মৌলিক ও বাস্তবতার মূলসূত্রঃ

১.১ প্রকৃত পক্ষেই মৌলিক বলে কিছু নেই। আমরা যাকে মৌলিক বলি সেটা মূলত আপেক্ষিক অর্থে বলি।

১.২ মৌলিকতা মানেই অনস্তিত্বতা, অবাস্তবতা কিংবা অপরিমাপ্য, অনির্নেয় অর্থে শূন্যতা।

১.৩ অনু কি মৌলিক? না উহাতে পরমানু থাকে? পরমানু কি মৌলিক? না, উহাতে ইলেক্ট্রন, প্রোটন ও নিউটন থাকে। অতিপারমানবিক কনিকা সমূহ কি মৌলিক? না, উহাতে কার্ক কিংবা লেপটন কনিকা থাকে এবং কিংবা উহা স্ট্রিং তন্তুর কম্পনের ফল। এভাবে মাপন যন্ত্রের উন্নয়নের সাথে সাথে মৌলিক বিষয়কে আরও অধিকতর মৌলিক বিষয়ের ফল হিসেবে পাচ্ছি এবং শেষ পর্যন্ত মৌলিকতা শূন্যতায় পর্যবসিত হচ্ছে।

১.৪ অতএব, বাস্তব মৌলিকতাও আপেক্ষিক_পরম নয়।

১.৫ অতএব, পরম মৌলিক মানেই অনস্তিত্বতা, অবাস্তবতা কিংবা শূন্যতা।

১.৬ অনুরুপভাবে, মানুষের কোন চিন্তাও মৌলিক নয়। বাস্তব মৌলিক চিন্তা সম্ভব নয়।

১.৭ এক মাত্র অবাস্তব কল্পনাতেই পরম মৌলক চিন্তা সম্ভব!

১.৮ অবাস্তব-অস্তিত্বহীন-অপরিমাপ্য-অনির্নেয়-অসংজ্ঞায়িত শূন্য, অসীম, ঈশ্বর, আত্মা ইত্যাদি চিন্তা কিংবা কল্পনাই মৌলিক।

১.৯ বস্তুবাদী বলেন আর ভাববাদী বলেন শেষ পর্যন্ত আমরা অনির্নেয়-অসংজ্ঞায়িত-অপরিমাপ্য-অইন্দ্রিয়গ্রাহ্য-অবাস্তব যথাক্রমে শূন্য ও ঈশ্বরকে জগতের মৌল কারন হিসেবে গন্য করি।

আমরা যৌক্তিক কিংবা অযৌক্তিকভাবে মানতে বাধ্য হই বিমূর্ততাই সকল মূর্ততার উৎস যেখানে শূন্য ও ঈশ্বর উভয়ই বিমূর্ত!!!

বাস্তবতার ব্যকরনঃ

১.১ অস্তিত্ববান হওয়া ও বাস্তবতা উভয়ই আপেক্ষিক।

১.২ যা অস্তিত্ববান, ইন্দ্রিয়গ্রাহ্য কিংবা এবং পরিমাপযোগ্য তাই বাস্তব।

১.৩ নির্দিষ্ট মাত্রিক স্কেলে [যেমন চতুর্মাত্রিকস্কেলে ] যা অস্তিত্ববান ও বাস্তব ভিন্ন মাত্রিক স্কেলে তাই অনস্তিত্ববান ও অবাস্তব হতে পারে।

১.৪ সত্তার অনস্তিত্বতা ও অবাস্তবতাই শূন্যতা।

১.৫ শূন্যতা মানে সত্তার অনুপস্থিতি নয়__ভিন্ন ভিন্ন মাত্রাই সত্তার বাস্তবতা ও অবাস্তবতার নির্নায়ক ও নির্ধারক। মৌলিক ও পরম একক সত্তা অবাস্তব ও অনস্তিত্ববান_অইন্দ্রিয়গ্রাহ্য,অনির্নেয়, অপরিমাপ্য; কিন্তু তারমানে এই নয় যে, তা অনুপস্থিত!

১.৬ কল্পনা, বাস্তবতায় কিংবা যেকোন মাত্রায় সত্তার উপস্থিতি স্বীকার্য যদিও এ উপস্থিতি অনির্নেয়, অইন্দ্রিয়গ্রাহ্য এবং অপরিমাপ্য হতে পারে।

_Abu Momin

17.06.2016

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “মৌলিক ও বাস্তবতার মূলসূত্রঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 2 = 1