অদ্বিতীয় আল্লাহ কুরআনে নিজেকে বুঝাতে ‘আমরা’ সর্বনামের ব্যবহার করলেন কেনো?

‘অদ্বিতীয়’ আল্লাহ নিজেকে বোঝাতে ‘আমরা-We- نحن(নাহনু)’ সর্বনাম ব্যবহার করেছেন কেনো?
.
.

মহান আল্লাহ এক এবং অদ্বিতীয়।
আল্লাহর উপর বিশ্বাস স্থাপন করার মূল শর্ত হলো এটা।
.

কিন্ত,পবিত্র কুরআনের কয়েকটা আয়াতে মহান আল্লাহ নিজেকে বোঝাতে গিয়ে ‘আমরা’ সর্বনামটি ব্যবহার করেছেন।

(যেমন:- সূরা বাকারা: ৩,৩৪,৫০। সূরা হাশর : ২১। সূরা ইউনূস : ২,১১,৭৩। সূরা ইসরা: ২২। সূরা কাহাফ :৫৬। )
.
.

আরবী ভাষা ও সাহিত্য বিশ্বের সবচেয়ে সমৃদ্ধ ও ঐশ্বর্যশীল ভাষার মধ্যে অন্যতম।

আরবী ভাষায় ‘আমরা’ সর্বনামটি ব্যবহার করা হয় সম্মানার্থে এক বচন বোঝাতে।(ফতওয়া: আল লাহজনাহ আল দায়ীমাহ ৪-১৪৩)

তারমানে ‘নাহনু’ বা ‘আমরা’ মানে এখানে একাধিক আল্লাহকে বোঝানো হয়নি;বরং এক আল্লাহকে বোঝানো হয়েছে এবং সম্মানার্থে ‘আমরা’ সর্বনামটি ব্যবহৃত হয়েছে।
.
.

ইংরেজীতে plural বা বহুবচন দুই প্রকার।
1. Plural of numbers (সংখ্যার বহুবচন)
2.Plural of respect (সম্মানের বহুবচন)

সেই সম্মানার্থের বহুবচনকে বলা হয় ‘Royal plural’ বা ‘Royal We’ যা আরবী, হিব্রু ও পার্সিয়ান ভাষায় ও ব্যবহৃত হয়।
Royal We means majestic plural that refer a singular person.
অর্থাৎ, আভিজাত্য বুঝাতে ‘আমরা’ সর্বনামটি ব্যবহৃত হয় গরিমাময় বহুবচন প্রকাশে যা এক বচনকে নির্দেশ করে।
যেমনটা ইংল্যান্ড এর রাণী নিজেকে সম্ভোধন করতে ‘I’ এর পরিবর্তে ‘We’ ব্যবহার করে থাকেন। 🙂
.
.
ইংরেজীতে যেমন আমরা সচরাচর বলে থাকি-
You ‘are’ my classmate.

এখানে you একবচন, সে হিসেবে এর verb ও হওয়া উচিত ছিলো একবচনে ‘is’.
কিন্ত ক্রিয়া একবচনে না হয়ে বহুবচনে হওয়ার কারণ এখানে Royal plural এর ব্যবহার করা হয়েছে।

ঠিক একইভাবে মহান আল্লাহ পবিত্র কুরআনে নিজের সম্মানার্থে এবং ক্ষমতা বুঝাতে ‘আমরা’ সর্বনামটির ব্যবহার করেছেন; যা দ্বারা একক এবং অদ্বিতীয় আল্লাহকেই বুঝানো হয়েছে। 🙂

বিদ্র: বিষয়টি নিয়ে আমার কৌতুহল ছিলো অনেক আগ থেকেই।
তাই এতোদিন তথ্য ঘাটাঘাটি করে সব তথ্য সমন্বয় করে লিখলাম।
ভুল হলে মহান আল্লাহর দরবারে ক্ষমাপ্রার্থী।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

12 − = 5