ফসল ক্ষেতের সর্বশেষ অবস্থা জানাবে মোবাইল অ্যাপ

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিপুল সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে স্বল্পতম ব্যয়ে সর্ব্বোচ্চ ফলন নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে প্রযুক্তির সর্বশেষ অগ্রগতিকে কাজে লাগিয়ে ‘ই-ভিলেজ’ নামে একটি বিশেষ প্রকল্প শুরু হতে যাচ্ছে। মাটির স্বাস্থ্য, ফসলের প্রকৃত রোগ যথাযথভাবে নিরুপন করে বিদ্যমান উপাদান ব্যয় কমিয়ে সর্ব্বোচ্চ ফলন নিশ্চিত করতে নতুন এই মোবাইল অ্যাপটি চালু করা হবে। সেন্সর বেসড ডিভাইজ এর মাধ্যমে মোবাইল ফোনে স্মার্ট অ্যাপসের ব্যবহার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার জন্য পরীক্ষামূলকভাবে কৃষকের হাতে মোবাইল ফোন বিতরণ করাসহ ট্রেনিং এর ব্যবস্থা করা হয়েছে। কৃষি বান্ধব বর্তমান সরকারের ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত ডিজিটাল বাংলাদেশ রুপান্তরের নিরন্তর প্রচেষ্টায় এ প্রকল্প বিশেষ সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। চীনা দূতাবাসের আর্থিক সহায়তায় ‘আইসফটস্টোন’, গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর রিচার্স অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে ইতোমধ্যেই প্রজেক্টের কাজ এগিয়ে চলছে। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ২৪ নং ওয়ার্ডের পাজুলিয়া গ্রামে ১৫ জন কৃষকের উপর প্রাথমিকভাবে পরীক্ষামূলক এই প্রকল্পটি বাস্তবায়নের কাজ চলছে। কয়েক দশক ধরে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপসের সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে নতুন প্রযুক্তির সন্নিবেশ ঘটিয়ে সহজবোধ্য বাংলা ভাষায় ‘স্মার্ট অ্যাপস’ তৈরির কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। কৃষকরা সকালে ফোন সেটটি ওপেন করলেই তাতে একটি বার্তা যাবে, যাতে নির্দেশনা থাকবে তার ক্ষেতের সর্বশেষ কী অবস্থা। একই সাথে করণীয়গুলোও জানিয়ে দেবে কী ধরনের ঔষুধ, সার, পানি বা অন্যান্য উপকরণ দিতে হবে। যদি তারা বাড়ির বাইরেও থাকে যাতে তার কাছে বার্তা যায় সে ব্যবস্থা থাকবে। বর্তমান সরকার যে কৃষি বান্ধব সরকার এই মোবাইল অ্যাপটি আবিষ্কার সেটাই প্রমান করে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

65 + = 75