ছাত্র রাজনীতি নাকি ভর্তি বানিজ্য????????

চট্রগ্রামের একটি প্রাচীন এবং নামকরা কলেজের প্রাক্তন ষ্টুডেন্ট ছিলাম। যেহেতু কলেজ অনেক পুরাতন এবং কলেজের রেজাল্ট ভালো তাই বেশীরভাগ ষ্টুডেন্টরা ভর্তি হওয়ার চেষ্টা করে। আজকে বি.বি.এস এর রেজাল্ট দিলো। ফেন্ডের রেজাল্ট দেখতে কলেজে যাওয়া। স্বাভাবিকভাবেই এপ্লাই করা ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা অনেক বেশী। প্রাক্তন ষ্টুডেন্ট হওয়াতে লীগের ভাইয়াদের সাথে মোটামুটি ভালো সম্পর্ক ছিলো। তাই কলেজ সংসদে উনাদের সাথে দেখা করতে যাওয়া। কিন্তু ঐখানে গিয়ে দেখি জুনিওর ব্যাচ এর ছেলেদেরকে নিয়ে মিটিং করছে ছাত্রলীগের সিনিয়র ভাইয়েরা। কিছুক্ষন বসার পর মিটিং এর সারমর্ম বুঝতে পারি। সারমর্ম ছিলো এবার কলেজে বি.বি.এস এর সিট ৭০০ থেকে কমিয়ে ৩০০ করা হয়েছে। যার কারনে উনাদের ভর্তি কৌঠা কমে গেছে। তাই জরুরী মিটিং বসেছে কিভাবে আগের মত কৌঠা থাকে। এবং উনারা যে উপায় টা দেখালো তা মোটামুটি ভয়ংকর। জুনিয়র ব্যাচের ছেলেদের কে বলে দিলো যে ভর্তির দিন ওরা নিওজেরা নিজেরা একটা প্রব্লেম করবে। তারপর ঐদিন কলেজে মারামারি। এবং আপনি আমি ভালো করেই জানি এরকম যেখানে মারামারি হয় ঐখানে অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানদের ভর্তি করাবেনা। অথচ ওই ছেল মেয়ে গুলো পরিশ্রম করে মেধা দিয়ে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তির্ন হলো।কিন্তু ছাত্রলীগ ভাইয়াদের! কিছু টাকার জন্যে ওদের পছন্দের প্রতিষ্টানে পড়ার স্বপ্ন মাটি হয়ে গেলো। আর এই ভর্তি পরীক্ষা একদিনেই এক সাথে পুর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হওয়ায় অন্য কলেজে পরীক্ষা দেওয়া সম্ভব নাহ।
হয়তো আপনার এই কিছু টাকা কামানোর লোভের রোষানলে পড়ে ওই ষ্টুডেন্ট টার একটা শিক্ষা বছর নষ্ট হয়ে যাবে। কি ভাবছেন?? ওরা প্রাইভেটে ভর্তি হবে??? ভাই শুনেন, ওদের প্রাইভেটে পড়ার সাধ্য থাকলে ওরা এই কলেজে এসে ডিগ্রি কোর্স করতো নাহ।
না ভাই, আপনাদের এসব বলে লাভ নাই। আপনারা এত কষ্ট করে নেতা হইছেন। মাইর খাইছেন। টাকা তো কামাইতে হবে। নাইলে পোষাবে ক্যামনে???
কিন্তু একবার হলে ও ভেবে দেখুন সেই মেয়েটার কথা, যে পরিবারের সবার মতের বিরুদ্ধে গিয়ে আপনার এই কলেজে পরিক্ষা দিয়েছে। চান্স পাওয়ার পর পরিবার কে রাজি করিয়েছে ভর্তি করানোর। কিন্তু নাহ। আপনারা তা হতে দিলেন নাহ। ঠিক এই তো আছে। মেয়ে মানুষের পড়ালেখার দরকার কি :হাসি:
সেই ছেলেটার কথা টা ভাবুন যার কোনো মতে একটা সার্টিফিকেট দরকার। বাবা হারা পরিবারে মায়ের কষ্ট টা দূর করতে একটা চাকরি খুব বেশী দরকার। কিন্তু আপনি তাকে সার্টিফিকেট অর্জনের যুদ্ধেই যেতে দিলেন না।

