নবযাত্রায় বন্ধ থাকা ৬০টি রেল স্টেশন

অন্যান্য ক্ষেত্রের মতো রেল যোগাযোগের উন্নয়নে বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে বর্তমান সরকার। এ উদ্দেশে ইতোমধ্যে ভারত ও ইন্দোনেশিয়া থেকে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক রেল কোচ আমদানি করা হয়েছে। এছাড়া সংগ্রহ করা হচ্ছে ব্রড ও মিটার গেজ রেল ইঞ্জিন (লোকোমোটিভ)। রেলখাতের উন্নয়নের অংশ হিসেবে এবার জনবল সংকটে বন্ধ হয়ে যাওয়া রেল স্টেশনগুলো আবারও চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রথম দফায় ঢাকা বিভাগে ২১টি, চট্টগ্রাম বিভাগে ১২টি, পাকশীতে ২৩টি ও লালমনিরহাটের ৪টি স্টেশন মোট ৬০টি বন্ধ থাকা স্টেশন একসঙ্গে চালু হচ্ছে। বলা বাহুল্য যে, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে ট্রেনের সঙ্গে রেল স্টেশনও বন্ধের হিড়িক পড়ে। জোট সরকারের আমলে পূর্বাঞ্চলের ৪৪টি এবং পশ্চিমাঞ্চলের ১৬টি স্টেশন বন্ধ করে দেয়া হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালে পূর্বাঞ্চলে বন্ধ হয়ে যায় আরও ১২টি স্টেশন। বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর বন্ধ এসব স্টেশন চালু করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তারই ফল হিসেবে চালু হচ্ছে ৬০টি বন্ধ থাকা স্টেশন। বন্ধ থাকা ট্রেন স্টেশনগুলো চালু হলে জনগণের ভোগান্তি দূর হবে আর জনসেবায় আরও একধাপ এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “নবযাত্রায় বন্ধ থাকা ৬০টি রেল স্টেশন

  1. বন্ধ থাকা ট্রেন স্টেশনগুলো
    বন্ধ থাকা ট্রেন স্টেশনগুলো চালু হলে জনগণের ভোগান্তি দূর হবে আর জনসেবায় আরও একধাপ এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

5 + 1 =