সৌদি সামরিক জোটে বাংলাদেশ ।

••••• বাংলাদেশের জন্মের বিরোধীতা করা এবং সারা বিশ্বে ইসলামি জঙ্গিবাদ ছড়িয়ে দেয়ার মূল উৎস দেশ হচ্ছে সৌদি আরব । সৌদি আরব শান্তির ধর্ম নামে বিতর্কিত একটি ধর্ম ইসলামেরও উৎস দেশ । ১৯৭৫-৭৬ সনে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয় সৌদি আরব এবং এই স্বীকৃতি দেয়া হয় বর্তমান জঙ্গিনেত্রি , মদিনা সনদের প্রবক্তা ও হেড অব দা কালসাপ শে খাসি না এর প্রায় পুরো পরিবারকে হত্যার পরই । অথচ, এই একই সৌদি আরবের ইসলামি আহ্বানে অনেকটা নাচতে নাচতেই ৩৪ মুসলিম দেশের ইসলামি সামরিক জোটে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ । মুসলমানের উপ্রে বিশ্বাস রাখাটাও যে এক ধরনের পাপ তা এই ঘটনা না ঘটলে অবশ্য বুঝতে পারতাম না ।

••••• ” কারো সাথে শত্রুতা নয়, সবার সাথে বন্ধুতা ” জাতির পিতার এই মেরুদন্ডহীন পররাষ্ট্র নীতি নিয়ে অসম্মানের সাথে ধুকতে ধুকতে চলা বাংলাদেশ এক সময় শেখ মুজিবের হাত ধরে যোগ দিয়েছিল ওআইসি তে আর তার প্রায় ৪০ বছর পর তারই মেয়ে বিশিষ্ট ইসলামি চিন্তাবিদ মোসাম্মত শে খাসি নার হাত ধরে বাংলাদেশ যোগ দিচ্ছে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটে । শুধু তাই নয়, মক্কা মদিনার মসজিদ রক্ষায় সেনা বাহিনীও নাকি পাঠানো হবে সৌদি আরবে !! বাহ !! কি তামশা !! দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী এখন থেকে ভিন দেশের মসজিদ পাহারা দিবে । এই না হলে মুসলমান !! কাজ নাই তো তাই গাঁও গেরামের আনসারের মতন মসজিদের দাড়োঁয়ান গিরি কর । তাতে বিধর্মিদের ষড়যন্ত্র থেকে ইসলাম, মসজিদ ও মুসলমানিত্ব সবই রক্ষা পাবে ।

••••• সৌদি আরবের মসজিদ রক্ষার জন্য যদি সেনাবাহিনী পাঠানোই হয় তবে এর নেতৃত্বে রাখা হোক আনসারুল্লাহ বাংলা টিম ও নিউ জেএমবি এর প্রধান সম্মানিত সেনা সদস্য মেজর জিয়াকে । এই বান্দা বাংলাদেশে ইসলাম প্রচার করতে গিয়ে যে পরিমান খাটা খাটনি করছে তাতে তার একটা বড় ধরনের পুরষ্কার প্রাপ্য । এবং ইসলামি সামরিক জোটে মেজর জিয়ার নেতৃত্বে বাংলাদেশের প্রবেশ মানেই “বাংলা এখন আফগান, আমরা সবাই মুসলমান”…..

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 23 = 32