অমি রহমান পিয়াল গং- একদল বেঈমানের অক্ষশক্তি

অমি রহমান পিয়াল, আসিফ মহিউদ্দিনের মতই আরেক চরিত্র। আসিফ “আমি আমি আমি” করার জন্য বিখ্যাত হলেও তিনি আরেক কাঠি বেশী সরস। তিনি “আমি” শব্দের বদলে ব্যাবহার করেন তার নামটাই “ অমি পিয়াল”। আসিফ দাবী করতেন মানুষ শুধু তাকে নিয়েই ভাবে আর তিনি ভাবেন মানুষ মাত্রেই তার শত্রু। এ জীবনে কতবার যে তিনি নিজের প্রানহানির আশংকা করেছেন তার ইয়ত্তা নাই। নিজের গুরুত্ব বোঝাতে দুইদিন পরপরই নতুন ভং ধরেন। বন্দুকের ছবির দেয়া, ইংগিতপুর্ন স্ট্যাটাস দেয়াসহ নানান প্রকারের শো অফ। কুত্তায় চোদে না, বাদশাহীর শখ যাকে বলে।

পত্রিকা আর বইয়ের কাটিং এর বদৌলতে ডিজিটাল মুক্তিযোদ্ধার এবারের শখ অনলাইনের নিয়ন্ত্রন নেয়া। এরজন্য দীর্ঘদিনের বন্ধুদের নানান চক্রান্ত করে জামাতি ট্যাগ দেয়া শুরু করে বিশ্বাসঘাতক প্রমানের দায় নিয়েছেন তিনি। ডাক্তার আইজুর ব্যাক্তিগত তথ্য ফাঁস করেই ক্ষান্ত হয়নি এই চক্র। ফাঁস করেছে তার স্ত্রীর ছবি, ফোন নাম্বার। ডাক্তার আইজু ফিরে এসে তার দুলাভাই জামাতি তার প্রমান জানতে চেয়েছেন, এখন পর্যন্ত সে প্রমান আসেনি, আসবেও না মনে হয় কোনদিন।

তার পরবর্তি স্বীকার তার বন্ধু এবং কাছের মানুষ খ্যাত মহামান্য কহেন। তার বিরুদ্ধে চমৎকার একটা পরিকল্পনা সাজিয়ে প্রমান করেছেন তিনি সিপি গ্যাং এর তথ্য ফাঁস করেছেন। কিন্তু একটা বাচ্চাও পাল্টাপাল্টি এই পোস্টগুলো দেখলে বুঝবে একজন মানুষের বিশ্বাসের সুযোগ নিয়ে কিভাবে ফাসানো হয়েছে। সিপি গ্যাং এর হর্তাকর্তারা জানেন “আসল পুরুষ” কে এবং তিনিই কাল পুরুষ।

অমি রহমান পিয়ালের কাছের মানুষ হবার সুবাধে মহামান্য তার অনেক দুষ্টকর্মের কথা জানতেন। তাই তাকে অনলাইন থেকে সরিয়ে দিতে চেয়েছেন নিজেকে অনলাইনের বংগবন্ধুভাবা মানুষটি। এইছাড়া তার বন্ধু আনিস রায়হানের উপর তার ব্যাক্তিগত ক্ষোভ সর্বজনবিদিত। ব্লগার থাবা বাবার হত্যার দায় আনিস রায়হানের ঘাড়ে চাপিয়ে দেয়ার প্রচেষ্টাও তিনি কয়েকবার করেছেন কিন্তু সফল হতে পারেন নাই। এই দেশের পত্রিকা দেখা যে কোনও লোক জানে কারা তাকে হত্যা করেছে। ব্যাক্তিগত ক্রোশের কারনে একজন মানুষকে খুনির অপবাদ দিতেও ছাড়েন নাই অনলাইন মুক্তিযোদ্ধা বলে খ্যাত অমি রহমান পিয়াল।

কাল পুরুষ এবং আসল পুরুষের পোস্ট দেখে বোঝা যায় ৪ জনের মধ্যে যে কোন একজন এই কাজ করেছেন- মহামান্য, বেলের কাঁটা, তাপস সরকার, এক আবীর। পোস্টের প্রথম যে ছবিটি দেখে মহামান্য’কে দায়ী প্রমানের প্রচেষ্টা করা হয়েছে সেটি যে আসলেই প্রথম ছবি তার কোন প্রমান সেখানে নাই। দ্বিতীয় ছবিটিও প্রথম ছবি হতে পারে। তথ্যমতে, তাপস সরকারের সাথে মহামান্যের বন্ধু আনিস রায়হানের ফেসবুকের একটি ছবিতে গন্ডগোল হয়। সে ছবিতে খালেদা জিয়াকে দ্রোপদি বলা হয়। এতে তাপস সরকার তার ধর্মানুভুতি আহত হয়েছে বলে জানান। কিন্তু এরচাইতেও ভয়ংকর কৌতুক খোদ ভারতের হিন্দি চ্যানেলগুলোতে তাদের দেব-দেবী নিয়ে করা হয়। আনিস রায়হান তাকে “হিন্দু মৌলবাদী” আখ্যায়িত করে ব্লক মারে। তাপস সরকারের সাথে যতদূর জানা যায়, মহামান্যের নিজেরও ঝামেলা হয় আনিস রায়হানকে নিয়ে।

