পাঁচ দফা ঢাকা ঘোষণার মধ্য দিয়ে শেষ হলো আইপিইউ সম্মেলন

বৈষম্য হ্রাস, অভ্যন্তরীণ বিষয়ে অন্য রাষ্ট্রের হস্তক্ষেপ বন্ধ, পার্লামেন্টকে আরও প্রতিনিধিত্বশীল করা, আন্তর্জাতিক সহযোগিতা বৃদ্ধিসহ পাঁচ দফা ঢাকা ঘোষণার মধ্য দিয়ে বুধবার শেষ হয়েছে পাঁচদিনব্যাপী ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) আন্তর্জাতিক সম্মেলন।পাঁচদিনব্যাপী এই সম্মেলনের শেষ দিনে আরপিইউ’র সাধারণ এ্যাসেম্বলিতে ‘ঢাকা ঘোষণা’ সর্বসম্মতিক্রমে ঘোষণা করা হয়।নানা শঙ্কা ও নিরাপত্তার অজুহাতকে উড়িয়ে দিয়ে বাংলাদেশের ইতিহাসে এবারই প্রথম আন্তর্জাতিক পর্যায়ের এতবড় একটি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো, যাতে বিশ্বের ১৩২টি দেশ এই সম্মেলনে অংশ নেয়। বাংলাদেশ যে সবদিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে, উন্নয়নের রোল মডেল তা বিশ্বের জনপ্রতিনিধিরা সম্মেলনে এসে প্রত্যক্ষ করলেন।এই সফলতম আয়োজন বাংলাদেশের জন্য এবং জাতি হিসেবে আমাদের জন্য অত্যন্ত সম্মানের ও গৌরবের বিষয় এবং এই সম্মেলনই প্রমাণিত হলো বাংলাদেশের গণতন্ত্রের প্রতি বিশ্বের গণতান্ত্রিক নেতৃত্বের পরিপূর্ণ আস্থা রয়েছে, এবারের সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য ছিল ‘রিড্রেসিং ইনইকুয়ালিটিজ ডেলিভারিং অন ডিগনিটি এ্যান্ড ওয়েল বিং অপর অল’।এবার আইপিইউ’র সম্মেলনে বিভিন্ন কমিটিতে বেশকিছু প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, কোন দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে আরেক দেশের হস্তক্ষেপ না করা এবং দুর্ভিক্ষপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়াতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান। এই সম্মেলনের মাধ্যমেই প্রথমবারের মতো ওয়েব টিভি চালু এবং গ্রিন এ্যাসেম্বলির আয়োজন করে সংস্থাটি।

পাঁচ দফা ঢাকা ঘোষণায় বলা হয়েছে,
১।জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বৈষম্য কমাতে মানবাধিকার সুরক্ষায় আইনী কাঠামো শক্তিশালী এবং বাজেট বরাদ্দ নিশ্চিত করতে হবে।
২। রাজনৈতিক প্রক্রিয়ায় প্রান্তিক ও ঝুঁকিপূর্ণ গোষ্ঠীর প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করতে হবে।
৩। সকলের সিদ্ধান্ত গ্রহণের স্থান হিসেবে আইনসভাকে শক্তিশালী করতে হবে।
৪।সকল জনগোষ্ঠীর জন্য কাজ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে হবে।
৫।রাজস্ব আহরণের আইনী কাঠামো শক্তিশালী করা এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের প্রণোদনা দেয়ার কথা বলা হয়েছে ঘোষণায়। এছাড়া শ্রমিক অধিকার নিশ্চিত করার কথাও বলা হয় ।সম্মেলনের শেষ দিনে বর্ণাঢ্য ও সফল সম্মেলন আয়োজনের জন্য বিশ্বনেতারা যেমন বাংলাদেশকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন, তেমনি আয়োজকরা বাংলাদেশের গণতন্ত্রের প্রতি বিশ্বের গণতান্ত্রিক নেতৃত্বের আস্থার বহিঃপ্রকাশ হিসেবে দেখছে সফলতম এই সম্মেলনকে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 5 = 1