ইসলামের শত্রু-মিত্র!

রখ্যাত নাস্তিক ব্লগার “সুষুপ্ত পাঠক” তার এক বিশাল ব্লগে একটি লাইনে লিখেছিলেন, “ইসলামের শত্রু ছাড়া কোনো মুসলমান দেশ চলতে পারেনা।” আসলে তাঁর উক্তিটি শতভাগ সঠিক। আমার মন্তব্য ছিল, “চলবে কেমনে? ইসলামের শত্রু ছাড়া চলতে খোদ মুসলমানরাই অস্বস্তিবোধ করে! ইসলামের শত্রু আছে বলেই মুসলমানদের হামলা, লুটপাট, ধর্ষণ-নির্যাতন করার সুযোগ আছে। হামলা, আক্রমন, ধর্ষণ, নির্যাতন, লুটপাট এগুলি মুসলমান ও ইসলামের একেকটা ধর্মের অংশ।”

ইসলাম আসলে কি, ইসলাম কেন? কেন সারা পৃথিবীজুড়ে ইসলাম ধর্মের এতো শত্রু? আমি আজ পর্যন্ত ইসলামের শত্রু ছাড়া কোনো ঈমাম, মুয়াজ্জিন, আল্লামা, কোরাণে হাফেজ, ইসলামিক প্রবক্তা মুসলমান দেখিনি, যারা সবকিছুতে ইসলামের শত্রু খুঁজে পান না। তারা ইহুদীদের শত্রু বলে আসছে সেই ১৪০০ বছরের আগে থেকে। মুহম্মদের হাত ধরে ইসলাম জম্মের প্রথম দিক থেকেই। কোথায় নেই ইসলামের শত্রু? একজন চিত্রশিল্পী থেকে শুরু করে মিৎ শিল্পী, ভাস্কর্য শিল্পী, গল্পকার, ঔপন্যাসিক, মার্ক্সবাদ, নাস্তিক্যবাদ, বিজ্ঞাণ লেখক, হিন্দু, খ্রিস্টান, বৌদ্ধ, জৈণ্য, আদিবাসী, উপজাতি, সমকামী….. সবাই মুসলমানের দৃষ্টিতে ইসলামের শত্রু। সবাই ইসলামে ধর্মের কাছে নিষিদ্ধ। একমাত্র মুসলমান ছাড়া!

আজ আল্লামা শফীরা ন্যায় বিচারের প্রতীক থেমিসের মুর্তির মধ্যেও ইসলামি শত্রুতা খুঁজে পাচ্ছে। কারণ থেমিস গ্রীক সভ্যতার ন্যায় পরায়নরতার দেবী, ইসলামের নয়।
পাকিস্তান জম্মের প্রথম থেকেই সেদেশের ধর্মান্ধ জনগনের দৃষ্টিতে ভারত দেশ একটা ইসলামের শত্রু রাষ্ট্র হিসেবে চিহ্নিত। জঙ্গি পাঠিয়ে হোক, ইসলামি জিহাদী যোদ্ধা পাঠিয়ে হোক ভারতের গনতন্ত্রকে ধ্বংস করতে হবে। তাই মালাউনদের দেশ মুসলমানের করতলে এনে ইসলামের শত্রু বিনাশ করতে হবে। ঐদিকে আরবরের এক কোণায় পড়ে থাকা ছোট্ট একটা ইহুদীদের রাষ্ট, ইসরাইয়েল। এটা পুরো বিশ্ব মুসলমানদের দৃষ্টিতে ইসলামের শত্রু একটা রাষ্ট্র। ইসলামের শত্রু কেবল ইহুদি নাসারাদের রাষ্ট্র তা কিন্তু নয়। সুন্নি অধ্যুষিত সৌদি আরবের কাছে শিয়া অধ্যুষিত ইরান রাষ্ট্রও ইসলামের শত্রু। একিভাবে ইরাকের কাছে সিরিয়াও এক ইসলামি শত্রু রাষ্ট্র। আবার সৌদি আরবের পাশের দেশ মুসলমান অধ্যুষিত ইয়েমেনও কিন্তু সৌদি আরবের চোখে ইসলামি শত্রু একটা রাষ্ট্র। তাই সৌদি আরব বোমারু বিমান পাঠিয়ে দিয়ে মাঝে মাঝে ইয়েমেনের নীরিহ মুসলমানদের হত্যা করে আসে।