এইছাড়া ডাক্তার আইজু ইস্যুতে মহামান্য ছিলেন অমি রহমানের পিয়ালের বিপক্ষে। তিনি আসা করেছিলেন মহামান্য এইখানে তার পক্ষ নিবেন, কিন্তু তা না করে উল্টা আইজুর ব্যাক্তিগত তথ্য ফাঁস করার প্রতিবাদ করলে তিনি প্রচন্ড ক্ষুব্ধ হন। আরো ক্ষুব্ধ হোন আইজুর বিদায়ের পরে মহামান্য আইজুর প্রোফাইল পিকচার ব্যাবহার করলে, তার দেখাদেখি অনেককেই দেখা যায় আইজুর সমর্থনে দাঁড়িয়ে প্রোফাইল পিকচার ব্যাবহার করতে।

সব মিলিয়ে একটা প্রেক্ষাপট দাঁড়ায়, মহামান্যকে অনলাইনে তার পক্ষশক্তির কাছে খলনায়ক হিসাবে উপস্থিত করতে হবে। অমি রহমান পিয়াল, তাপস সরকার এই ব্যাপারে ঐক্যমতে পৌছান। প্রবল সম্ভাবনা আছে রাসেল রহমানেরও এতে জড়িত থাকার। তার স্বার্থ সিপি গ্যাং এর সহজ প্রমোশন। এতে এক ঢিলে দুই লাভ, ব্যাক্তিগত ক্রোধ মিটল এবং সিপি গ্যাং কে খুব সহজেই আলোচনায় নিয়ে আসা গেলো। কালপুরুষের পোস্টের পরে জানা গেল অমি রহমান পিয়াল সিপি গ্যাং এর ব্যাপারে কিছুই জানেন না, অথচ তার ঘনিষ্ট বন্ধু মহামান্যসহ আরো অনেকেই সিপি গ্যাং এর প্রোফাইল পিকচার নিয়ে ঘুরেছেন অনেকেই। চোখের পলক না ফেলে মিথ্যা কথা বলাসহ নানান গুনের জন্য বিখ্যাত তিনি তার পরিচিত মহলে অনেক আগেই, সামান্য ব্যাক্তিস্বার্থের জন্য শত্রুর অপেক্ষায় না থেকে তিনি নিজেই আঘাত করেন সহযোদ্ধাদের। আসল পুরুষের পোষ্টের পরে মহামান্য’কে তার এক স্ট্যাটাসে পরোক্ষভাবে “খন্দকার মুশতাক” হিসাবেও আখ্যায়িত করেছে।

ডাক্তার আইজুর ব্যাপারে তার প্রোপাগান্ডা আমরা কেউই ভুলে যাইনি। একের পর এক স্ট্যাটাস দিয়ে গেছেন আইজুর বোন জামাই জামাতি বলে। এখন তার স্বপক্ষে কোন যুক্তি তারা উপস্থাপন করতে পারেন না। মহামান্য তার ব্লগে দেখিয়ে দিয়েছেন কিভাবে দুইটা আইডি ব্যাবহার করে যে কাউকে এভাবে ফাঁসিয়ে দেয়া যেতে পারে।

আমরা আশা করবো মহামান্য ফিরে আসবেন এবং খুলে দিবেন এই সমস্ত নোংরা জন্তুদের মুখোশ। বিষ্ঠা পরিস্কারের কাজ কাউকে না কাউকেতো করতেই হয়, নয়তো সমাজ টিকবে না, সভ্যতা টিকবে না।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৩৭ thoughts on “অমি রহমান পিয়াল গং- একদল বেঈমানের অক্ষশক্তি

  1. গাঁজাখুরি গল্প আরকি। আঙ্গুর
    গাঁজাখুরি গল্প আরকি। আঙ্গুর ফল টক আর কি। প্রথম দুই প্যারা পড়ার পর পড়তে আর রুচিতে কুলায় নাই।

  2. ধুরররররর । সেই অনলাইন কেচাল ।
    ধুরররররর । সেই অনলাইন কেচাল । ভাই অফ যান । আর ভাল লাগে নাহ । :মানেকি: :মানেকি: :মানেকি:

  3. আমি চাই সব নোংরামীর অবসান।
    আমি চাই সব নোংরামীর অবসান। এজন্য অনলাইনে নিজেদের হনু ভাবা মহারথীদের সব নোংরামী ফাঁস হোক। নোংরামী করে যখন কেউ পার পাবেনা, তখন নোংরামী কমে যাবে। আমি ডাক্তার আইজু ও মহামান্যের কাছে অনুরোধ জানাব- “এদের নোংরামী সম্পর্কে আপনারা যা জানেন, সব ফাঁস করুন। সকল নোংরামীর অবসান হোক।

