ইসলাম কি হত্যা সমর্থন করে ?

বিশ্ব ব্যাপি ধর্মীয় হত্যা কান্ড বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে এখন বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে ইসলাম কি হত্যা সমর্থন করে ? অনেকে নিজ নিজ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বিষয়টা নিজের মত করে ব্যাখ্যা করছেন। অন্যান্য ধর্নের মত ইসলামেও বিভিন্ন মতবাদ ও দর্শন রয়েছে। তাই সবাই নিজের সুবিধে মত ধর্ম যুদ্ধ বা জিহাদ বা কিতাল বা হত্যা করাকে উপস্থাপন করছেন।

আধুনিক ইসলামিসটরা সরাসরি বলেন ইসলাম বা কোরআন হত্যা সমর্থন করে না। আবার অনেকে ইনিয়ে বিনিয়ে স্বীকার করলেও সেটাকে ১৪০০ বছর আগের জন্য প্রযোজ্য বলে যুক্তি তুলে ধরেন।

আসল সত্য হল ইসলাম হত্যা কে সমর্থন করে।
আরবি শব্দ কিতাল (ق ت ل) থেকে এসেছে। যার মূল হচ্ছে কাফ, তা, লাম । কিতাল শব্দের অর্থ হত্যা করা। কোরআনে এই কিতাল শব্দ এসেছে মোট ১৭০ বার। বিভিন্ন কন্টেক্সট,থিম, ঘটনায় এই হত্যা কথাটা বার বার এসেছে। এমনকি সালাত বা নামাজ আদায় করার থেকেও হত্যা করার কথা বেশী বার এসেছে বিভিন্ন আয়াতে।

তার মধ্যে, তোমরা তাদের হত্যা কর এই কথা এসেছে ৮৩ বার।
হত্যা করতেই হবে এটা এসেছে ৪ বার।
হত্যা করবে এসেছে ৫৪ বার।
অতঃপর হত্যা কর এসেছে ৪ বার।
নাম (নাউন) হিসেবে এসেছে ১ বার।
ক্রিয়াশীল নাম হিসেবে এসেছে ১০ বার।
ক্রিয়াশীলতা অর্থে এসেছে ১৪ বার।

কুতিবা আলাইকুমুস সালাত- সালাত বা নামাজ তোমাদের উপর ফরজ করা হয়েছে এই কথা কোরআনে এসেছে মোট ২৩ বার। আর কামা কুতিবা আলিকুমুল কিতাল- হত্যা তোমাদের উপির ফরজ করা হয়েছে এই কথা কোরআনে এসেছে মোট ৮৩ বার। য়ার তাই মুসলিম জিহাদিরা নামাজ ও অন্যান্য ইবাদতের চাইতে জিহাদ বা হত্যা করাকেই বেশী জোর দেয়। তারা বিশ্বাস করে শুধু নাম, রোজা, হজ্ব, যাকাত আদায় করে বিশ্ব ব্যাপি ইসলাম প্রতিষ্ঠা সম্ভব নয়। যদি তাই হতো নবী মোহাম্মদ কেবল নামাজই পড়তেন; কোন দিন যুদ্ধ করতেন না। ইসলামের ইতিহাস থেকে প্রমাণ পাওয়া যায় নবী মুহাম্মদ মোট ২৩ বার যুদ্ধে অবতির্ণ হয়েছেন।

অনেকে আবার বলার চেষ্টা করেন কোরআনে যে জিহাদ বা হত্যার কথা বলা হয়েছে সেটা ১৪০০ বছর আগের প্রেক্ষাপটের জন্য; আজকের দিনের জন্য নয়। যদি এই কথা সত্যি হয় তাহলে কোরআনের প্রথম আয়াত মিথ্যে হয়ে যায়। কোরআনের প্রথম আয়াতে বলা হয়েছে – যা লিকাল কিতাবু লা রাইবা ফি হুদাল্লিল মুত্তাকিন। অর্থ- এটি মুত্তাকিন বা অনুসারিদের জন্য সম্পুর্ণ জীবন বিধান। এতে অতীত, বর্তমান ও ভবিষতের সকল কিছু নিহিত আছে। এতে তোমরা কোন সন্দেহ পোষণ করো না।

খিলাফত কায়েমের পূর্ব শর্ত হলো জিহাদ।
জিহাদ ব্যতিত খিলাফত কায়েম করা যাবে না এই কথা কোরআনে সুস্পষ্ট ভাবে বলা আছে অন্তত ৪ বার। আল্লাহর স্বাক্ষ সম্বলিত কালো পতাকা সারা বিশ্বে একদিন উড়বে এই কথাও কোরআনে বলা আছে। একটু লক্ষ্য করলে আইসিস এর পতাকা দেখলেই তা বুঝতে পারবেন।
http://corpus.quran.com/wordbyword.jsp?chapter=9&verse=5#(9:5:1)

Sahih International: And when the sacred months have passed, then kill the polytheists wherever you find them and capture them and besiege them and sit in wait for them at every place of ambush. But if they should repent, establish prayer, and give zakah, let them [go] on their way. Indeed, Allah is Forgiving and Merciful.

এর পরেও যারা অস্বীকার করে ইসলাম হত্যা কে সমর্থন করে না তারা মিথ্যাবাদী না হয় ভণ্ড।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

63 + = 65