মা দিবস


“”মা”” অতি মধুর একটি ডাক। “মা” শব্দটি শুনলেই শ্রদ্ধা,ভালোবাসা প্রকাশ পায়। জন্মের পর মাকেই প্রথম দেখি। কোনো প্রয়োজন হলে মাকেই প্রথম বলি।

মাঝে মাঝে আমরা অনেক সময় জেনে বুঝে মাকে দুঃখ দেই। এর জন্য আমরা মায়ের কাছে ক্ষমাও চাই না।

বর্তমানে আমরা বিভিন্ন দেশের মতো মা দিবস পালন করি। এই মা দিবস এই আমরা মা এর প্রতি অনেক ভালোবাসা দেখাই। যা ফেসবুক বা বিভিন্ন মিডিয়াতে দেখা যায়। মা এর প্রতি এই ভালবাসা কে আমরা বানিজ্যের দিকে নিয়ে গেছি। আজকে অটো দিয়ে বাসায় আসার সময় শুনতে পেলাম এক মেয়ে তার মায়ের জন্য শোপিস কিনছে। এছাড়াও অনেক জন অনেক কিছুই দেয় এই দিনে তার মাকে। তার মানে এই না মায়ের প্রতি যে ভালবাসা, টান এসব বিক্রি করে দিচ্ছি,,,

আমাদের এই দেশে এইসব দিবস পালন করে আমরা কি প্রমাণ করতে চাই নিজেদের কে??? আমার কাছে তো মনে হয় বছরের ৩৬৫ টা দিনই মা দিবস। এই কথা টা নিজের মতো করে ভাবলেই সব বুঝা যায়।

আর এখন অনেক বেশি দেখা যাচ্ছে মাকে নিয়ে মিডিয়া ও ফেসবুকে বিভিন্ন অনুষ্ঠান এবং স্ট্যাটাস। এই সব দেখলে মনে হয় মা দিবস পালন না করা একটি পাপ।

টিভিতে এই মা দিবস এ নানা রকম অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।এসব অনুষ্ঠানে নানা রকম ব্যক্তি দের আনা হয় মা দিবস নিয়ে মতামত দেয়ার জন্য। আসলে তারা কতোতুকু সময় দিয়েছে তাদের মায়ের সাথে??

কতোটুকু ভালোবাসে তারা তাদের মাকে???
এসব মা দিবস টাকে বাদ দিয়ে নিজেরা একটু ভেবে দেখি। বছরের ৩৬৫ টা দিনকেই আমরা মা দিবস মনে করি।।।।।।।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১ thought on “মা দিবস

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

45 − = 42