পরিচয় সঙ্কট !

বঙ্গবন্ধু , জঙ্গি নেত্রি মোসাম্মত শে খাসি না আক্তারের আব্বা !!
শুধু এই জঙ্গিনেত্রির আব্বার নামে আছে সড়ক(এভিনিউ) , সেতু, ষ্টেডিয়াম, নভো থিয়েটার,আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র, মেডিকেল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এবং কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ,নৌবাহিনীর যুদ্ধ জাহাজ, এ্যরোনটিকাল সেন্টার, বিমান ঘাটি, উপগ্রহ, সাফারি পার্ক, আইটি পার্ক, বিভিন্ন টুর্নামেন্ট !!

হয়তো তার আব্বার নামে আরো অনেক কিছুরই হবে নামকরন । তাছাড়া, তার মায়ের নামে আছে বিশেষায়িত হাসপাতাল, ভাইয়ের নামে ষ্টেডিয়াম, সেতু, ক্লাব !! ভাই বউদের নামে কি আছে সেটা অবশ্য ভবিষ্যত বলবে । কিন্তু কথা হচ্ছে যে, একজনের বাপের নামে, মা’র নামে, ভাইয়ের নামেই কেন সবকিছুর নামকরন করা হচ্ছে , হতে বাধ্য করা হচ্ছে ??

মুক্তিযুদ্ধের কারনে জীবন উৎসর্গ করা ৩০ লাখ শহীদেরা কি ফেইক আইডি ??
২.৫ লাখ বীরাঙ্গনা সহ অসংখ্য যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, এরা কি বাতাসে উইড়া আসছে নাকি বানের জলে ভাইসা আসছে ?? নাকি নিজের শহীদ হওয়া আপনজনদের নামে কোনকিছু করতে তাদেরও এক এক করে ৩০ লক্ষ বার ক্ষমতায় আসতে হবে ??

এইভাবে একের পর এক প্রতিষ্ঠান ও রাস্তা থেকে শুরু করে সেতু বন জঙ্গলের নাম নিজের আব্বার নামে না কইরা বাংলাদেশের নামটাই পাল্টাইয়া বঙ্গবন্ধু কইরা দে । তাতে অন্তত আমরা পরিচয় সঙ্কটে ভুগতে থাকার মতন বিব্রতকর অস্বস্তি থেকে মুক্তি পাবো এবং এতে একজনের আব্বারে জোর জবরদস্তি ও বাধ্যতামূলকভাবে সবার আব্বা করার খায়েশও পূরন হবে ।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

6 + 4 =