জানি কিছু হবেন এসব বলে। ঠিক এই ভর্তির দিন কলেজে মারামারি লাগবে। আমি আপনি তাকিয়ে দেখবো মানূষের স্বপন ভঙ্গের দৃশ্য। ফ্রি তে এমন দৃশ্য দেখার সুযোগ কি মিস করতা যায়???? :কল্কি:

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১৫ thoughts on “ছাত্র রাজনীতি নাকি ভর্তি বানিজ্য????????

  1. (No subject)
    :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন: :ভাঙামন:

    1. মন ভাঙ্গার চেয়ে বেশী কিছু
      মন ভাঙ্গার চেয়ে বেশী কিছু কিবা হতে পারে আমাদের। :বুখেআয়বাবুল: :বুখেআয়বাবুল:

    1. শেষের কি খুব বেশী দরকার। চলছে
      শেষের কি খুব বেশী দরকার। চলছে চলুক নাহ। উনাদের টাকা দরকার। নেত্রির জনবল দরকার। শিক্ষিত মানুষের কাজ কি????? :কল্কি:

  2. রাজনীতিতে যোগদানের অন্যতম
    রাজনীতিতে যোগদানের অন্যতম শর্ত বোধহয় নিজের বিবেক বিসর্জন দেয়া :মনখারাপ: :মনখারাপ:

  3. কলেজ কতৃপক্ষ এ বিষয় সম্পর্কে
    :আমিকিন্তুচুপচাপ: :আমিকিন্তুচুপচাপ: :আমিকিন্তুচুপচাপ:

    কলেজ কতৃপক্ষ এ বিষয় সম্পর্কে কি অবগত নয়??

    ভাইজান, কোন কলেজের কথা বলছেন আপনি?? ইসলামিয়া, এম.ই.এস না সিটি কলেজ??

    1. এই ৩ টার মধ্যে কোনোটাই নয়।
      এই ৩ টার মধ্যে কোনোটাই নয়। কলেজ কতৃপক্ষ হয়তো জানে। জানলেও কিছু করারা সাহস পাবেনা। কারন আমি আমার লেখাই একটা জিনিষ লিখিনাই। আর তা হলো এই জিনিষটা গতবার ইন্টারের ভর্তির দিনে ও সেম কাজ হইছিল।
      বাট তখন জানতাম নাহ। তাইন ভাবছিলাম প্রতিদিনের মতই মারার লাগছে। কিন্তু কাল সিউর হলাম নাহ ঐটা ও পরিকল্পিত ছিলো।

  4. ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা উচিত।
    ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা উচিত। আমরা আমাদের কলেজে দেখতাম, ছাত্রাবাসগুলো নাটের গুরু। একত্রিত হওয়ার যায়গা, নতুনদের প্রভাবিত করার যায়গা এগুলোই… জানি অনেক সমস্যা হবে, কিন্তু এগুলোর বিকল্প খোঁজা উচিত।

  5. আদর্শবিহীন ছাত্র রাজনীতির
    আদর্শবিহীন ছাত্র রাজনীতির কারণেই রাজনীতিতে বাণিজ্য ঢুকে গেছে। এজন্য অন্ততঃ কিছুদিনের ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা উচিত। তারপর সঠিক নেতৃত্বের আগমণ ঘটলেই ছাত্র রাজনীতি আবার চালু করা উচিত। প্রতিটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যদি ছাত্রসংসদ সক্রিয় থাকে, তাহলে ছাত্র রাজনীতির কালো প্রভাব অনেকাংশে কমে যাবে।

    1. কিন্তু যারা পারবে নিষিধ করতে
      কিন্তু যারা পারবে নিষিধ করতে তারা তো এইটা নিয়ে ভাবেনা। আপনি ভাবলে ও কিছু করতে পারবেন নাহ। যাদের ভাবা উচিত তারা ঘুমাচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

55 + = 58