ষড়যন্ত্র নাকি চরম ব্যার্থতা?

বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থার যা অবস্থা এর জন্য দায়ী কে?
এই প্রশ্ন যদি করি তাহলে কি বলবেন?
বলবেন এর জন্য দায়ী বর্তমান সরকারের শিক্ষা ব্যবস্থা।
এখন কথা হল, এই ধরনের কর্মকাণ্ড করার মানে কি?
আমি সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত ভাবে চিন্তা করে দেখলাম, তা আজ প্রকাশ করব।
আবার আপনারা আমার অভিমত হিসেবেও ধরে নিতে পারেন
আমরা যদি বিয়ের কার্ড বা জন্মদিনের কার্ড বানাতে দেই সেখানেও কম পক্ষে ১০ বার বানান শুদ্ধ কিনা তা দেখে শুনে ছাপায়।
কিন্তু যেখানে লক্ষ কোটি ছেলে মেয়ে পড়বে সেখানে এতো ভুল কি ভাবে হয়?
এ কি ইচ্ছাকৃত কোন ষড়যন্ত্র?
নাকি ব্যর্থতারর প্রতিচ্ছবি।
ষড়যন্ত্র : ইতিমধ্যে আমরা জেনেছি বা দেখেছি কিছু সংখ্যক ধর্মীয় রাজনৈতিক দলের মোড়লরা এর পক্ষে অবস্থান জানিয়েছে। এবং রীতিমত হুশিয়ারও দিয়ে বলেছে, এর পরিবর্তন যেন না ঘটে।
কিন্তু সরকার খুব ভালো করেই জানে শিক্ষার এই চরম দশা সহ্য করতে পারবে না সু-শিক্ষিত সমাজ বা প্রগতিশীল মানুষ।
প্রতিবাদ করবে,মানব বন্ধন করবে, এমনকি পাঠ্যক্রম বোর্ড ঘেরাও করবে।
আর তখন সরকারের পক্ষ থেকে বলা হবে
দয়া করে আপনার শান্ত হন।
আমরা বলছি আমাদের ভুল হয়ে গেছে,
ভুলবশত মাদ্রাসাভিত্তিক বইএর একাংশ ঢুকে পড়েছে।
আমরা খুব শিঘ্রই এর পরিবর্তন আনবো।
এই বলে আসস্থ করবে।
আর অন্য দিকে হেফাজত,চরমনাই রা মিলে এর তীব্র নিন্দা প্রকাশ করবে।
এক সাথে মিলেমিশে মানুষের সেন্টিম্যান্টে আঘাত দিয়ে দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে টানা অবস্থান কর্মসূচির ডাক দিবে।
আর অন্যদিকে এই অবস্থা দেখে সুশীল সমাজও অবস্থান নিবে সাহাবাগ কিংবা শহীদ মিনারে।
সরকার পরবে দো-টানায়।
সব মিলিয়ে দেশে আর একটা অরাজাগতার তৈরি হবে।
এমন কি হতে পারে আরেকবার ৫ মের মত করুন দশা।
আর এর মধ্য থেকে পুনরায়ের মত বিশাল আকারের ধামার নিচে চাপা পরে যাবে সুন্দরবন ইস্যু।
এবার আসি ব্যর্থতায়: আমরা জানি সরকারে অনেক ব্যর্থতা লুকিয়ে আছে বিভিন্ন জায়গা বা স্থাপনায়।
যেমন ধরুন সুপ্রিম কোর্টের মত এমন স্থানের নামের যায়গায় লেখা সুপ্রীম কোর্ট।
এই এক ব্যর্থতা।
এ বিষয় আর কথা বাড়ানোর দরকার বলে মনে করি না।
কারন এ সম্পর্কে ধারনা আমার চেয়ে আপনাদের অনেক বেশি।
যাই হোক পরিশেষে বলব
আমার যতটুক ধারনা ষড়যন্ত্রই হবে।
কারন আমাদের বুবু কিন্তু বলেছে আমার এ দেশ চলবে নবীর দেখানো পথে।
যদি তাই হয় তাহলে তো পাঠ্য পুস্তকে এই দশা না হয়ে উপায় নেই।
অতএব আমাদের সতর্ক থাকতে হবে।
কোন অপশক্তিই আমাদের দাবিয়ে রাখতে পারবে না।
পারবে না আমাদের চেতনাকে বিনষ্ট করতে।
পারবে না আমার মা, আমার সুন্দরবন ধ্বংস করতে।
ধন্যবাদ
টিটপ

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 29 = 36