    অনলাইন নোংরামীর করার জায়গা নয়, অনলাইন উগ্র দলবাজি করার কোন ক্যাম্পাস নয়। অনলাইন মুক্ত কথা বলার জায়গা। অনলাইন হচ্ছে মুক্ত চিন্তা করার জায়গা, মুক্তবুদ্ধি চর্চা করা ক্যাম্পাস। তাই এসব নোংরা চরিত্রের লোকদের সকল নোংরামীর উন্মোচন হওয়া উচিত। আপনারা যা জানেন তা ফাঁস করেন, আমরাও যা জানি তা ফাঁস করব। আর না হয় তারা ক্ষমা চেয়ে নিজেদের ভুল স্বীকার করুক। আমাদের সবার এখন কিছু কিছু ক্ষেত্রে ঐক্যবদ্ধ থাকা উচিত।

    পিয়াল গঙদের এসব নোংরামীর কারণে কারা লাভবান হচ্ছে? তাহলে আমাদের ধরেই নিতে হয়, তাহলে আমাদের ধরে নিতে অসুবিধা কোথায় যে এই চক্র জামায়াতীদের স্বার্থে এসব করছেনা। জিয়াউদ্দিন গংরা কিন্তু এখনো সক্রিয়। তারা কিভাবে কাদের লালন করছে এবং এই লালন-পালনের উদ্দেশ্য কি আমরা জানি। শুধুমাত্র জাতীয় স্বার্থের কথা চিন্তা করে এবং বিচার প্রক্রিয়া যাতে কোন প্রকার বিতর্কিত না হয় সেজন্য আমাদের মুখ আমরা বন্ধ করে রেখেছি। এখন মনে হয় সময় এসেছে সবকিছু খোলাসা করে দেওয়ার।

  4. ভাই আপনারা অনলাইনকে কি মনে
    ভাই আপনারা অনলাইনকে কি মনে করেন ? বাড়ির ড্রইং রুম ? আপনারাই অনলাইন ব্যবহার জানেন ? আর আমরা ঘাস কাটি? অবশ্যই না। নিজেদের এত বড় ভাববেন না, আমরা একেবারে গেঁয়ো নই ! যে আপনারা যা দিবেন তাই গোগ্রাসে গিলবো ! সুতরাং এসব ক্যাচাল থেকে বের হয়ে ভাল হয়ে যান ! ভাল হতে পয়সা লাগে না……

    1. মাইরা হুতাইলামু।
      ভাই কিতা

      মাইরা হুতাইলামু।

      ভাই কিতা কইলেন ইটা !!!!!! :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:

      1. হেতনে খাডি নয়াখাইল্লা
        হেতনে খাডি নয়াখাইল্লা মাইচ্চে…
        আইও মাইরা হুতাইলামু।
        :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:

  5. আজকাল অনলাইনকে নোংরা রাজনীতির
    আজকাল অনলাইনকে নোংরা রাজনীতির সংসদ বানিয়ে ফেলেছে। আসুন আমরা সবাই মুক্তচিন্তার সঠিক বাস্তবায়ন করি। সুন্দর ভাবে গড়ে তুলি আমাদের এই সুন্দর জগত।

  6. টপিক দেখেই পড়ার ইচ্ছে হারিয়ে
    টপিক দেখেই পড়ার ইচ্ছে হারিয়ে ফেললাম। মডারেশন প্যানেলকে আবারও বলছি, এসব গাজাখুরি পোস্টের ব্যাপারে কঠোর হোন। অন্যথায় ইস্টিশন তার গ্রহনযোগ্যতা হারাবে…

  7. কিছুই বুজলাম না। এরা নাকি
    কিছুই বুজলাম না। এরা নাকি ব্লগার?
    আরে এতো আত্ম-বিশেদাগার, জনাব!!
    রাখেন আপনার মহামান্য-আর ডঃ আইজু…
    এমন অসুস্থ বিকৃত রুচির মানুষের জন্যেও মানুষ লিখে নাকি?
    সোজা কথা যেইসব লোক অনলাইন এ নিক নিয়ে লিখে তারা নিজেদের লিখা নিয়েই নিজেরা সন্দিহান… ডঃ আইজু, দুর্যোধন দুর্যোধন, দাসত্ব শিকল আরও কি কি জানি আছে?
    এরা নিজেরাই নিজেদের প্রকাশ না করে গোপন করে, এদের মধ্যেই মূল সমস্যা!!
    যারা নিজ নামে লিখে তারা কখনও ভুল লিখলেও তার দায়িত্ব নিতে চাই বলে লিখে পরিচয়ে আত্মগোপন করে না…
    অনলাইনে অনেক অনেক অনেকের বিরূদ্ধাচারন করতে দেখি, এদের ভাব সব কিছুর সমালোচনা করলেই মহৎ হওয়া যায়! সব মানসিক বিকারগ্রস্থের দল!!সবচে অবাক লাগে যখন মানুষ নিজের বিবেকের কথা না বলে ব্যক্তি স্বার্থ আর রাজনৈতিক উদ্দ্যশ্যে ভিন্ন সুরে কথা বলে!!
    একমাত্র নীতিহীন বিবেকপ্রতিবন্ধীদের পক্ষেই এমন অবস্থান নেয়া সম্ভব…
    :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি: :ক্ষেপছি:

