মা! আলাদা নয় প্রতিদিনের মতই অফুরন্ত অসীম ভালবাসা…

”মা’ এর জন্যে একটি দিবস রাখছি আমরা… ভেবে দেখুন কতবড় হঠকারিতা!
আরে আমরা এই দুনিয়ার মুখ দেখলাম যার জন্যে, মাত্র একটা দিন দিবেন তাঁকে? নাকি প্রত্যেকের জীবদ্দশার প্রটিটা দিনই মায়ের জন্যে উৎসর্গিত?
মা’য়ের কথা আসলেই আমার ম্যাক্সিম গোর্কির বিখ্যাত গল্প ‘মানুষের জন্ম’ (১৮৯২) এর কথা মনে পরে। আর সেই ‘মা’ কে মানুষভিন্ন অন্য কিছু ভেবে আমাদের সমাজেরই কিছু পুরুষ নীতিমালা বা আচারনবিধি বেঁধে দেয় তখন সেই মা’য়ের মানুষ-স্বত্বা আলাদা করে খুঁজে পাই না…
সব নারীই ‘মা’; তাই মা’দের জন্যে আলাদা নীতিমালাও বাতুলতা।
দুনিয়ার সব মানুষই সমান স্বাধীন; অথচ পুরুষতন্ত্রের ভাবখানা এমন নারীরা অধিকারভুক্ত সম্পদ সে যেভাবে খুশি চালাবে। নীতিমালা করে দিবে আবার দিবসও রাখবে, এ যেন আরেক নাটক।
ভাববেন না পুরুষদেরই শুধু খোলা আকাশ বিস্তীর্ণ পাহাড় আর সুবিশাল সবুজ মাঠ বা অরণ্য অথবা অফুরন্ত সমুদ্রের রুপ উপভোগ অধিকার আছে।
যে পুরুষতন্ত্র নারীকে কোমল আর মহামুল্যব্যান সম্পদ ভাবে তাদের জন্যে একদলা থুথু…
নারী পুরুষদের মতই সমান অধিকার নিয়ে এই দুনিয়াতে এসেছে; প্রত্যেকটা মানুষের ব্যক্তিগত পছন্দই তার ব্যক্তিগত নীতিমালা করে দিবে যে সে কীভাবে তার জীবন যাপন করবেন!

মা! আলাদা কোন ভালবাসা নয় প্রতিদিনের মতই অফুরন্ত অসীম ভালবাসা তোমার জন্যে, গোটা নারীজাতির জন্যে…

[বিঃ দ্রঃ যারা এই লিখা পড়ে আঘাতপ্রাপ্ত তাদের বলছি ভেবে দেখুন আজ আপনাদের (পুরুষদের) পোশাক পরিচ্ছেদ চালচলন নিয়ে নারীরা একটা নীতিমালা করে দিল, আপনার কেমন লাগবে? আপনি আর সমুদ্রে ঝাঁপ দিতে পারছেন না যখন-তখন, পাহাড়ে বাইতে পারছেন না মুক্ত বিহঙ্গের মত, অরণ্যে বিচলন করতে পারছেন না চাতকের মত, রাতের আকাশ দেখতে পারছেন না হিমুর মত করে পাশের ব্রিজটির উপর দাঁড়িয়ে!! আপনি এখন বন্ধী আর নারীর হাতের পুতুল..]

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১৪ thoughts on “মা! আলাদা নয় প্রতিদিনের মতই অফুরন্ত অসীম ভালবাসা…

  1. পোষ্টে +++++++++++.
    আজ

    পোষ্টে +++++++++++.

