ধামাচাপায় অতীত

আমাদের অনেক বধ অভ্যাস আছে।তার ভেতরে মারাত্মক বধ অভ্যাস হল অতীতের ঘটনা গুল ধামা চাপা দিয়ে ভুলে যাওয়া।
ধামা,
অনেকেই হয়ত এই শব্দটির সাথে পরিচিত।
আবার অনেকেই শুনেছেন কিন্তু চোখে দেখার সৌভাগ্য হই নায়।
ধামা হল একপ্রকার বেত দ্বারা তৈরি গোলাকার পাত্র।
এই পাত্র দুটি কাজে খুব ব্যাবহার হয়।
১. চাল বা ধান রাখা।
২.চাপা দিয়ে রাখা।
আর মাত্র কয়েক ঘন্টা বাকি আছে নতুন বছর আসতে। কিন্তু আমারা ঠিকি এ বছরের নেক্কার জনক ঘটনা ভুলে গেছি। চাপা পরে গেছে ওই নির্মম ধামার ভেতর।

অথচ ঠিকি আমারা রাতে পার্টি দিব, আনন্দ করব আর শুভ কামনা করব নতুন বছরের জন্য।
কিন্তু আমি মনে করি শুভ কামনার সাথে প্রতিজ্ঞা করা উচিৎ ফেলে আসা দিনে যে অন্যায়,অবিচার,শোষণ করা হয়েছে তা রুখে দারানোর শপথ।
ধামার কথাটা অবশ্য প্রথম শুনি বাসদ কেন্দ্রিয় নেতা Razequzzaman Ratan ভাইয়ের মুখে।
সে বলেছিল আমাদের এ দেশে ধামার সাইজটা ক্রমে ক্রমে বৃহত আকার ধারন করতে শুরু করেছে।
আর এই ধামা ব্যাবহার হচ্ছে চাপা দেয়ার কাজে।

এখন ভাবছি স্যার যে সেদিন এই কথা বলছে তা ঠিকি এখন অক্ষরে অক্ষরে ফলে যাচ্ছে।

আমরা দেখেছি রামুতে সংখ্যালঘু বৌদ্ধ মন্দরে আক্রমন হয়েছে তা ধামাচাপা পরেছে।
একের পর এক অন্যায় ভাবে নির্যাতন হচ্ছে তাও ধামাচাপা পরে গেছে।
শিক্ষক,ছাত্রদের রাজপথে গুলি করে মারার বিচার ধামাচাপা পরে গেছে।
৫ বছরের শিশু পুজা,হিজাব পরা তনু,রিস্তা,গাড়ো কন্যা,খাদিজা ও নাম না জানা কত নারির ধর্ষনের ঘটনা ধামাচাপা পরে গেছে।
নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের মত ঘটনা ধামাচাপা পরে গেছে।
লেখক,ব্লগার হত্যার বিচার ধামাচাপা পরে গেছে।
সাঁওতাল পল্লিতে আগুনের ঘটনা ধামাচাপা পরে গেছে।
নাসির নগরে হিন্দুদের উপর আক্রনের ঘঠনা ধামাচাপা পরে গেছে।

ভাবতে পারছেন এবার, আমার এ দেশে কত বড় ধামা আছে।
তাই বলছি সাবধান থাকবেন, সবাই এই ধামা থেকে দূরে থাকবেন।

কখনো নিজের চেতনাকে এই ধামার নিচে চাপা পরতে দেয়া যাবেনা।
যেমন টা দিয়েছেন ইসলামিয়া বই মেলার মহাপরিচালক।

যাইহোক পরিশেষে যা বলব নতুন বছরে আমাদের একটাই প্রত্যয়।
কখনো আমাদের চেতনা এই ধামার নিচে চাপা পরতে দেয়া যাবেনা । রুখে দারাবো অতিতের যত ঘটনার বিচারের দাবিতে। রক্ষা করব আমার দেশের সম্পদ,আমার মা, আমার সুন্দরবন কে।
আর ভেঙে ফেলবো ওই নির্মম ধামাকে।
ধন্যবাদ
নতুন বছরের অগ্রিম বিপ্লবি শুভেচ্ছা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

54 − = 52