  8. এভাবে হয় না। আমরা নিজেরাই
    এভাবে হয় না। আমরা নিজেরাই নিজেদের ভেতর কাঁদা ছোড়াছুড়ি করছি। এই সব কি হচ্ছে? আর আমরাই নাকি লড়ব সুশৃঙ্খল জামাত শিবিরের বিরুদ্ধে। ওদের কি কখনও কাঁদা ছোড়াছুড়িতে দেখেছেন, নিজেদের ভেতরে?
    :ক্লান্তকাছিম: :ক্লান্তকাছিম: :ক্লান্তকাছিম: :ক্লান্তকাছিম: :অসুস্থ: :অসুস্থ: :অসুস্থ:

  9. সত্য কথা অতি তিতা তাই যতদোষ
    সত্য কথা অতি তিতা তাই যতদোষ দলাদলি ঘোষ। :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই: :আমারকুনোদোষনাই:

  10. অনেকেই দেখলাম নানা ধোঁয়া তুলে
    অনেকেই দেখলাম নানা ধোঁয়া তুলে পোষ্টের ইস্যুটাকে এড়িয়ে গেলেন। বমি শিয়াল কোম্পানি যে অনলাইনের দখল নেয়ার জন্য নামছে তার কোনো প্রতিবাদ আপনারা জানাইছেন, নাকি এর কোনো চিহ্নই দেখতে পান নাই। বমি শিয়াল কোম্পানি যেই সিপি গ্যাং বানাইছে এইটার আসল উদ্দেশ্য হইলো, ছাগুদের প্রতিষ্ঠা করা। এইটা ছাগু প্রতিষ্ঠা গ্যাং। খেয়াল কইরা দেখেন এর ভেতরে আছে একদল নীতি বিবর্জিত গালিবাজ, চটিবাজ, ডাইলখোর। তাপস সরকার হিন্দু মৌলবাদী এটা কে না জানে? রাসেল আর শিয়াল মিলে তো নাস্তিকের তালিকা বানাইছিলো। যেইটা মোল্লাদের কাজ। রুমী স্কোয়াডরে জামাতি ট্যাগ দেয়া কার কাজ? বমি শিয়ালের। আনিস রায়হানের বাপ জামাতের নেতা, আনিস রায়হান থাবা বাবার খুনি, এইটা কার প্রচারণা? বমি শিয়াল ও তার কুত্তাগুলারই তো নাকি? নিঝুম মজুমদারের মতো জামাতের এজেন্টের সঙ্গে দল বাঁধছে কে? বমি শিয়ালই তো। আইজূরে জামাতি ট্যাগ দেয়ার চেষ্টা চালাইছে তারাই। মহামান্যরে বাটে ফালাইয়া বাইর করার চক্রান্তও তাদের। আনিস রায়হান সহীহ শিবিরনামার লেখক বিধায় তারে এখনো জামাত ট্যাগ ডাইরেক দেয় নাই, নইলে এতদিনে সেই ব্যাটারেও জামাত বানায়া দেয়া হিত। অবশ্য যেই কোনোদিনই এই ঘোষণা আসতে পারে। এরকম আরো অনেককেই তারা জামাতি ট্যাগ দিছে। উদ্দেশ্যটা কি? ছাগুদের প্রতিষ্ঠা করা। সিপি গ্যাং = ছাগু প্রতিষ্ঠা গ্যাং

    1. বমি শিয়াল কোম্পানি যেই সিপি

      বমি শিয়াল কোম্পানি যেই সিপি গ্যাং বানাইছে এইটার আসল উদ্দেশ্য হইলো, ছাগুদের প্রতিষ্ঠা করা।

      এই নিয়ে কতজনকে প্রতিষ্ঠা করেছে তার একটা তালিকা দেন।

      তাপস সরকার হিন্দু মৌলবাদী এটা কে না জানে?

