আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই

আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই,
পতনে নেই জনৈকা বিবি হাওয়ার কারসাজি…

এইসব প্রাক-কথন আপাতত অলিখিত থাক,
বর্তমানে বাঁচি, তাই যা হতে দিতে চাই বা হতে পারে-
সেটা লিখে যাওয়াতেই দেয়া যাক বিশেষ প্রাধিকার।

গল্পের এই অধ্যায়ে এখন গ্রীষ্মের দুপুর,
যখন বাগানের হাস্নাহেনার মৃদু সুবাস আরও ফিকে লাগে!
যদিও হাস্নাহেনার ঝোপে আজকাল সাপখোপ থাকেনা;
তবু ধরে নেয়া যাক এক আজাদাহাই লুকোনো সেখানে,
উত্তাপ এবং আর্দ্রতা বেশি বলে খুব বেশি নড়ছে না,
তবে আশেপাশেই তার নিশ্চিত অবস্থান…

গল্পে আগে বলিনি, কেউ জানে না যে-
তার প্রতি আমার গভীর অনুরাগ, আকর্ষণ বেশ অকল্পনীয়,
আর সে আবেগ সম্পর্কে অনবগত বলেই মারাত্মক হিংস্র!

আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য!
আমার আরাধ্য আজাদাহা অবশ্যই স্ত্রী লিঙ্গ, যেহেতু গল্পই-
তাই মানব দেহধারী ও আজাদাহা নারীর সম্পর্কও অসম্ভব নয়।
আমি এই পরিস্থিতিকে যৌক্তিক বলতে বেছে নিতে পারি সেই উক্তি,
“জীবে দয়া করে যেইজন, সেইজন সেবিছে ঈশ্বর!”
আমি নিজেকে দয়া করতে চেয়ে বসেছি সহিংস তাকেই, বুঝিয়েছি নিজেকে,
তার এই হিংস্র আচরণ নিতান্তই আবেগ সম্পর্কে অজ্ঞতাপ্রসুত।
প্রেম কি দয়ার মহৎতম রূপ নয়?

আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই,
পতনে নেই জনৈকা বিবি হাওয়ার কারসাজি…
আমার গল্পের আমি আদম লোভ করে বসেছি সেই আজাদাহা হাওয়ার,
সুযোগ পেলে আদমেও যার লোভ, স্বভাবসুলভ; অন্য কারসাজি নেই…

আমার গল্পের রচয়িতা আমি, কাহিনি অসমাপ্ত…

আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই,
পতনে নেই জনৈকা বিবি হাওয়ার কারসাজি…

এইসব প্রাক-কথন আপাতত অলিখিত থাক,
বর্তমানে বাঁচি, তাই যা হতে দিতে চাই বা হতে পারে-
সেটা লিখে যাওয়াতেই দেয়া যাক বিশেষ প্রাধিকার।

গল্পের এই অধ্যায়ে এখন গ্রীষ্মের দুপুর,
যখন বাগানের হাস্নাহেনার মৃদু সুবাস আরও ফিকে লাগে!
যদিও হাস্নাহেনার ঝোপে আজকাল সাপখোপ থাকেনা;
তবু ধরে নেয়া যাক এক আজাদাহাই লুকোনো সেখানে,
উত্তাপ এবং আর্দ্রতা বেশি বলে খুব বেশি নড়ছে না,
তবে আশেপাশেই তার নিশ্চিত অবস্থান…

গল্পে আগে বলিনি, কেউ জানে না যে-
তার প্রতি আমার গভীর অনুরাগ, আকর্ষণ বেশ অকল্পনীয়,
আর সে আবেগ সম্পর্কে অনবগত বলেই মারাত্মক হিংস্র!

আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য!
আমার আরাধ্য আজাদাহা অবশ্যই স্ত্রী লিঙ্গ, যেহেতু গল্পই-
তাই মানব দেহধারী ও আজাদাহা নারীর সম্পর্কও অসম্ভব নয়।
আমি এই পরিস্থিতিকে যৌক্তিক বলতে বেছে নিতে পারি সেই উক্তি,
“জীবে দয়া করে যেইজন, সেইজন সেবিছে ঈশ্বর!”
আমি নিজেকে দয়া করতে চেয়ে বসেছি সহিংস তাকেই, বুঝিয়েছি নিজেকে,
তার এই হিংস্র আচরণ নিতান্তই আবেগ সম্পর্কে অজ্ঞতাপ্রসুত।
প্রেম কি দয়ার মহৎতম রূপ নয়?

আমার গল্পের গায়ে বাবা আদমের গন্ধম নেই,
পতনে নেই জনৈকা বিবি হাওয়ার কারসাজি…
আমার গল্পের আমি আদম লোভ করে বসেছি সেই আজাদাহা হাওয়ার,
সুযোগ পেলে আদমেও যার লোভ, স্বভাবসুলভ; অন্য কারসাজি নেই…

আমার গল্পের রচয়িতা আমি, কাহিনি অসমাপ্ত…

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

38 + = 42