নিজের মত করে অপ্রিয় বাস্তব নিয়ে বেঁচে থাকার শান্তনা নিয়ে বয়ে চলেছে জীবন তরী, আর হয়ত এভাবেই বইবে !!

কাল রাত প্রকৃতি ভেজেনি জলে,,অবুঝ বর্ষনে তৃপ্ত হয়নি ধরা ,,ভিতরের সব রাগ অভিমান কষ্ট উপড়ে দিয়ে শান্ত হয়নি উত্থাল সমুদ্র,, শুধু ওই মুক্ত আকাশের নিচে কোন এক কোনে বসে কাক ভেজা পাখির মত করে ভিজেছে আমার মন,,হাজারো না পাওয়ার মিছিলে পাওয়াটুকুকে হাতড়ে ফিরেছে কিছু স্বপ্ন !
কিন্তু পাইনি কোন পূরণ হওয়া স্বপ্নের সন্ধান,, অতৃপ্তি আর স্বপ্ন ভাঙ্গার যন্ত্রণায় গুমড়ে গুমড়ে কেঁদেছে অন্তর আত্মা ,তবু চিৎকার করে বলতে পারেনি কেন আমার এই সামান্য চাওয়াটুকু পূরনে এত আপত্তি এই নিষ্ঠুর পৃথিবীর ?? কেন নিয়তির কাছে বারবার হেরে যেতে হয় ছোট্ট ছোট্ট কিছু স্বপ্নকে ?? কেন এমন করে ভাগ্যকে বরন করে ভালো থাকার অভিনয় করতে হয় আমার ??
নিয়তির বিরুদ্ধে কোন জিহাদ নেই আমার ,,না কোন অভিযোগ ! তবে স্বপ্ন কেন আসে চোখে ?? ওটা কি নিয়তির বাহিরের কিছু ??তা আটকানোর সাধ্য কি তার নেই ?? কেন দেখার পর ভাঙ্গার জন্য হাঁতুড়ি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে দ্বারপ্রান্তে ?? হাজারো স্বপ্নের ভিড়ে এমন একটি স্বপ্নও কি নেই যা যৌক্তিক, যা পূরনীয় ?? কার কাছে এই প্রশ্ন জানা নেই !
আকাশের অভিমান হলে সে যেমন চিৎকার করে কাঁদে,লজ্জা ভুলে ভিতরের সবটুকু অস্তিত্বকে বিলিয়ে দিয়ে তৃপ্ত হয়,সমুদ্রও মাঝে মাঝে তার হৃদয়কে শান্ত করে উচ্ছৃখল হয়ে ঠিক তেমনি করে যদি এই মনের সব টুকু যন্ত্রনা উপড়ে তৃপ্ত হওয়া যেত তবু না পাওয়ার মিছিলে একটি পাওয়াকে আঁকড়ে ধরে বেঁচে থাকা যেত শান্তিতে,কিন্তু কেন আমি তাও পারি না ?? কেন চিৎকার করে কেঁদে এই অশান্ত হৃদয়ের শান্তনাটুকুও হতে পারি না ?? আমার অক্ষমতা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়ে বিকট শব্দে হাসতে থাকে প্রানগুলো ?? খুব কি শান্তি পায় তারা ?? তাদের সেই কটাক্ষ আর পরাজয়ের হাসিও কেন নিরব দর্শকের মতই সহ্য করতে হয় এই পরাজিত সৈনিককে ?? এর উত্তরও জানা নেই !
শুধু দুটি অশান্ত নয়ন থেকে দুখের জলস্রোত অশ্রু হয়ে ঝরে কোন অবয়বের পরিবর্তন ছাড়াই,না কেউ দেখে না কেউ বুঝে,না কেউ পরম আদরে চোখের জল মুছে বুকে টেনে নেয়।সেই কষ্টের এক ফোঁটা জলও কারো হৃদয়কে স্পর্শ করেনি কখনও,কারো মনের ভেজা বারান্দায় কখনও ঠাঁই পায়নি সেই ভেজা কাক,নিজের মত করে অপ্রিয় বাস্তব নিয়ে বেঁচে থাকার শান্তনা নিয়ে বয়ে চলেছে জীবন তরী,আর হয়ত এভাবেই বইবে !!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 73 = 74