাম্যতায়।

শুধু সুখে কিংবা শুধু দুঃখে বাস্তবতা অনুভূত হয়না। প্রকৃত বাস্তবতা অনুভূত হয় সুখ ও দুঃখের মিশ্ননে। প্রান্তিক (-) গরীব ও প্রান্তিক (+) ধনী পরিবারের সদস্যরা প্রকৃত বাস্তবতা অনুভব করতে পারেনা। প্রকৃত বাস্তবতা অনুভব করতে পারে মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যরা।

মধ্যবিন্দু মানে ভারসাম্যতা, মধ্যবিন্দু মানে ভারকেন্দ্র, মধ্যবিন্দু মানে সাম্যাবস্থা। অন্যদিকে প্রান্তিকতা মানে অস্থিতিশীলতা, উগ্রতা,বিশৃংখলা, বিপদ গামীতা এবং/কিংবা অস্থিতিশীলতা।

শুধু শোষকে কিং শুধু শোসিতে স্থিতিশীল সমাজ বাস্তবতা নেই। স্থিতিশীল সমাজ বাস্তবতা হয় শোসক ও শোষিতের ভারসাম্যমূলক সহাবস্থানে।

মধ্যপন্থা মানে সুবিধাবাদী পন্থা নয়। মধ্যপন্থা প্রথম পক্ষ নয়, দ্বিতীয় পক্ষও নয়। উহা বিশেষ পক্ষ _শূন্য পক্ষ। আর এই শূন্য পক্ষেই সত্য,সুন্দর ও কল্যাণ নিহিত। আর উহাই মধ্যমন্থা।

অতএব, মধ্যপন্থাই উত্তম পন্থা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

85 − = 84