স্বাবলম্বীতে পরিণত হচ্ছে দেশে

সব বাঁধা পেরিয়ে বাংলাদেশ এখন স্বাবলম্বী দেশে পরিণত হচ্ছে। দেশটি এখন বিশ্ব উন্নয়নের রোল মডেল। বিতাড়িত করেছে ক্ষুধা, দারিদ্র্য। শিক্ষার হার বেড়েছে ঈর্ষণীয়ভাবে। রাস্তা-ঘাট, রেমিটেন্সসহ সব ক্ষেত্রে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীদের শতভাগ বেতন বাড়ানোসহ একের পর এক উন্নয়ন কর্মসূচীর কার্যক্রম এগিয়ে চলেছে। এমনকি বিশ্বব্যাংকের সহায়তা ছাড়াই পদ্মা সেতু মতো প্রকল্পের কার্যক্রমও দ্রুত গতিতে এগিতে চলেছে। সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক সিদ্ধান্তে বদলে গেছে গ্রামীণ জনপদের ভাবধারা। বেড়েছে জীবনযাত্রার মান। ব্যক্তিগত পর্যায়ে মানুষ হয়ে উঠেছে স্বাবলম্বী। এক যুগ আগেও বাংলাদেশের গ্রাম অঞ্চলগুলোতে অর্ধাহারে, অনাহারে দিন কাটাত বড় একটি গোষ্ঠী। অধিকাংশ ঘরবাড়ি ছিল মাটির দেয়াল অথবা পাটকাঠি বা বাঁশের বেড়া আর খড়ের ছাউনিতে তৈরি। বর্তমানে গ্রামের সেই চিত্র আর নেই। অধিকাংশ বাড়িঘর দাঁড়িয়ে আছে ইট সিমেন্ট অথবা টিনের ওপরে। ক্ষুধা, দারিদ্র্য, অশিক্ষা গ্রামাঞ্চল থেকে নির্মূলের পথে। যুদ্ধবিধ্বস্ত, দারিদ্র্যপীড়িত আর প্রকৃতির ভয়াবহ রোষের শিকার বাংলাদেশ স্বাধীনতা প্রাপ্তির ৪৬ বছরের প্রান্তে এসে অনেক হিসাব-নিকাশ ভবিষ্যদ্বাণী বদলে দিয়েছে। বদলে গেছে তলাহীন ঝুড়ির কথিত ভাবমূর্তিও। ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা অর্জনের সময় কেবল অর্থনীতি-ব্যবসা বাণিজ্যেই নয়, আর্থ-সামাজিক নানা সূচকেই অনেক পিছিয়ে ছিল বাংলাদেশ। স্বাধীনতার মাত্র চার বছরের মাথায় চরম দুর্ভিক্ষে অসংখ্য মানুষ মারা যায়। আর স্বাধীনতার পর গত চার দশকে বিদেশী রাষ্ট্রের শোষণমুক্ত বাংলাদেশ বেশ পুষ্ট হয়েছে। অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য ও মানবসম্পদ উন্নয়নে বহু পথ এগিয়েছে বাংলাদেশ। পদ্মা সেতুর মতো বৃহৎ প্রকল্প কোন ধরনের বৈদেশিক সহায়তা ছাড়াই নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়ন হচ্ছে। বাঙালী জাতির মেধা, পরিশ্রম আর একাগ্রতার মাধ্যমে বাংলাদেশ আজ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। যুদ্ধবিধ্বস্ত ও দুর্ভিক্ষের মধ্য থেকেই বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। অর্থনীতির সব সূচকে উন্নতি হয়েছে এবং হচ্ছে। এভাবে সব দিক দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “স্বাবলম্বীতে পরিণত হচ্ছে দেশে

Leave a Reply

Your email address will not be published.