কেউ কথা রাখেনি- আল্লামা শফি মিয়ার আত্মজীবনী

কেউ কথা রাখেনি
ক্বারি মোহাম্মাদ আল্লামা শাহ আহ্মাদ শফি

কেউ কথা রাখেনি, ৯০ বছর কাটল, কেউ কথা রাখেনি
ছেলেবেলায় এক হুজুর তার বুজরুকি ওয়াজ হঠাৎ থামিয়ে বলেছিল
কোন এক রোজার ঈদে এসে বাকি টুকু শুনিয়ে যাবে।
তারপর কত কোরবানির ঈদ রোজার ঈদ এসে চলে গেল কিন্তু সেই চামার
আর এল না
৮৩ বছর প্রতিক্ষায় আছি।

মামাবাড়ির মাঝি আল্লামা খোকা বলেছিল দাড়ি বড় কর শফি হুজুর
তোমাকে আমি তিন প্রকারের মুন্নি সাহা দেখাতে নিয়ে যাব
যেখানে অলিতে গলিতে মুন্নির মতো বদনাম
ঘোরাঘুরি করে।
আল্লামা খোকা আমার দাড়ি আর কত বড় করবো? আমার দাড়ি সাকার কক্ষ
ফুঁড়ে মেশিনম্যানের মেশিন স্পর্শ করলে তারপর তুমি আমায়
তিন প্রকারের মুন্নি দেখাবে?

একটাও মূর্তি ভাংতে পারিনি কখনো
লাঠি-বাশ দেখিয়ে দেখিয়ে ঘুরেছে শাহবাগি নাস্তিকরা
ছাগলের মতো মতিঝিলের চত্বরে দাড়িয়ে দেখেছি
শাহবাগিদের রাস উৎসব।
কামু, মেশিনম্যানের ফাসির রায়ের দিন সুবর্ণ কঙ্কণ পড়া শাহবাগি রমণীরা
কত রকম আমোদে মেতেছে
আমাকে তারা একবারও ডাকেনি।

মাহমুদুর আমার কাঁধ ছুঁয়ে বলেছিলেন, দেখিস একদিন আমরাও-
মাহমুদুর এখন জেলে, আমাদের করা হয়নি কিছুই
সেই মূর্তি, সেই ১৩ দফা, সেই রাস উৎসব
আমায় কেউ ফিরিয়ে দেবে না।

বুকের সামনে মাইক্রোফোন রেখে মুন্নি নামক এক সাহা বলেছিল,
যেদিন সত্যিকারের ১৩ দফা দাবি পুরন হবে
সেদিন আমার বুকেও এরকম আতরের গন্ধ হবে।
মুন্নি নামক সাহার বুকের গন্ধ পাওয়ার জন্য আমি হাজার হাজার ছাগু লেলিয়ে দিয়েছি
সু উচ্চ রানা প্লাজায় নাজিল করিয়েছি গজব
বিশ্ব সংসার তন্ন তন্ন করে খুঁজে মতিঝিলে নিয়ে এসেছি ১০০৮ টা ছোট ছোট দুধের বাচ্চা
তবু কথা রাখেনি মুন্নি নামক সাহা, এখন তার বুকে শুধুই পল্লিবন্ধুর দাত না মাজা নিঃশ্বাসের গন্ধ
এখনও সে যে কোন নারী।
কেউ কথা রাখেনি, ৯০ বছর কাটল, কেউ কথা রাখেনি।

**কবিতার সাথে কারো মিল পাইলে সব দায় বাচ্চু রাজাকারের, আমি কিছু জানিনা 😛 **

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১২ thoughts on “কেউ কথা রাখেনি- আল্লামা শফি মিয়ার আত্মজীবনী

  1. ভাই কেউ কি শফির ঠিকানা জানেন?
    ভাই কেউ কি শফির ঠিকানা জানেন? এই কবিতাটা ডাকযোগে পাঠামু। :নৃত্য: :নৃত্য: :নৃত্য: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:

    ভাই সেইরকম লিখছেন! :bow: :bow: :bow: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ:

  2. ভাই গজব পড়লে পরুক মাগার
    ভাই গজব পড়লে পরুক মাগার মুন্নী জানি না পরে 🙁
    আর ধন্যবাদ ভাই সব :/ বাহবা দিয়ে লজ্জা দেয়ার জন্য :/ :p

  3. যা মজা পাইলাম, লিখে বুঝাতে
    যা মজা পাইলাম, লিখে বুঝাতে পারবো না! শালীনভাবে কাউকে যে, বাঁশ দেয়া যায়, এ কথাটাই বারবার আমি বিভিন্ন মন্তব্যে লিখেছি। শালীনতার বাঁশ দীর্ঘজীবী হোক এই কামনায় ধন্যবাদ সৌ রভ-কে…

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

9 + 1 =