মুরুব্বির সালিশে বিচার !!

১. ২০০৫ এ ইসলামি জঙ্গিদের বোমা হামলার টার্গেট ছিল বিচারক, আইনজীবি ও আদালত । জঙ্গিরা বলল, আল্লাহর আইন ছাড়া মানুষের তৈরি আইন মানি না তাই বোমায় উড়িয়ে দেয়া হল বিচারক আইনজীবিদের । আদালতে বোমার বিষ্ফোরন হল । বোমা রেখে ভীতি ছড়ানো হল । যেন সবাই আল্লাহর আইন ই মেনে নেয় , মানতে বাধ্য হয় ।

২. ২০১৫ সনের জানুয়ারি ১৬ তে প্রধান বিচারপতি হিসেবে আসীন হন বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা । রব উঠলো ৯০% মুসলমানের দেশে কেন এক হিন্দু মালাউন প্রধান বিচারপতি হবে !! হুমকি ধমকি চলল প্রায় মাসেক কাল । মালু বিচারপতি মানি না । অথচ, ২০০৫ জুড়ে এরাই বোমা হামলা চালিয়েছে এই বলে যে ” মানুষের তৈরি আইন মানি না, আল্লাহর আইন চাই ” । দুমুখো সাপের মত আচরন দেখে অবাক হওয়া ছাড়া গতি নাই ।

৩. সাম্প্রতিক রব উঠলো সুপ্রিমকোর্ট এর অঙ্গনে গ্রিক দেবির প্রতিমা বসানো যাবে না । এতে মুসলমানের ধর্মিয় অনুভূতিতে আঘাত লাগে । অথচ, মুসলমান আইন ব্যবসা করার টাকায় জঙ্গিবাদের প্রসারে কাজ করলে ও টাকা ঢাললে তখন সব ঠিক আছে । এরা নিজেরাই বলে মানুষের তৈরি আইন মানি না । যদি মানেই এই কথা তবে তো সুপ্রিমকোর্টে গ্রিক দেবির প্রতিমা বসানোতে এদের আপত্তি প্রডাশের কোন কারনই দেখি না । প্রতিমা বসানোর বিরোধিতার ব্যপারটা বেশি বাড়াবাড়ি হয়ে গেল না ?? নাকি মিডিয়াতে মুখ দেখানো এদের জন্য ফরজ ??

৪. বিচারালয় এরা চায় না এটাই মূল কথা । না হলে হুজুরের হিল্লা বিয়ে করার, দোররা মারার মত অনৈতিক বর্বর সব হুজুরের সালিশ এ বিচার টিকবে না , বিলুপ্ত হবে । এই ভয়ে এবং অনৈতিক কাজ কমে যাওয়া মানতে না পারার অজুহাতেই এদের ইসলামকে বারবার সংবাদ সম্মেলনে টেনে টেনে আনা !!

৫. পাঠ্যপুস্তকে “হিন্দু ও নাস্তিকদের” না রাখায় সরকার কে ধন্যবাদ জানিয়েছে হেফাজত এ ইসলাম এবং চর মোনাইয়ের জঙ্গিরা । হাজার হোক শেখ হাসিনার বাংলাদেশ । দলিল দস্তাবেজ রেডি , শুধু আপলোড করা বাকি । মুসলিম নারী মোসাম্মত শেখ হাসিনার বাংলাদেশ , মদিনা সনদের বাংলাদেশ , শান্তির বাংলাদেশ । যদিও ইসলামে নারি নেতৃত্ব হারাম তবে শেখ হাসিনা কিংবা খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে এটা উহ্য থাকে । তখন ধর্মের অনুশাসনের মায়েরে বাপ ( আপোষ) করতে ছাড়ে না ইসলামি জঙ্গিবাদ । আর তাই , খালেদার আমলে যে বাংলা ভাই , শেখ হাসিনার আমলে তারাই নিবরাস, তারাই মারযান , তারাই তামিম-মারযান-প্রিয়তি !!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 83 = 92