      প্রমান করেন, শুধু শুধু চুতিয়াদের মত ডায়ালগ মেরে লাভ কি? প্রমান দেখন যেখানে তাপস সরকার ঐ মৌলবাদীদের মত হিন্দু ধর্মের পক্ষপাতী হয়ে কট্টরতা করেছে।

      বালছাল লিখ্যা দিলেই তো হয় না, কিছু যুক্তি-প্রমান দেখানো লাগে তো। আর এসব না থাকলে ঐভাবেও কথা বলা লাগে।

  11. আমার প্রতি তার ক্ষভটা কিসের
    আমার প্রতি তার ক্ষভটা কিসের আমি জানি না। সে স্বঘোষিত ডিজিটাল মুক্তিযুদ্ধ গবেষক। আমার ভুলটা মনে হয় এইখানেই। আমি সহীহ শিবিরনামা, রাজশাহীর যত শিবির ক্যাডার, শিবিরের কিলিং মিশন সহ আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ জামাতবিরোধী লেখা অনলাইনে পাবলিশ করছি। চাইলে এইগুলা আমি তার নামে দিয়া দিতে পারি। তবু মাফ চাই। আমার বাপরে জামাত বানানোর চেষ্টা বন্ধ করো। আমারে থাবা বাবার খুনী প্রমাণের অন্ধ চেষ্টা থেইকা সইরা আসো। লেখাগুলা চাইলেই আমি তার নামে ট্রান্সফার কইরা দিমু। স্বত্ত্ব দাবি করুম না। অন্য কোনো দাবি থাকলে জানতে চাই।

  12. তিনি “আমি” শব্দের বদলে

    তিনি “আমি” শব্দের বদলে ব্যাবহার করেন তার নামটাই “ অমি পিয়াল”।

    খালি মুখে বললেই তো হবে না!! কয়েকটা প্রমান দেখান যে উনি খাসীর মত “আমি” “আমি” জিকির করেছে, প্রত্যেক লাইনে নিজের নাম তুলে দিয়েছে আমি বলার বদলে। না পারলে আপনি একটা চুতিয়া।

    পত্রিকা আর বইয়ের কাটিং এর বদৌলতে ডিজিটাল মুক্তিযোদ্ধার এবারের শখ অনলাইনের নিয়ন্ত্রন নেয়া।

    আপনি বোধ হয় জানেন না যে পিয়াল ভাইয়ের জন্ম একাত্তরের পরে, সুতরাং সেই সময়ের ঘটনা নিয়ে লিখতে হলে উনাকে কপি পেস্ট ছাড়া কিছু করার নেই, তা ভাইজান এতোই যখন বড় গলায় বললেন তখন দেখি নিজের থেকে কিছু লেখেন তো। যা আগে কেউ জানে নাই, পড়ে নাই। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কপি পেস্ট ছাড়া লিখতে না পারলে আপনি আবারো চুতিয়া।

    মহামান্য কি ফিরবেন নাকি ইলিয়াছ আলী হবেন এটা উনার ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবে আপনার মায়াকান্না দেখে মনে হচ্ছে আপনি উনার শুভাকাঙ্খী তবে আপনি এমনই শুভাকাঙ্খী যে কিনা কূট কৌশল অবলম্বনকারী। শুভাকাঙ্খীরা কখনো উস্কে দেয় না অথচ আপনার পোস্ট পুরাই উস্কানী দিয়ে দিতে সক্ষম। ভালোই আগুন জ্বেলে দিতে পারবেন মহামান্য আর অমি পিয়ালের মাঝে বিনা প্রমানাদি ছাড়া।

    ভুলে যাবেন না কিছু প্রমান আর কিছু করে দেখাতে অনুরোধ করেছি। আশা করি সেগুলো দিয়ে প্রমান করবেন আমার ধারণা ভুল, নচেৎ আপনি একটা …..

    1. মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে তথ্য
      মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে তথ্য কপি-পেস্ট মাইরা নিজেরে মুক্তিযুদ্ধের ঈশ্বর ভাবার দরকার কি? এই কাম যে কেউ পারব। প্রয়োজন তথ্য সংগ্রহ ও পড়ার। যে ব্যক্তি সকালে এক রকম কথা বলে, আবার বিকালে তার বিপরীতধর্মী আচরণ করে, তার কপি-পেস্টের মধ্যে যে ভুল নাই, সেটা বুঝার উপায় কি? ভন্ডামী অনেক দিন ধইরা করতেছে। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে অনেক ব্যবসা করছে। বেশী ফাল পাড়লে ব্যবসার গোমর ফাঁক হয়ে যাবে। তখন আমছালা সব যাবে। তাই বলি- সাধু সাবধান। বেশী ফাল পাইড়ো না। যে কামে নিয়েজিত আছ (মুক্তিযুদ্ধের কপি-পেস্ট) সেই কামেই থাক। সব জায়গায় রাজনীতি করতে গেলে সমস্যায় পড়তে হবে।

  13. অমি রহমান পিয়ালের আন্ধা
    অমি রহমান পিয়ালের আন্ধা ফ্যানদের উদ্দেশ্যে তার সাবেক দুইজন কমরেডের সার্টিফিকেট। এরপরেও বৈলে যতদুষ হতচ্ছাড়া ঘোষ।

