পুরুষত্ব কি শুধু লিঙ্গের আস্ফালন

ওড়না বিষয়ে দুটি স্ট্যাটাস দেওয়ার ফলশ্রুতিতে বাঙলার শত শত পুরুষের প্রতিক্রিয়ার মাধ্যমে জানতে পারলাম- আমি আর পুরুষ নই, আমার পুরুষত্ব নেই, আমার লিঙ্গ নেই, আমি ধ্বজভঙ্গ, আমি হিজড়া ইত্যাদি। আমি আরও জানতে পারলাম যে- ওড়না না পরলে ধর্ষণ হওয়াটাই স্বাভাবিক এবং মা ও বোন ব্যতীত যে কোন মেয়েকে দেখলেই সেক্স উঠা পুরুষত্ববোধ ইত্যাদি।

আমি এখনো বিশ্বাস করতে চাই, এমন চিন্তাধারা সমগ্র বাঙলাদেশের ছেলেদের নয়। পুরুষত্ববোধ বলতে যারা শুধু লিঙ্গের পারদর্শিতাকে বুঝে তারা আদিম মধ্যযুগীয় চিন্তাধারাকে লালন করে। তাদের মধ্যে নতুনত্ব নেই। তারা পূর্বে যা পড়েছিল, দেখেছিল এবং পরিবারে যা দেখে বড় হয়েছে তাই তারা নিজেদের মধ্যে ফুটিয়ে তুলেছে। মেয়েদের দেখলেই পুরুষের সেক্স উঠবে এমন চিন্তাধারার মানুষ সমাজের জন্য ভয়ানক। এমন চিন্তাধারার কারণেই সমাজে ধর্ষণ, এসিড নিক্ষেপ, নিপীড়ন, অত্যাচারের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়।

পুরুষত্ব বলতে যদি শুধু লিঙ্গের আস্ফালন এবং যোনীতে ঝড় তোলা বোঝায় তাহলে আমি এই পুরুষত্বকে অস্বীকার করি। যে পুরুষত্ব শুধু লিঙ্গ, শিশ্ন দিয়ে বিবেচিত হয় সে পুরুষত্ব কখনোই পুরুষের জন্য সম্মান ডেকে আনে না বরং পুরুষের জন্যই লজ্জা। পুরুষত্ব বলতে যদি শুধু নারীকে বিছানায় নেওয়ার কলাকৌশলকে বোঝায় তাহলে আমি সেই পুরুষত্ব-বোধকে অস্বীকার করি। পুরুষত্ববোধ বলতে যদি নারীর সতীত্বকে প্রাধান্য দেওয়া বোঝায় তাহলে সেই পুরুষত্ব পুরুষের বিকৃত চিন্তাধারার লালিত ফসল। পুরুষত্ব বলতে যদি শুধু যোনীতে ষ্টীমরোলার চালানো বোঝায় তাহলে সেই পুরুষত্ব পুরুষের জন্য ব্যক্তিত্বহীনতা। পুরুষত্ব বলতে যদি নারীকে নিরাপত্তার অজুহাতে ঘরে বন্দি করা বোঝায় তাহলে সেই পুরুষত্ব কাপুরুষতা। পুরুষত্ব বলতে যদি শুধু নারীর যোনী রক্ষা ও বক্ষ ওড়না দ্বারা পরিবেষ্টিত চিন্তাধারাকে বোঝায় তাহলে মানুষ হিসেবে পুরুষের সম্মানবোধ খুঁজে পাওয়া কষ্টকর।

নারীর সম্মান তার মেধায়, সৃষ্টিশীলতায়, মননশীলতায়, কর্মদক্ষতায়, যোগ্যতায়, প্রতিভায়, পরিশ্রমে, অধ্যবসায়ে। নারীর সৌন্দর্য থাকে মগজে, মননে, চিন্তায়, সততায়, কর্মনিষ্ঠায়। যোনী ও বক্ষতে নারীর সম্মান খুঁজে পাওয়া পুরুষত্ব নয় বরং ধর্ষণকামীর বৈশিষ্ট্য। পুরুষেরও সৌন্দর্য তেমনি তার কর্মে, চিন্তায়, শিক্ষায়, রুচিতে। পৌরুষ বা নারীত্ব কোন শারীরিক অবস্থান নয় মাত্র।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “পুরুষত্ব কি শুধু লিঙ্গের আস্ফালন

  1. আসলে মেয়েদের দেখলে লালা ঝরার
    আসলে মেয়েদের দেখলে লালা ঝরার ব্যাপারটা কম্পিউটারে ইনস্টল করা সফটওয়ারের মত। এটা বিবর্তনের ধারায় মানুষ পেয়েছে। আপনি মাথা খুটে মরলেও এই স্বভাব দূর করতে পারবেন না। তাই তো সারা পৃথিবীতে মানুষ ঘর সংসার করছে লাখ লাখ ব্রোথেল রয়েছে, লিভ টুগেদার করছে ইত্যাদি।তাই নারী ও পুরুষ দুইজনকেই সংযত আচরন করতে হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

7 + 3 =