আজ অগ্নীযুগের বিপ্লবী বীরকন্যার জন্মদিন


‘মাগো, অমন করে কেঁদোনা! আমি যে সত্যের জন্য, স্বাধীনতার জন্য প্রাণ দিতে এসেছি, তুমি কি তাতে আনন্দ পাও না? কী করব মা? দেশ যে পরাধীন! দেশবাসী বিদেশির অত্যাচারে জর্জরিত! দেশমাতৃকা যে শৃঙ্খলভাবে অবনতা, লাঞ্ছিতা, অবমানিতা! তুমি কি সবই নীরবে সহ্য করবে মা? একটি সন্তানকেও কি তুমি মুক্তির জন্য উত্সর্গ করতে পারবে না? তুমি কি কেবলই কাঁদবে?’

এই চিঠিটা মৃত্যুর আগের রাতে মাকে লেখা এক অগ্নীযুগের বীর কন্যার। যিনি ছিলেন ব্রিটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের অগ্নিকন্যা।

আজ সেই অগ্নিযুগের অগ্নিকন্যা ব্রিটিশবিরোধী সশস্ত্র আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা বীরকন্যার প্রীতিলতার জন্মদিন। ১৯১১ সালের আজকের এই দিনে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ধলঘাট গ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তাঁর এই গ্রামে জন্ম হয়েছে অসংখ্য বিপ্লবীর। ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় এই গ্রাম ছিল বিপ্লবীদের প্রধান ঘাঁটি।

এই উপমহাদেশের অগ্নিযুগের বিপ্লবী আন্দোলনের শুরু থেকেই প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে এই আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত হন অনেক নারী। ‘অনুশীলন’, ‘যুগান্তর’ প্রভৃতি বিপ্লবী দলের সঙ্গে ঘরে ঘরে মা-বোন থেকে শুরু করে দিদি-বৌদিরাও যুক্ত ছিলেন এই ব্রিটিশদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে। যেমন ছিলেন অগ্নিযুগের প্রথম পর্বে স্বর্ণ কুমারী দেবী, সরলা দেবী, আশালতা সেন, সরোজিনী নাইডু, ননী বালা, দুকড়ি বালা, পরবর্তীকালে ইন্দুমতি দেবী, লীলা রায়, পটিয়া ধলঘাটের সাবিত্রী দেবী প্রমুখ দেশপ্রেমিক নারী। ব্রিটিশ সূর্য অস্তমিত করার লড়াই-সংগ্রামে নারীদের অংশগ্রহণের ধারাবাহিকতায় সেই অগ্নিযুগের অগ্নিকন্যা, বীর কন্যা প্রীতিলতার আবির্ভাব।

প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার ব্রিটিশদের হাত থেকে দেশকে স্বাধীন করার জন্য মাস্টার দা সূর্য সেনের নির্দেশে নিয়েছিলেন সশস্ত্র প্রশিক্ষণ। দেশ মাতৃকার জন্য দিয়েছিলেন আত্মহুতি। এই বীরকন্যা গড়ে তুলেছিলেন অসংখ্য বিপ্লবীদের প্রশিক্ষিত করে। নারীদেরকে অনুপ্রাণিত ও উজ্জীবিত করেছিলেন অন্যায়-অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ-প্রতিরোধে নামতে।

মাস্টার দার নির্দেশে বীরকন্যা প্রীতিলতার নেতৃত্বে বিপ্লবীরা ১৯৩২ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে পাহাড়তলী ইউরোপিয়ান ক্লাব আক্রমণ করে সফল হন। আক্রমণ শেষে নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার সময় প্রতীলতা গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন। এ অবস্থায় ধরা পড়ার আগে সঙ্গে রাখা সায়ানাইড বিষ খেয়ে আত্মাহত্যা করেন। কারণ ধরা পড়লে বিপ্লবীদের অনেক গোপন তথ্য ব্রিটিশ পুলিশের মারের মুখে ফাঁস হয়ে যেতে পারে।

দেশের জন্য, দেশের মানুষের মুক্তির জন্য, পরাধীন দেশকে স্বাধীন করতে, অন্যায় অত্যাচার জুলুম নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে গিয়ে আত্মহতি দানকারী, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের প্রথম নারী শহিদ অগ্নীযুগের শ্রেষ্ঠ সন্তান বীরকন্যা প্রীতিলতার ১০৬ তম জন্ম বার্ষিকী ও ১০৭ তম জন্মদিন আজ। তাঁর জন্মদিনে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা ও বিপ্লবী শুভেচ্ছা।
আল আমিন হোসেন মৃধা
(০৫-মে-২০১৭)

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 2 = 4