    আজ আপনাদের (পুরুষদের) পোশাক
    পরিচ্ছেদ চালচলন
    নিয়ে নারীরা একটা নীতিমালা করে দিল,
    আপনার কেমন লাগবে? আপনি আর
    সমুদ্রে ঝাঁপ দিতে পারছেন না,
    পাহাড়ে বাইতে পারছেন না, অরণ্যে বিচলন
    করতে পারছেন না, রাতের আকাশ
    দেখতে পারছেন না পাশের ব্রিজটির উপর
    দাঁড়িয়ে!! আপনি এখন বন্ধী আর নারীর
    হাতের পুতুল…]

    ভয় নাই, বস।যতদিন ধরাধাম এ প্রচলিত ধর্ম আছেউ ততদিন নিশ্চিন্তে থাকতে পারমু। কোন নারীর ক্ষমতা নায় পুরুষের উপর আইন করে!!!”
    তবে, আবার ভয়ও লাগে কবে জানি আমাগো প্রচলিত ধর্ম বিবর্তিত হইয়্যা গারো উপজাতি ধর্মে রূপ্ান্তরিত হয়!!এন্ড
    আই কান্ট থিনক ব্রো, ছেলেরা বাচ্চা লালনপালন করবে আর মেয়েরা কাজ শেষে ঘরে এসে বলবে ভাত দে তাড়াতাড়ি…..?

    1. ধর্ম-বর্ণ-লিঙ্গ-গোত্র কোন
      ধর্ম-বর্ণ-লিঙ্গ-গোত্র কোন বৈষম্যই কাম্য নয়!!
      একটি বৈষম্যহীন সমধিকারের মানব সমাজ চাই…

    1. একবার পানিতে ডুবে মরতে
      একবার পানিতে ডুবে মরতে গেছিলাম এক নদী সাঁতরায় পাড় হতে গিয়ে…
      যখন প্রায় আশা ছেড়ে দিয়েছিলাম শুধু মায়ের মুখখানা আর তার ভালোবাসার কথায় মনে আসছিল!! I was Resurrected & reborn-ed with same love for ‘mother’!!
      :ভালুবাশি: :ভালুবাশি: :ভালুবাশি: :ভালুবাশি:

      1. হ খালি খাইতে কইলে খাই না,
        হ 😛 খালি খাইতে কইলে খাই না, ঘুমাইতে কইলে ঘুমাই না, বাসায় থাকতে কইলে থাকি না, তাছাড়া আর সব কথাই শুনি 😛 😉

        1. এর মধ্যেও সন্তানের প্রতি
          এর মধ্যেও সন্তানের প্রতি মায়ের আর মায়ের প্রতি সন্তানের ভালবাসার নিদর্শন বিদ্যমান…

  2. বৈষম্যহীন সমাজ হয়না এ শুধু
    বৈষম্যহীন সমাজ হয়না এ শুধু কল্পনাপ্রিয় ধারনা মাত্র তবু আমরা বৈষম্য যতুটুকু সম্ভব নিয়ন্ত্রণ করতে পারি।

    ধর্ম-বর্ণ-লিঙ্গ-গোত্র
    কোন বৈষম্যই কাম্য নয়!!.>>>>> সহমত!

  3. মা! আলাদা কোন ভালবাসা নয়

    মা! আলাদা কোন ভালবাসা নয় প্রতিদিনের মতই অফুরন্ত অসীম ভালবাসা তোমার জন্যে, গোটা নারীজাতির জন্যে…

    মা, আমার জীবনের ভালবাসার প্রতিটি কণা, তোমার জন্য…

  4. মায়ের ভালোবাসার তুল্য আর কিছু
    মায়ের ভালোবাসার তুল্য আর কিছু হয় না। কিন্তু আমরা সন্তানেরা কতটুকু মুল্যায়ন করি সেটাই হচ্ছে কথা।

    1. আমার মনে হয়!! মাতৃ প্রেমে কেউ
      আমার মনে হয়!! মাতৃ প্রেমে কেউ কার্পণ্য করে না।।
      কিছু অভাগা আর নিমকহারামতো সব যায়গায়ই থাকে…
      ‘মা’ তুমায় :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute:

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

81 − = 76