    ডাক্তার আইজু (সার্টিফিকেট ১)

    এবার বলার সময় আসছে এ জামাতি দুলাভাইর আবিষ্কার কার! =এ টিমের মিটিং একবার আলাপ হইলো জামাতরে যে পরিবারের থেকে হেট্রেড করা হবে সেটা কিভাবে ষ্টাবলিশ করা যায়- এবং সেটা নিয়া ঠিক করা হইলো একজন বলবে আমার পরিবার জামাতি এবং সেটা কে হবে-অবশ্যই পিয়াল কিংবা জেবতিক হতে পারবেনা কারন তারা হইলো গিয়া পরিচিত সেলিব্রেটি মানুষ সো অধম যেহেতু ভুয়া নিক নিয়া গলাবাজি করে সে গুরুদায়িত্ব তার হাতে আইসা পড়ল- সে দীর্ঘ ৬ বছর ধইরা সে দায় বইয়া বেড়াইলো-গলাবাজি করল- জানলনা যে তার জামাতি দুলাভাই কার্ড এক সময় খেলা হবে! দায়িত্ব নিয়া পিয়াল ভাই এখন দায়ের সে স্ক্রিন শট মাইরা হিরো হইতেসে! পিয়ালকে ওপেন চ্যালেনজ দিলাম আমার তথাকথিত দুলাভাই আর বোনের নাম আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে পাবলিশ করেন- আমি আপনার মতো শাহবাগের মোড়ে গিয়া কান ধইরা বইসা থাকব! আপনি যেহেতু এ টিমের চার্টার ভাইন্গা এ নিম্ম শ্রেনীর কামটা করসেন সেহেতু আমাকেও এ গোপনীয় তথ্যটা ফাস করতে হইলো! আর নাম ঠিকানা এবং আত্মীয়তা প্রমান না করতে পারলে পিয়াল শাহবাগে গিয়া কান ধরে উঠবোস করবে-!

    আরিফুর রহমান (সার্টিফিকেট ২)

    সো, আইজু’র মাথা খারাপ, কারন সে বেকুবের মতো ছিপ গ্যাং গাগলা গ্যাং আমরা এরে অরে ইত্যাদিরে চুদি চাইপের নানা গ্যাঙের সমর্থন দিয়া থাকে। সে বেকুব এইটা নতুন কিছু না।

    কিন্তু পিয়াল এইটা কি করলো? এ-টীমের সদস্য হয়ে এ-টীমের পুরনো সিক্রেট অপ-ব্যবহার করা কি বিশ্বাসঘাতকতা না?

    যে লোক নিজের টীমের লোকজনের পিঠে ছুরি মারতে পারে, তার বর্তমান অন্যান্য টীমের লোকজনের পিঠেও যে ছুরি মারবে না, তার কোন নিশ্চয়তা কেউ দিতে পারবেন?

    পিয়ালের সাথে বর্তমানে যারা বিবিধ ছিপি গ্যাং পাগলা গ্যাং আমরা যারে তারে চুদি ইত্যাদি গ্যাংব্যাং অর্জিতে অংশ নিয়া থাকেন, তাদের বলতেছি এই বিশ্বাসঘাতকের সাথে কাজ করেন ভালো কথা, পয়সার ভাগ বুঝে নিবেন ঠিকমতো, এবং অন দ্য রেকর্ড, মানে পিয়াল ব্যবহার করতে পারে এমন কিছুই তার সাথে আলাপ করবেন না।

    বাঙালীর পুটকি মারতে বাঙালী নিজেই যথেষ্ট। আশ্চর্যের বিষয় না যে সউদি বাহিনী আমাদের ওপর রাজত্ব করে, আমরা যাদের পুটকি মারা দরকার তাদের আষ্কারা দিয়া দেশপ্রেমিক যোদ্ধাদের ওপর চড়াও হই।

    সো, সউদিরা আমাদের ভেতরে কাউর কাউরে কিন্যা নিয়া আমাদের ভেতরে গ্যাঞ্জাম বাধাইতেছে, এইটা আমাদের বোঝা উচিত।

    অটো- এই পোস্ট অমি রহমান পিয়ালের কমরেড’দের যাবতীয় মন্তব্য দিয়ে সমৃদ্ধ করা হবে।

      1. এখানে পিছলানোর কি দেখছেন
        এখানে পিছলানোর কি দেখছেন আপনি? চোখে পিয়ালের দেওয়া চশমাটা খুলে তার পর পড়েন। পিয়াল যে এ-টিমের রুলস ভাঙ্গছে সেটার বিচার আগে করেন। আর পিয়ালকে প্রমাণ করতে বলেন আইজু’র বোনের জামাই জামায়াতী। প্রমান করতে না পারলে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। আর না হলে পিয়ালের গোপন অনেক তথ্য অনলাইনের অনেকেই জানেন। সেগুলো ফাস করা হবে। কথায় কথায় ছাগু ট্যাগ আর জামায়াতী ট্যাগ লাগানো বন্ধ না করলে পিয়ালের প্রতিদিনের আয়ের উৎস ও খরচের উৎস প্রকাশ করবে তার কাছের লোকজন। ভন্ডামী আর বাটপারি করে আর কয়দিন। মুখে নীতিকথা, আর কামেকাইজে নীতিহীনতা আর না।

      2. বেঈমান এই পোষ্টের মূল আলোচনার
        বেঈমান এই পোষ্টের মূল আলোচনার বিষয়। সেইটাই দিলাম আর কি!

