তুমি কোন জীব হত্যা করবে না (গৌতম বুদ্ধ)

গৌতম বুদ্ধ সাধারণ মানব সমাজের জন্য পাঁচটি নীতি প্রচলন করেছিলেন। যথা;
১. তুমি কোন জীব হত্যা করবে না
২. অপরের কিছু চুরি করবে না
৩. কোন ব্যভিচার বা অনাচার করবে না
৪. মিথ্যা কথা বলবে না
এবং
৫. মাদক গ্রহণ করবে না।

এখন কথা হচ্ছে রোহিঙ্গা মুসলিমরা কি জীব না? তারা কি জড় পদার্থ? বিষয় টাকে আমি সাম্প্রদায়িক ভাবে দেখছি না, এখানে শুধু মুসলিম না, সারা বিশ্বের মানবতা খুন করা হচ্ছে। এই মৌলবাদীকতার শেষ কথায়? তবে মায়ানমার বার্মা নিয়ে এটা বলতেই হচ্ছে যে, যদি গৌতম বুদ্ধ আজ জীবিত থাকতো, তাহলে আজ সে আত্মহত্যা করতে বাধ্য হত!

আমার দৃষ্টি ভঙ্গীতে বিষয়টা হচ্ছে এমন যে,
”মানব কল্যাণের ওয়াস্তে
ধর্ম দিয়েছিল ভগবান,
পাপিষ্ঠ মানব কতল করিয়া
গাহে ধর্মের জয়গান!
কোন খোদা ঈশ্বর বলে ভগবান,
দাও কর্তন তুমি মানব গর্দান?
এরি নাম কি ধর্ম
নাকি ঘৃণ্য কর্ম?
ওদের কৃত শত কর্ম
হয় না মোর বোধগম্য!
ওরে বিধাতা কোথায় রইলি হায়,
তব নাম লয়ে ওরা বিশ্ব লুটে যায়!
বিধাতা হলে মোর পাপ, করে দিস মাপ,
তবে সত্যি চাইনা ধর্মের এই অভিশাপ!”

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

8 + 1 =