ডিপ্রেশন

চারদিকের অসংখ্য মানুষের মধ্য থেকে যে
কটা মানুষের সম্পর্কে জানছেন, তাদের
প্রায় সবার মধ্যে একটা ব্যাপার কমন,,,
খেয়াল করলেই দেখবেন, পাশের মানুষটি
বলতে চাইছে সে ভালো নেই,,,,
.
আপনার সামনের মানুষটি তিনবেলা করে
খাচ্ছে, টিভি দেখছে, পত্রিকার পাতা
উল্টাচ্ছে,,,,
কিন্তু সে ভালো নেই,,
আপনাদের সম্পর্কটা যদি ‘মন ভালো নেই’
কথাটা শেয়ার করার মতো হয়, তাহলে
সামনের মানুষটি বারবার বলতে চাইবে ‘মন
ভালো নেই’।
.
যদিও আপাতদৃষ্টিতে সে ভালোই আছে,
কিন্তু সবার মতোই তারও কিছু ছোট ছোট না
পাওয়া থেকে যায়,, সেজন্যই তার ‘মন
ভালো নেই’। আর তাছাড়া এটা মন ভালো
করার একটা প্রাকৃতিক থেরাপি, যা
আমাদের সবার জন্য প্রযোজ্য ,,, ছোট ছোট
মন খারাপের কারনগুলো ঝেড়ে কাশা,,,,
.
কিন্তু কাউকে না জানিয়ে, আপনার আমার
আশেপাশের কিছু মানুষ রাতের বালিশে
চোখ ভেজায়,,
এরা কিন্তু একপ্রকার সুপ্ত এবং ভয়ংকর
ডিপ্রেশনে ভুগে,,,
.
যে মানুষটা কিছু হারিয়ে ডিপ্রেসড তার
জন্য নানা রকম সাইকোথেরাপির ব্যাবস্থা
আছে। সে একসময় হয় ডিপ্রেশন থেকে
মুক্তি পায় নয়ত মরে যায়। আমরা তাকে
বুঝিয়ে নয়ত তার কথাগুলো বুঝে বাঁচাতে
চাই মানুষগুলোকে,,,,
.
কিন্তু অন্ধকার ছাদের তামাকধারী
মানুষটা মুক্তি পায় না। সে কষ্টে চিৎকার
করে কাঁদতে চায়, তবে পারে না। তার না
পাওয়াগুলো অপ্রকাশিত, তাই সেগুলো
পাওয়ায় পরিনত করার কেউ থাকেনা।
এরা প্রতিদিন রাতে অন্ধকারের সাথে
অনেক সংগ্রাম করে বেচে আছে,,,
এই মানুষগুলো ঝড়ের রাতে মরে যেতে চায়
কিন্তু হয়ে ওঠে না।
প্রতিদিন শুন্য দড়িটা রাত বারোটায় দশ
মিনিটের জন্য সিলিং ধরে ঝুলে থাকে,
ধারালো ব্লেডের কিনারায় জং পড়ে
যায়,,, তবুও মরা হয়ে ওঠে না।
.
ধীরে ধীরে মরার ইচ্ছেগুলো ফিকে হয়ে
যায়। বাকি জীবনটা অঞ্জন আর ডেনভারে
কেটে যায়।একটা সিগারেটের প্যাকেট আর
পকেটে থাকা ইনহেলারটাও আজীবনের
সাথী হয়ে যায়।
.
তবে অদ্ভুত ব্যাপার হলো এরাই পরবর্তীতে
আশেপাশের মানুষগুলোকে ‘মন ভালো নেই’
কথাটা থেকে বাঁচিয়ে রাখে,,,,
অন্যকে বাঁচিয়ে রাখে,
নিজেও বেঁচে থাকে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

25 − = 16