আজ ত্রিশ বছরের চুড়ায় আমি…..

জীবনের তিনটি দশক পেরিয়ে এলাম,
তিন দশকের চুড়ায় উঠে আজ থমকে দাঁড়ালাম
ফেলে আসা অনেক স্নৃতি জুড়ে আছে গত তিন দশককে ঘিরে,
শৈশবে মায়ের কড়া বকুনি
খাল পেরিয়ে, বিল পেরিয়ে চষে বেড়ানো
ধানকাটা বিলের আল পথ ধরে
দৌঁড়ে দৌঁড়ে ঘুঁড়ি উড়ানো
পাড়ার ছেলেদের সাথে মারামারি,
স্কুল ফাঁকি
খালের ছড়ায় গিয়ে কাশফুল ছিঁড়ে আনা
শরতের ভোরে শিশিরমাখা
শিউলি কুঁড়ানো
ঠাকুরমার সাথে সেই মিষ্টি মধুর দিনগুলো
ভালোই তো ছিল সেই শৈশবের দিনগুলো
অতপর ষোড়শ পেরিয়ে সপ্তদশে পা
নতুন চিন্তায় মস্তিষ্ক তোলপাড়!’
নিজের প্রশ্নবানে ক্ষত-বিক্ষত আমি
কোথায়? কতটুকু আছে ঈশ্বর?
মাঝে মাঝে রোমাঞ্চিত হই!
প্রেম আমাকে কিছুই দেয়নি
দিয়েছে কিছু রক্তক্ষরণের মতো প্রতারণা
আর দীর্ঘশ্বাস!
বিগত জীবনে প্রতারক জুঁটেছে অনেক,
প্রেমিকা জুঁটেনি একটাও…
প্রতি কদমে কদমে ঠকেছি,
কথায় কথায় আসস্থ হয়েছি,
বিগলিত হয়েছি
অপাত্রে বার বার অন্ধের মতো ঢেলেছি দ্বিধাহীন বিশ্বাস
তবুও মানুষ আস্থার বুকে মেরেছে ছুরি

আজ ত্রিশ বছরের চুড়ায় আমি,
কিছু দুঃস্নৃতি মাড়িয়ে এসেছি….
সত্যের পথ ধরে হাঁটতে গিয়ে দেখেছি
কতো সহিংসতা, ক্ষোভ
স্ববিরোধী মানুষের নির্লজ্জতা
কাছের মানুষগুলোর
স্বার্থের জন্য কতো নিচে নামা
কি সুন্দর গড্ডালিকায় গা ভাসানো!
দুর্ভেদ্য হলে স্রোতের বিপরীতে চলেছি একা
কখনো নিঃসংগ
তবুও হাল ছাড়িনি
আজও নয়
বোকা আমি, বিষম বোকা!
সম্মুখে বিভীষিকা জেনেও সত্যকে নির্দ্বিধায় বলেছি
ভাবিনি নিজের ক্ষতিটুকু
বলবো আরো বলবো সেই সহিংস ধর্মের বিরূদ্ধে
মৃত্যুর শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়েও বলব
সভ্যতার কাছে এই আমার অঙ্গিকার
কে কি বলল, কি ভাবল,
আমার কিছু যায় আসে না
ত্রিশ বছর পরের জীবনেও আমি আমার এই অভ্যাস ধরে রাখতে চাই
যতো আঘাত আসুক, বিপত্তি আসুক
হানুক চাপাতির আঘাত
তবুও বলব!
চোখে চোখ রেখে
দ্বিধাহীন চিত্তে বলব আমার কথা
এই আমার অধিকার
আমার অধিকার যে হরণ করতে আসবে,
তাঁকে এক ইঞ্চি ছেড়ে কথা বলব না!
এভাবে চলুক জীবন আগামীর দিকে….

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

56 − = 48