থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে সেক্স পার্টি , চলছে রমরমা এসকর্ট ব্যবসা !!

থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে শুরু হয়েছে রাজধানী ঢাকা সহ চারিদিকে নানা রকম উৎসব অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা | আর দশটা দিনের মতোই আজও ঘরে বসে কাটানো মানুষগুলো হয়তো কখনো জানতেই পারবে না তাদের আশেপাশেই আজ উৎসবের নামে কি চলছে | অবশ্য নিজেরা প্রত্যক্ষদর্শী না হলে অনেক কিছুই সচরাচর বোঝা বা জানার সুযোগ হয় না | তাছাড়া একদল অভিভাবক সন্তানের হাতে থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে উৎসব করবে বলে টাকা দিয়েই খালাস ! আপনি কি জানেন আপনার সন্তান কোথায় ব্যয় করছে এই টাকা কিংবা সেই থার্টি ফাস্ট নাইট পার্টিই বা কেমন হচ্ছে ! তবে আজ ঘরে বসে কাটানো মানুষগুলো এবং অভিভাবকদের কাছে বাইরের থার্টি ফাস্ট নাইট উৎসবের নামে চলা এমন কিছু উৎসবের কথা তুলে ধরবো যা জানলে আপনিও হয়তো রীতিমত হতবাক হবেন |

এসকর্ট শব্দটির সাথে আমরা সবাই মোটামুটি পরিচিত | তবে যারা জানি না তাদের জন্য প্রথমেই এ সম্পর্কে বলি | ইংরেজি Escort শব্দটির আভিধানিক অর্থ সহযোগী বা সহযাত্রী | অর্থাৎ যারা অর্থের বিনিময়ে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ক্লাইন্ট কে সঙ্গ এবং আনন্দ দেয় তাদেরকে এসকর্ট বলে | সঙ্গ কেমন হবে তা নির্ভর করে ক্লাইন্টের উপর | তবে বেশীর ভাগ ক্ষেত্রেই মানুষ এসকর্ট ব্যবহার করে যৌনসুখ নেয়ার জন্যই | এসকর্ট দেয়ার জন্য বিভিন্ন এজেন্ট থাকে এবং তাদের মাধ্যমে ক্লাইন্ট ছবি এবং অন্যান্য তথ্য দেখে নিজ পছন্দ মতো ইসকর্ট নিয়ে থাকে এবং এজেন্ট উক্ত এসকর্টকে ক্লায়েন্টের বাড়ি বা হোটেল রুম পর্যন্ত পৌছে দেয় | এছাড়া চাইলে ক্লাইন্ট এসকর্টকে তার ভ্রমণ সঙ্গী হিসেবেও ব্যবহার পারে | উন্নত দেশগুলোতে এর প্রচলন আছে তবে তা করা হয় প্রস্টিটিউট ল মেনে | আইন অনুযায়ী যাদের লাইসেন্স আছে তারাই শুধুমাত্র এসব এজেন্টের মাধ্যমে কাজ করতে পারে |

বাংলাদেশে ইদানিং এসকর্ট সাইটের ব্যবহার রীতিমত বেড়েছে | নির্দিষ্ট এসকর্ট সাইট গুলোতে দিব্বি কোনরূপ আইন না মেনে চলানো হচ্ছে ডিজিটাল পতিতাবৃত্তি | সাইটগুলোর আকর্ষণীয়তা এবং নানা রকম অফার আপনার মন কাড়তে বাধ্য | দেয়া হয় বাড়ি কিংবা হোটেল রুমে পাঠিয়ে দেয়ার সুযোগ | ঘন্টা প্রতি কতো টাকা , এসকর্টের হাইট ওয়েট থেকে শুরু করে সুন্দর ছবির মাধ্যমে শো করা থাকে সব বিস্তারিত তথ্য | এছাড়া কত রকমের স্টাইলে কতভাবে উক্ত এসকর্ট যৌনকর্মে লিপ্ত হতে পারে তাও উল্লেখ করা থাকে | ঢাকা,চট্টগ্রাম,সিলেট সহ বিভিন্ন জায়গার এসকর্ট সার্ভিসের থাকে বিভিন্ন যোগাযোগের ঠিকানা | নিচের ছবিগুলো ভালো করে লক্ষ্য করুন |

