“দর্শক হও,ধর্ষক নয়….”

আমায় একলা পেয়ে আমার শরীর খুঁড়ে যে নগ্ন সিনেমার দর্শক হও,
তার চাইতে,পতিতাপল্লীতে কিছু টাকার বিনিময়ে ভালো চরিত্রের কাছে নিজেকে বিক্রি করে দেয়া যায়।

তবুও,পতিতাপল্লী বুঝে পেটের তাগাদা,
পল্লীগামী মানুষগুলো খুঁজে মনের তাগিদ….
যাই বলো,পল্লীতে জোর জবরদস্তির চিহ্নাদি তো আর পড়ে থাকেনা…

মেয়েটাকে জোরপূর্বক আটকে রেখে উলঙ্গ শরীরের ঘাটে গা ডুবিয়ে দেদারশে যেভাবে যৌবনজ্বালা মিটিয়ে ফেলো…
বলছিতো, জোরপূর্বকই তো করছো,জোরেশোরে তো আর করোনা।
এই তোমার ভদ্রতা?
এই তোমার বীরপুরুষিকতা?
এ্যাঁ কেমন ভদ্রতা পোষাও…?

ঐ শরীরে কেনোইবা মায়ের রক্ত চিনে নিতে ভুল হয় তোমার?
কেনোইবা,একজন বোনের গন্ধ তোমার নাকে খট করে এসে লাগেনা…

খুব তো লাফাও মা মা করে,
নারী দিবস,মা দিবস হেনতেন নারীদের নিয়ে যেনো আরো কত কি দিবস?
দিবসগুলোই এসে নারী জাতির প্রতি শ্রদ্ধা,ভালোবাসা যেনো খুব উপচিয়ে পড়ে….
এটা কি শ্রদ্ধাবোধ,এই তাহলে ভালোবাসা?
ধিক্কার জানাই…!

ধর্ষণ করার আগে মেয়েটার শরীরকে কেনো বুঝে উঠতে পারোনা…

হ্যাঁ,
হতে পারে,মেয়েটাও একজন মা…
হয়তো সেই মেয়েটা কারো না কারোর বোন…
হতে পারে,সেই মেয়েটা কারো আদরে পালিত কন্যা….

বলি কি, “দর্শক হও,ধর্ষক নয়…”

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

47 − 38 =