        আরো কিছু সার্টিফিকেট পাইলে এড করতেছি। বেঈমানদের দিয়ে যুদ্ধ হয় না। এরা শত্রুর চাইতেও ভয়ংকর। বুকে গুলি নিয়ে কেউ মারা গেলে হতচ্ছাড়াদের কোন আপত্তি নাই, সেইটা শত্রুর হাতে মৃত্যু। কিন্তু সহযোদ্ধার মুখোশে লুকিয়ে থাকা শত্রু পেছন থেকে আক্রমন করলে হতচ্ছাড়া’রা কাউকেই ছাড়বে না।

  14. ধুর বাল সবাই অফ যান….সবাই,
    ধুর বাল সবাই অফ যান….সবাই, আর একটা কথা না…..সে নিজের নাম ভাঙায়, এ এই করে, সে হেন করে সে তেন করে…প্যাকপ্যাক প্যাকপ্যাক সব অফ…আরে কেউ দুইটা চোখ খুলে দেখেন, কেউ আমাদের নিয়ে খেলতেসে। সবার সাথে সবাইকে লাগায়ে দেয়ার চেষ্টা করতেসে। আই রিয়েলি ডোন্ট কেয়ার কিসের কি সিপি ঢিপি যা হোক ইচ্ছা, এইসবের ই দরকার নাই। দোহাই লাগে- এইসব ইস্যু নিয়া আমাদের চিল্লাইতে দেখে ছাগুরা এখন ঢোল বাজাচ্ছে। প্লিজ সবাই চুপ করেন।আমাদের আসল উদ্দ্যেশ্য যা ছিল তা থেকে সরে আসতেসি কেন​? জংশনে এইসব লেখা তো আগে কোনকালেও দেখতাম না! ফাইজলামি বাদ দেন সবাই আর আসল কাজে ফেরত আসেন। আমি জানিনা সিপি এর আসল কাহিনী কি, কে কি ফাস করসে আর আসল অপরাধী কে, বাট প্লিজ ফর আওয়ার সেক, অফ যান, যুদ্ধাপরাধীর বিচার হল মেইন উদ্দ্যেশ্য সেটাতে ফেরত আসেন।ছাগুদের *ন্দাতে গিয়ে আমাদের মাঝেই ফাটল লাগসে, যেটা আমি দেখতে চাই না, প্লিজ।

  15. পোস্টটি দেখলেই বোঝা যায় তুই
    পোস্টটি দেখলেই বোঝা যায় তুই কত বড় ইডিয়েট ।এই লিখাটি আরো প্রমান করে তুই,আইজু,আনিস,কাল পুরুষ, আসল পুরুষ সবকটাই জামাতের এজেন্ট হিসাবে কাজ করছিস ।মাঝখানে কৌশলে মহামান্যকে শত্রু হিসেবে দাড় করেছিস তোরাই ।সাবধান হয়ে যা নইলে শেষ পর্যন্ত পস্তাতেই হবে ।

    1. গোলাম শহীদ রব্বানী সাহেব,
      গোলাম শহীদ রব্বানী সাহেব, ওরাতো এজেন্ট হিসাবে কাজ করেছে। আর আপনি শিবিরের কর্মী হয়ে ইস্টিশনে গুপ্তচোরগিরি করছেন। সেটা কিন্তু অনেক আগ থেকেই আমরা বুঝেছি। তাহলে আপনার জামায়াত সম্পৃক্ততা প্রমাণ করতে পারলেই পিয়ালের পক্ষে আপনার সাফাই গাওয়ার মুল কারণ বের হয়ে যাবে। ইতিমধ্যে আমরা ইস্টিশন মাস্টারকেও আমরা এ বিষয়ে জানিয়েছি। এই ব্যক্তির শিবির সম্পৃক্তার খবর। কিছু প্রমাণও দেওয়া হয়েছে। অনেকেই আপনার রাজনীতি ব্যাকগ্রাউন্ড সম্পর্কে জানেন। আশাকরি যারা এই ব্যক্তি সম্পর্কে জানেন, তারা তার পরিচয় প্রকাশ করেন। তারপর পিয়ালের পক্ষে সাফাই গাওয়ার হিসাব নেওয়া যাবে।

