কবিতা কফিন বন্ধী

কবিতা কফিন বন্ধী
সকালের স্নিগ্ধতা দুপুরের রোদ
কিংবা গোধুলির পড়ন্ত বিকেল
কোনটাই স্পর্শ করছে না।
.
ভালো লাগা সন্ধ্যাতারা চাঁদনী
রাতের জোৎস্না, অমাবস্যার নিকষ আঁধার —
কোনটাই কফিন ভেদ্য নয়।
.
কবিতা উচ্চস্বরে চিৎকার করছে
কবি,দ্বার খুলে দাও নচেৎ ভেঙে ফেলবো
বন্ধীত্ব যে এক অসহ্য যন্ত্রনা
দুর্বোধ্য ক্যানসারে জীবন্ত মৃত্যু
কিংবা ধুকে ধুকে অপেক্ষমান।
.
আমার নিশ্বাস বন্ধ হয়ে আসে
এখনও বুঝি পূর্ণিমার ঝলসানো জোৎস্না উপেক্ষিত?
অভিমানে পৃথিবী থেকে ডুবছে চাঁদ
এতো আঁধার কেন?
.
আঁধারে ডুবছে এ চোখ যে কালোফিতে মোড়ানো কফিনবন্ধী।
ও কবি বলতে পারো-কবিতা কি
কফিনবন্ধী থাকে?
.
কবিতাকে কফিনবন্ধী করতে যেও না–
নচেৎ কফিন ভেঙে পালাবে
কবিতা যে উন্মাদ বদ্ধ উন্মাদ
কফিনবন্ধী সহজ নয়
কবিতা যে সময়ের প্রতীক
অত্যাচার জুলুমের প্রতিবাদী সৈনিক ,
নিরীহ জনতার অধিকার আদায়ের প্রেরণা
মিছিলের স্লোগান,মহান পুরুষের স্তম্ভ
কিংবা প্রেমিকের সুপ্ত অনুভূতি
বিরহের অনুপ্রকাশ।
.
কবি,কফিন খুলে দাও
নচেৎ ভেঙে পালাবো
কবিতা সে বড্ড উন্মাদ
তাকে কফিনে বন্ধী করতে যেও না
.

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 16 = 23