রাষ্ট প্রথা নিপাত যাক স্বাধিনতা মুক্তি পাক।

আমি রাষ্ট প্রথা সমর্থন করিনা„ ফেইচবুকে এ ধরনের পোষ্ট পড়ে যারা বিরক্ত হয়েছেন তাদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। আমি মাইকেল অপু মন্ডল„ আমি রাষ্ট প্রথা সমর্থন করিনা, চাইলে আপনি আমাকে রাষ্টদ্রহী বলতে পারেন. আমি রাষ্ট প্রথা সমর্থন করিনা কারন এর পক্ষে কোন যুক্তি নেই, আপনি যদি মনে করেন রাষ্ট প্রথার পক্ষে কোন যুক্তি আছে তহলে আপনি সোগুলো পেশ করবার জন্য স্বগত,,
আমি রাষ্ট প্রথার বিপক্ষে তিনটি যুক্তি দিবো, আপনি চাইলে এগুলো খন্ডনের চেষ্টা করে দেখতে পারেন ।
প্রর্থমত,, এটা ব্যাক্তিকে পরাধিন করে,
রাষ্ট মানে জেলখানা, যেলখানা যেমন কয়েদি আটকে রাখে, রাষ্ট তেমনি কয়েদি আটকে রাখে, বিশ্বাস না হলে জেলারের অনুমতি ছাড়া রাজস্থান ঘুরে আসুন, রাজস্থান ঘুরতে যদি আপনার তথাকথিত জেলারদের অনুমতির প্রয়োজন পড়ে তাহলে আপনি কি স্বাধিন! !! নরেন্দ্র মদি কে জে বলতে পারে আপনি রাজস্থান যেতে পারেন কি পারেন না,,, বা শেখ হাসিনাই বা কে জে বলতে পারে আপনি কোথায় যেতে পারেন বা পারেন না, রাষ্ট ব্যাবস্থার অধিনে তারা জেলার আপনি কয়েদি, রাষ্টহীন পৃথিবীতে আপনি কয়েদি নন,
দ্বিতীয়ত,,, রাষ্ট বর্বর, আপনি যদি মনে করেন রাষ্ট বর্বর নয়„ তাহলে কাঁটাতারে ঝুলে থকা, ফেলানির লাশের ছবি দেখতে পারেন, বা হলোকাষ্ট নিয়ে একটু পড়াশুনা, বা ৭১রে ধর্ষিত কোন নারীর গল্প শুনতে পারেন,,, পৃথিবীতে লক্ষ মানুষ যখন ক্ষুদিত রাষ্টগুলো তখন অজস্ত্র অর্থ মারনস্ত্র তৈরিতে ব্যাবহার করছে, যার সামান্য অংশ ব্যাবহারে পৃথিবীস্থ ক্ষুদা ও দারিদ্রতার বিলুপ্তি সম্ভব , রাষ্টপ্রধানরাই মানুষকে ক্ষুদিত রাখা বর্বর শ্রেনীর প্রতিনিধী„ এবং রাষ্ট ব্যাবস্থার সমর্থকরা এই বর্বরতাকে সমর্থন দেয়„„
তৃতীয়ত,, রাষ্ট পৃথিবীর প্রনীকুলের জন্য হুমকিসরুপ,
প্রতিটি রাষ্ট সেনাবাহিনি নামক তার নিজের বৌধ্য সন্ত্রাসি গোষ্ঠি পালন করে, এদের প্রধান কাজ হচ্ছে শক্তি প্রর্দশনের মাধ্যমে অন্য বৈধ অধৈধ সন্ত্রসীর দের সন্ত্রস্থ করা, তাতে কাজ না হলে রক্তের বন্যা বইয়ে দেবার প্রতিযোগিতায় নামা, আমার হিটলার পরিচালিত বৈধ সন্ত্রাসি ও তাদের বিপক্ষে লরা অন্য বৈধ সন্ত্রাসি গোষ্ঠর লড়াই দেখেছি। আমরা রাষ্ট পরিচালিত রক্তের বন্যা দেখেছি, আমারা এখন রাষ্ট পরিচালিত শুধু পরবর্তি বৃহৎ
রক্তের বন্যা বয়ানোর প্রতিযোগিতা দেখবার অপেক্ষায় যা হয়তো পৃথিবী থেকে প্রানের বিলুপ্তি ঘটাবে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

5 + 2 =