কালপুরুষ তুমার ডিটেকটিভিটি দিয়া ব্লেড বানায়া বাল ফালানুতে লাইগ্যা যাও…

অনলাইনে আ:লীগ এর সংখ্যা নিয়া দুদিন আগে এরাই বাঁকা হাসি হাসছে। আ:লীগ প্রযুক্তিতে পিছাইয়া আছে, ছাত্রলীগে ডিজিটালাইজেশন হয় নাই এসব কথা বলেছে। কথাগুলো সত্য ছিল। কিন্তু আজকে যখন আ:লীগ ছাত্রলীগ মুভ করতে চাইতাছে, অনলাইনে এদের একটা প্রভাব আইসা যাইতাছে তখন এদের ল্যান্জায় খাউজ্যানি উইঠ্যা গেছে। এতদিন অনলাইনে এই প্রভাব আধিপত্য পুরাটাই ঐ অতিবামেদের হাতে ছিল, এখন তাই ল্যান্জাতে বিকাউজ এক্জিমা দেখা যাইতেছে। অভিযোগ উঠায়া দিসে যে অনলাইন আওয়ামীকরনের পরিকল্পনা হয়েছে, আ:লীগ অনলাইনে প্রভাব বিস্তার করতে চায়! অনলাইনে প্রভাব কেমনে হয় ? ছাগলামী করে না, যুক্তির মাধ্যমেই করতে হয়॥ তারমানে আ:লীগ যুক্তি নিয়া আসতাছে বইলাই কি অতিবাম দের হাগা আটকাইয়া গেছে ? আ:লীগ মুক্তবুদ্ধির চর্চা করুক এইটা ওরা চায় না, কারন আ:লীগ যদি এখানে আসে তাহলে আ:লীগের দলীয় স্ট্যান্ডের কাছে এই বামদের স্ট্যান্ডটা মুতের পুলাপাইনের স্ট্যান্ডের মত হয়ে যাবে। আ:লীগের সাম্প্রতিক সময়ে দুর্ণিতি আর কিছু অন্যায় ছাড়া কলঙ্ক বইলা কিছু নাই। কিন্তু এদের কলঙ্ক বহু। আ:লীগ ভার্চুয়ালে আসলে আ:লীগের লগে এগোর ভার্চুয়াল ফাইট দিতে হবে আর ভার্চুয়াল ফাইটের মূল অস্ত্র ইনফরমেশন, এইখানেই সমস্যা॥ আ:লীগের স্ট্যান্ড এন্ড স্ট্যান্ডার্ডের সাথে ফাইট দিতে হইলে নিজেগো দলের যে স্ট্যান্ড এন্ড স্ট্যান্ডার্ড থাক লাগবে ঐটা এগোর নাই। এই বিষয়টা আ:লীগারদের না জানা থাকতে পারে কিন্তু ফরহাদ মজহারের ছায়াগুলো ঠিকই এইটা জানে যে লুঙ্গি পড়া ফরহাদ মজহারদের লুঙ্গি উঠাইয়া ল্যান্জা ধইরা টান কেবল আ:লীগই দিতে পারবে। তাই ল্যান্জাওয়ালাদের এত টেনশন। কয়দিন আগে বাংলার মহাচুদনা ডিটেকটিভ ওরফে বাংলার জুলিয়ান অ্যাসান্জ মহাচুদুরভুদুরকে চৌদ্দ শিকে ঢুকাইয়া ডিম্ব থেরাপি দেয়ার পর থেকে মগবাজারীদের ডিটেকটিভ ক্রাইসিস বাইড়া গেছে। এই চাহিদা পুরন করতেই আরেক চোদন চীনা মগবাজারি বালপুরুষ আচোদার ডিটেকটিভিটি লইয়া আইছে। আমি আপনার লগে খাইয়া দাইয়া ঘুমাইলাম আর আমি যখন ঘুমের ঘোরে আপনি তখন আমার বাল গুইন্যা ফালাইছেন আর এই বালের নাম্বার প্রকাশ কইরা ডিটেকটিভিটি চোদাইতেছেন॥ তোমাদের এইসব ডিটেকটিভিটি দিয়া ব্লেড বানায়া রাস্তার মোড়ে বাল কামানোতে লাইগ্যা যাও…..

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৮ thoughts on “কালপুরুষ তুমার ডিটেকটিভিটি দিয়া ব্লেড বানায়া বাল ফালানুতে লাইগ্যা যাও…

  1. অশালীন ভাষায় পোস্ট লেখে বাঁশ
    অশালীন ভাষায় পোস্ট লেখে বাঁশ কেল্লার ছাগুর দল ! তাদের সাথে আমাদের পার্থক্য বজায় রেখেই আগানোর আহবান জানাচ্ছি। তারা মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে অশালীন ভাষায় লেখালেখি করে ! ওদের সাথে আমাদের পার্থক্য হলো- আমরা সঠিক সথ্য, যুক্তি নির্ভর তথ্য দিয়ে শালীন ভাষায় লেখা-লেখি করি আর তারা আমাদের বিপরীত। এটা বজায় রেখে আমাদের লেথা-লেখি অব্যাহতভাবে চলুক এটাই সবার কাছে আমার প্রত্যাশা রইল… জয় বাংলা…

  2. কথা ঠিক ই.. বলেছেন । তবে
    কথা ঠিক ই.. বলেছেন । তবে স্ল্যাং একটু বেশি মাত্রায় প্রয়োগ হয়েছে । অতিরিক্ত ক্রোধ থেকে এটা উদ্ভুত , বোঝা যাচ্ছে । শুভেচ্ছা রইল । আরো ভাল লিখবেন আশা করছি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 + 7 =