কার জন্য হেফাজত?

“বাঁধরে রশি
মাররে টান
মূর্তি যাবে
হিন্দুস্তান”

– হেফাজতে ইসলাম।

সানি লিওনির নাম শুনলে যেমন বিশেষ একটা বাপারের কথা মাথায় আসে, মূর্তি দেখলে মোল্লাদের হিন্দুদের কথা মনে পরে। মোল্লাদের ফ্রান্স বা ইতালি নিয়ে গেলে “অস্তাগফিরুল্লাহ হিন্দুস্তান” বলে মূর্ছা যাবে।

দেশে কওমি মাদ্রাসার পরিমাণ বাড়ানো হচ্ছে। দলে দলে আরও গণ্ড মুর্খ মোল্লা প্রসব করবে এই সব মাদ্রাসা গুলো। দিন দিন দেশকে পেছাবে অন্যান্য দেশগুলো থেকে। তারপরও হুঁশ হবেনা আমাদের। আমরা খালি দিন দিন ট্যাক্স না দেয়া মোল্লা পয়দা করব।

মোল্লাদের সমাবেশ করার জায়গা করে দিব। রাস্তা বন্ধ করে রাখবে পুলিশ তাদের জন্য আর আমরা জ্যামে বসে বলব “সুবাহানাল্লাহ”। আর যেদিন চীনের প্রেসিডেন্ট বিনিয়োগ করতে আমাদের দেশে আসবে, তার জন্য যখন এয়ারপোর্ট রোড বন্ধ হবে আমরা মা-বাপ তুলে গালি দিব।

আমাদের এই মানসিকতার কারনে আমাদের যা প্রাপ্য আমরা তা পাচ্ছি। এখানেও আমরা আমেরিকা, ইউরোপের বা ইসরায়েলের হাত আছে ভাববো রাতের বেলা ঘুমের ঘোরে নিজের পাছায় আঙ্গুল দিয়ে বলব, সব দোষ মালাউনের বাচ্চার।

গতকাল মুর্তি সরানোর দাবিতে বায়তুল মোকাররমের সামনে অবস্থান নেয় হেফাজত। যারা মাথায় ওঠার তারা ঠিকই সুযোগ বুঝে উঠে গেছে। এখন শুধু হেগে দেবার অপেক্ষা।

“সব কিছু নষ্টদের অধিকারে যাবে” – হুমায়ুন আজাদ

©অনিক অমনিবাস

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 9 = 15