বৃষ্টি আসবেই

মেঘে মেঘে হোক আরো কিছুক্ষণ বৃষ্টির ছলনা…
জড়ো হয়ে মেঘ, আকাশের বুকে করবে রচনা
জল-কাব্য! অথবা একটা জল-রঙ ছাড়া জল-ছবি
আঁকা হবে কোন এক প্রিয়তমার দীঘল কালো চুলের রঙে!
হাজার-নিযুত চোখ চেয়ে সেথা অপলক
দেখবে এক ঝলক সেই ছবিটা!

হয়তোবা মেঘ চিরে সেই চির-প্রতাপী
অবিসংবাদিত বজ্রের অপেক্ষা!
অথবা
সব ছেড়ে-ছুঁড়ে শুধু
হিমেল হাওয়ার পরশ আসুক সঙ্গোপনে।
হাজার বছরের না বলা কথাগুলো
ফিস-ফিস…ফিস-ফিস করে
বলে যাক প্রতিক্ষণে!
অভিমানি মেঘগুলো হয়ে যেতে পারে
হঠাৎ উন্মত্ত ক্রোধে! নামাবে রাত্রি
শেষ বিকেলেই অনন্ত আকাশে।
শেকল ভেঙে মুক্ত মেঘের উল্লাসধ্বনি যাবে ভেসে
মেঘ থেকে মেঘের ওপারে!

কিংবা সব অভিমান, সব
রাত-জাগা কথোপকথন ভুলে
মেঘের খোঁপা দিয়ে খুলে
অজস্র তীক্ষ্ণ প্রেমের এলো-চুলে
বৃষ্টি নামুক।
শুধুই বৃষ্টি নামুক।

চোঁখের পাতায় জল পড়বে দু’ফোঁটা,
উঠবে কেঁপে কেঁপে।
ঠোঁটের কোণ উদাসী মেয়েটার হাসবে স্মিত!
দেখবো আমি অপলক
আমি চির-প্রতীক্ষারত।

চিরদিন ধরে চেয়ে থাকা আমি চির-প্রতীক্ষারত!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 68 = 78