এসব সাইটে যে মেয়েদের এসকর্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয় তার শতকরা ৯৫ ভাগেরই নেই কোন লাইসেন্স | তাছাড়া অনুর্ধ আঠেরোর সংখ্যাও বিপুল | বিভিন্ন স্কুল কলেজ পড়ুয়া মেয়েদের নানা লোভ দেখিয়ে নামানো হয় এই কাজে | প্রচারের সময়ও ব্যবহার করে স্কুল কলেজের মেয়ে বলেই | এছাড়াও ব্যবস্থা আছে পরকিয়ার | বিবাহিত মহিলাদেরও অসংখ্য লিস্ট | বিভিন্নভাবে স্বামীর সাথে দূরত্ব সৃষ্টি হওয়া মহিলারা দিব্যি লিপ্ত হচ্ছে এ কাজে | তারা সচরাচর ভালো রকম সুযোগ সুবিধা এবং পরিচয় গোপনের অঙ্গিকার করেই এই কাজে লিপ্ত করে | আর জয়েন করার উপায়ও অতি সহজ | সমকামীদের জন্যও রয়েছে ব্যবস্থা | আছে প্লে বয় সার্ভিস , ওয়েব ক্যাম সেক্স এমনকি পার্টি সেক্সের ব্যবস্থাও | নিচে আরও কয়েকটি ছবি লক্ষ্য করুন !

বিভিন্ন বিশেষ দিন ভেদে তাদের রয়েছে বিভিন্ন আয়োজন যা সেক্স পার্টি নামে পরিচিত | এই যেমন থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষ্যে দিব্যি চালাচ্ছে থার্টি ফাস্ট নাইট সেক্স পার্টির প্রচরণা |এসব পার্টিতে অবাধ যৌনতার পাশাপাশি চলছে রীতিমত মাদক সেবন যা এজেন্টরাই সরবরাহ করে থাকে |


আইনের পরোয়া না করে এমন অসামাজিক কাজগুলো যারা প্রতিনিয়ত করে যাচ্ছে , তাদের উপরও নেই পুলিশ প্রশাসনের কোন নজরদারি | আজকে যখন পর্ন সাইট বন্ধের জন্য সরকার পদক্ষেপ নেয় , তখন মনে প্রশ্ন জাগে এই সাইটগুলো কি পর্ন সাইটের আওতাভুক্ত হবে ! কিংবা এই সাইটগুলো কি শুধু ব্লক করে দিলেই সমস্যা সমাধান হবে | এই এজেন্টগুলোর এডিমন এবং লাইসেন্সহীন উচ্চ শ্রেণীর পতিতাগুলো কে ধরে আইনের আওতায় আনা কী প্রশাসনের জন্য খুব কঠিন কাজ যেখানে দিব্যি এজেন্টদের ফোন নম্বর পর্যন্ত দেয়া আছে | আর সাধারণ মানুষেরও তো কোন মাথাব্যথা নেই | নিজের ঘর ঠিক তো সব ঠিক , আশেপাশে কি হচ্ছে দেখার কী দরকার বাপু ! তাছাড়া যারা এসব সুযোগ ভোগ করে , তাদের সংখ্যাও তো কম নয় |

এখনি সময় এসব নোংরামির বিরুদ্ধে রুখে দাড়ানোর | একটু অসতর্কতার ফলে কাল আপনার স্ত্রী , সন্তানও যেতে পারে এই পথে | এগিয়ে আসুন , রুখে দাড়ান !!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে সেক্স পার্টি , চলছে রমরমা এসকর্ট ব্যবসা !!

  1. আমি বুজলাম না এতে আপনাদের
    আমি বুজলাম না এতে আপনাদের সমস্যা কি? এতে তো অনেক উপকৃত হচ্ছে। এটা বলেন যে একটা আইন করে এসকট কে একটা সিসটেমে আনা হোক। উন্নত বিশ্বে হলে, তা আপনাদের গা জলে কেন। না কি মদিনা সনদে বিশ্বাসি?

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

1 + 6 =