হয়তো এটাই শেষ…

সপ্তাহখানেক আগেও মনটা দুখঃভরাক্রান্ত ছিল…
কারণটা ছিল সাভার ট্রেজেডি।
মানুষ সৃষ্ট একটা দূর্যোগে একই সাথে মনের ভেতর কাজ করেছে- ঘৃণা, ক্ষোভ, ভালবাসা, মমতা!
এগিয়ে গিয়েছি কখনও রক্ত কখনও টর্চ-অক্সিজেন-ঔষধ-খাবার-পানি নিয়ে…
সকল অনুভূতিকে ছাপিয়ে কাজ করেছে মানবতা। বিশ্ব মিডিয়ার শত নেতিবাচক আলোচনার মাঝেও আমরা নিজেদের মনবতা বোধে মুগ্ধ হয়েছি, অবাক করেছি বিশ্ববাসীকে…

আজ মাত্র সপ্তাহখানেকের ব্যবধানে আমরা দেখছি এক নতুন আমাদের… নির্বিচারে মানুষ মরছে। আমরাই আমাদের গুলি করছি, মাথা ফাটাচ্ছি, আগুন দিচ্ছি জনগনের সম্পদে…
একই হাসপাতালের পাশাপাশি বেডে ভর্তি হচ্ছে পুলিশ-হেফাজতি-সাধারণ নিরীহ মানুষ!
এদের প্রত্যেকেরই রক্তের রঙ লাল; হয়তো রক্তের গ্রুপটাও একই!
তবু একটু আগেই এরা ব্যাস্ত ছিল একে অপরের রক্ত ঝরাতে!!!
কিসের জন্য এই যুদ্ধ? কার শান্তি প্রতিষ্ঠা হয় এতে?
রক্ত-আগুন-ধংস দেখতে খুব ভালো লাগে সৃষ্টিকর্তার???
কী জানি- হবে হয়তো…!!!

*** একজন আহত হেফাজত কর্মীর জরুরী রক্ত দরকার। রক্তের গ্রুপ ও অন্যান্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার আগে কি রক্তটা কোন নাস্তিকের কিনা- এটা যাচাই করবেন দায়িত্বরত চিকিৎসক?
রক্তদাতাকে জিজ্ঞেস করবেন- চার কালেমা?
একজন নাস্তিককে বাঁচানোর জন্য জরুরী রক্ত দরকার। একজন মুসলিম হিসেবে আমার কি রক্ত দেয়া যায়েজ হবে? আমি তো সারাদিন চিৎকার করে তার ফাসি চাইলাম!!!
আমি রক্ত দিলেই কি নেবে সেই নাস্তিক? আমার রক্তের প্রতিটি কণা যে আল্লাহর নামে জিকিররত!

[খবরঃ গতকাল রাত থেকে এখন পর্যন্ত মারা গেছে পুলিশ-হেফাজত কর্মী-সাধারণ মানুষ মিলিয়ে কমপক্ষে ১০/১২জন… সংঘাত অব্যাহত আছে। নিঃসন্দেহে বাড়বে মৃত্যুর মিছিল…
সাভার ট্রেজেডির ১২তম দিনে যেখানে এখনও চলছে বিগলিত লাশ উদ্ধারের কাজ, সেখানে নতুন করে এই লাশের মিছিলের খুব দরকার ছিল কি?]

…কবে শেষ হবে এই যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা?

(পরবর্তী স্ট্যাটাস আপডেট করা পর্যন্ত যদি না বেঁচে থাকি তবে এটাই আমার জীবনের শেষ পোষ্ট!!!)

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৩ thoughts on “হয়তো এটাই শেষ…

  1. সবার আগে আমরা মানুষ হতে চাই।
    সবার আগে আমরা মানুষ হতে চাই। আমরা বেঁচে থাকতে চাই এক অহিংস সমাজে। আমি আমরা, এমন এক অহিংস সমাজ প্রতিষ্ঠার নিশ্চয়তা দিতে চাই। স্ট্যাটাস এর শেষের অংশটুকু বাদ দিলে ভালো হয়। আপনি আমাদের সাথেই থাকবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

12 + = 16