বড়দিনের উপহারঃতীর্থের কুহকের কবিতা গুচ্ছ(৩)

মা ক্যান্সার যুদ্ধে হেরে বিষন্ন
মৃত্যু নামক বিশাল করের বোঝা- জীবন বিপন্ন
তবুও তিনি ভালো থাকার অভিনয় রপ্ত করেছিলেন
তবে ইশ্বর ডাক পাঠালেন
ভালো থাকুক মা স্বর্গের সোপানে ।

বাবা প্রথম যুদ্ধে তবু হাসিমুখে ফিরেছিলেন ঘরে
পরেরবার হেরে গেলেন- আর ফিরলেন না ।

শীতের হাওয়ার সাথে অবিরাম যুদ্ধ রয়েছে জারি
ঘুমোতে গেলে একটি ই আক্ষেপ-
একটু চাই উষ্ণতা।
চাই আসুক সন্নিকটে শুকতারা ।

আমার চাইনা নতুন সাইকেল
চাইনা নতুন কোন চকচকে মোবাইল
সামনের বড়দিনে নিজের একখানা বাড়ি চাই
কেবলই নিজের জন্য- মাথা গোঁজার বলে ।

চাইনা নতুন কম্পিউটার, চাইনা দামী জামা
প্রিয় কমেডি শো দেখার ইচ্ছে হলে-নেই প্রয়োজন দূরদর্শন দৈত্যাকার ।

আমি একটি ঘর চাই ঘুমোবো বলে-খুব ছোট্ট একটু জায়গা
আমি চাই- কেউ আসুক এগিয়ে;ধরুক ছোট্ট হাতখানি
শুনুক, একটি শিশুর আর্তনাদ ।

এখানে ভীষন ভীড়; মাথা গোঁজার নেই ঠাই
একটু একাকীত্ব ও শিক্ষার সুযোগ চাই
একটি সফল পরিণতির স্বপ্নের বীজ বুকপকেটে নিয়ে কেটে যায় নির্ঘুম রাত ।

আমি চাইনা কোন নতুন দামী জুতো- কোন চকচকে সেতার
সামনের বড়দিনে একখনা ঘর চাই- একান্তের ।

মূলঃ ব্রায়ান ক্র্যান্ডাল
.?oh=c9998cfa6c15a7a8c5f2b7db1d23916e&oe=5916E852″ width=”500″ />
Photographer Mikael Theimer from Montreal, Canada, travels the world capturing moments in time. His photography of the homeless showcases how they seem to be invisible to those around them.

“If we all saw [the homeless] as humans – and not just ‘beggars’ – then maybe we’d realize it’s quite a messed up society we’ve built for ourselves…”-Mikael Theimer

http://www.mikaeltheimer.com/

https://www.facebook.com/MklTheimer/

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

56 − 50 =