এদেশের মসজিদের ঈমাম আর ওয়াজ-বক্তারা সারা বছরই ইসলামের শত্রুর বয়ান দিয়ে থাকেন। -ইহুদী নাসারারা, ইসলামের শত্রু! কোনো প্রথাবিরোধী লেখক, ইসলামের শত্রু! কোনো বিজ্ঞাণ লেখক, ইসলামের শত্রু! বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো সাংস্কৃতিকমনা অধ্যাপক, ইসলামের শত্রু! কোনো বাউল শিল্পী, ইসলামের শত্রু! কোনো বিনোদন পার্ক, ইসলামের শত্রু! বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগ, ইসলামের শত্রু! ভাস্কর্য, ইসলামের শত্রু! হিন্দুদের দেব-দেবীর মুর্তি, ইসলামের শত্রু! কোনো প্রত্নতাত্ত্বিক নির্মাণ, ইসলামের শত্রু! নারীবাদ, ইসলামের শত্রু! সাম্যবাদ, ইসলামের শত্রু! কোনো ব্লগার, ইসলামের শত্রু! গনতন্ত্র, ইসলামের শত্রু। ভালোবাসাবাসি, ইসলামের শত্রু! সমকামী, ইসলামের শত্রু! নাস্তিক্যবাদ, ইসলামের শত্রু! অমুসলিমরা, ইসলামের শত্রু! বিজ্ঞানবাদ, ইসলামের শত্রু! পশ্চিম দিকে টয়লেট, ইসলামের শত্রু! কোনো কার্টুনিস্ট, ইসলামের শত্রু! আহমেদিয়া, ইসলামের শত্রু! পদার্থবিজ্ঞান, ইসলামের শত্রু! দুনিয়াদারির পড়াশুনা, ইসলামের শত্রু! সুদের লেনদেন, ইসলামের শত্রু! আমেরিকা, ইসলামের শত্রু! খ্রিস্টানদের গোটা ইউরোপ মহা দেশটা, ইসলামের শত্রু! জর্জ ডাব্লিউ বুশ, ইসলামের শত্রু! ওবামা, ইসলামের শত্রু! ট্রাম্প, ইসলামের শত্রু! নরেন্দ্র মৌদি, ইসলামের শত্রু! এখানে এতসব রাষ্ট্র, ব্যক্তি ও প্রতিষ্টান যদি ইসলামের শত্রু হয়ে যায়, তাহলে ইসলামের “মিত্র” কে বা কি? আমি আজ পর্যন্ত কোনো ওয়াজ বক্তার কাছে শুনিনি, ইসলামের “মিত্র” কে বা কারা?

তবে কি সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, হামলা, হত্যা, ধর্ষণ, লুন্ঠন, বিধর্মী নির্যাতন, মুর্তিভাঙ্গা, ভাষ্কর্য ভাঙ্গা, চুরি, ডাকাতি, দুস্যতা, মসজিদের নামে ভুমি দখল, কবরের নামে জায়গা-জমি দখল, চারটে বিয়ে করা, ঘরের দাসীকে ধর্ষন করা, স্ত্রীকে যৌন প্রহার করা, শিশু ধর্ষণ করা, মানুষ জবাই করা, আল্লা আল্লা রব তুলে মানুষ হত্যা করা, এগুলি ইসলামের মিত্র? এখনো পর্যন্ত কোনো ইসলামিস্ট পন্ডিত প্রবক্তার কাছে এসব অরাজকতা আর তাণ্ডবকে ইসলামের শত্রু বলতে শুনিনি। তাহলে এটা নির্দ্বিধায় বলা যায় যে, এসব অরাজকতা ইসলামের মিত্র!

প্রখ্যাত নাস্তিক ব্লগার “সুষুপ্ত পাঠক” তার এক বিশাল ব্লগে একটি লাইনে লিখেছিলেন, “ইসলামের শত্রু ছাড়া কোনো মুসলমান দেশ চলতে পারেনা।” আসলে তাঁর উক্তিটি শতভাগ সঠিক। আমার মন্তব্য ছিল, “চলবে কেমনে? ইসলামের শত্রু ছাড়া চলতে খোদ মুসলমানরাই অস্বস্তিবোধ করে! ইসলামের শত্রু আছে বলেই মুসলমানদের হামলা, লুটপাট, ধর্ষণ-নির্যাতন করার সুযোগ আছে। হামলা, আক্রমন, ধর্ষণ, নির্যাতন, লুটপাট এগুলি মুসলমান ও ইসলামের একেকটা ধর্মের অংশ।”

-আর আমি বলতে চাই, ইসলামের শত্রু ছাড়া শুধু মুসলিম দেশ কেন, কোনো মুসলমানই চলতে পারেনা!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

44 + = 50