খেদোক্তি

এ সমাজ-সংস্কার নিয়ে কী আছে আর বলার

উপপতির বুকে শুয়ে, বাহুবন্ধনে জড়িয়ে,
পতির মঙ্গল কামনা করে যাবে সাধ্বী সমাজ।
প্রেমিক পতির কঙ্কাল শুভ্রশাঁখা হাতে
ও হাতেই চেপে ধরবে সংস্কারের শিশ্ন
সীৎকারে খুঁজবে পতির মঙ্গল উপপতির স্বরে।
যোনী জংঘা নিতম্বে ঠোঁটে স্থলিত বীর্য মেখে
ও চেটেপুটে আহ্লাদ করবে আর
পতির রক্তে সীঁথিটি ঠিকই রাঙাবে
কিন্তু কোনোমতে ছাড়বে না এয়োচিহ্ন
কেননা ওতে যে পতির অমঙ্গল!

পয়োধর পীন সম হয়ে যাবে নিয়মের চাপে
অসহ্য বোধ হবে বুকে ধরে রাখা
তবুও যন্ত্রণার লাঘব চাইবে
নিয়মের ঠোঁটে চেপে দিয়ে নিপোল।

উপপতির বুকে শুয়ে পতির মঙ্গলে
এয়োচিহ্ন বজায় রাখা– ঘৃণ্য এ সমাজ।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

82 − 81 =