  16. ভাই কাদা ছোঁড়া-ছুঁড়ি বাদ দিয়ে
    ভাই কাদা ছোঁড়া-ছুঁড়ি বাদ দিয়ে এবার ইট ছোঁড়া-ছুঁড়ি শুরু করেন। এসব আর ভাল্লাগেনা…

  17. শেষ পর্যন্ত অনলাইনও
    শেষ পর্যন্ত অনলাইনও বাংলাদেশের রাজনীতির মত দলীয় নোংরামী আর কাঁদা ছোঁড়াছুড়ির জায়গা হয়ে গেল। বর্তমান প্রজন্মের মেধাবী ও ভাল ছেলে-মেয়েরা রাজনীতিবিমুখ হয়ে গেছে যে কারণে, একই কারণে অনলাইনের এক্টিভিজম থেকে সরে দাঁড়াবে বাধ্য হয়ে এক সময়। এতে লাভটা কার হবে? প্রতিক্রিয়াশীল চক্রের, জামাতীদের। সর্বপরি এ কথা বলা যায়, আমাদের দেশ, রাজনীতি, বাক-স্বাধীনতার সুযোগকে সাম্প্রদায়িক প্রতিক্রিয়াশীল চক্র যতটুকু কলংকিত করছে, তারচেয়েও বেশী করছি আমরা। মুক্তচিন্তার কথা বলে এখানে অশোভন আচরনের বন্যা বইয়ে দিচ্ছি। ব্যক্তিগত ক্রোধ থেকে সমমনা বন্ধুর ব্যক্তিগত স্বাধীনতার উপর হস্তক্ষেপ করছি। এসব আচরণ থেকে উপলব্দি করুন, আমরা কি আসলেই সভ্য হতে পেরেছি। রাজনৈতিক সন্ত্রাসবাদীতা ঢুকে পড়েছে অনলাইনে। ভার্চুয়াল ক্যাচালের খেসারত দিতে হচ্ছে বাস্তব জীবনে।

    এসবের অবসান চাই। অবসান করতে হবে ব্যক্তিগত চর্চার মাধ্যমে। ইস্টিশনের সকল যাত্রী বন্ধুরা আসুন আমরাই অব্যাহত রাখি এই চর্চা। অহেতুক গালাগালি, ব্যক্তিগত আক্রমন পরিহার করি। এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনে আরো শক্ত হতে হবে। সত্যিকারের বুদ্ধি ও জ্ঞান চর্চার মাধ্যম হয়ে উঠতে হবে ইস্টিশনকে।

    সবার মধ্যে সুস্থ ও সুন্দর চর্চার বোধদয় হোক।

  18. এ জীবনে কতবার যে তিনি নিজের

    এ জীবনে কতবার যে তিনি নিজের প্রানহানির আশংকা করেছেন তার ইয়ত্তা নাই। নিজের গুরুত্ব বোঝাতে দুইদিন পরপরই নতুন ভং ধরেন। বন্দুকের ছবির দেয়া, ইংগিতপুর্ন স্ট্যাটাস দেয়াসহ নানান প্রকারের শো অফ। কুত্তায় চোদে না, বাদশাহীর শখ যাকে বলে।

    ————————— আসিফ এর উপর যে জানুয়ারী তে মারাত্মক আক্রমণ হয়েছিল এটা তো স্বীকার করেন ? না কি ওই ঘটনাও সিনেমার শুটিং এর অংশ ? … একজন মানুষ অযৌক্তিক কারণে হাজতে দিন কাটাচ্ছে । এবং এটা মোটামুটি নিশ্চিত করে বলা যায় আসিফ কে বলির পাঁঠা বানানো হচ্ছে অমি পিয়াল দের ষড়যন্ত্রে , কোই সেই ব্যাপারে তো কোনও আওয়াজ নেই ।
    ——- ভাই, এইসব নোংরা পলিটিক্স বন্ধ করেন । যেটা আশু করণীয় সেইটা করেন । আসিফ রে বের করেন তারপর যত খুশি তার বাল ছিরেন । প্রয়োজনে সেই ছেঁড়াছিঁড়িতে আমিও আপনার সাথে যুক্ত হবো ।

    —— আর হ্যাঁ … অমি পিয়াল বহুত খতরনক আদমি । ভার্চুয়াল দুনিয়ায় তার আচরণ সামন্ততান্ত্রিক রাজা – বাদশার মতো …মানে বাকীদের তার প্রজা বা দাস হয়ে থাকতে হবে এবং কেউ না থাকতে চাইলে তারে ছাগু, চরিত্রহীন , দালাল ইত্যাদি ট্যাগ পেতে হবে ।

    1. আপনি ভুল বুঝেছেন। আমি প্রথম
      আপনি ভুল বুঝেছেন। আমি প্রথম প্যারায় পিয়ালের অতিরিক্ত মাত্রার নিজেকে জাহির করার প্রবনতা দেখানোর জন্য লিখেছি।

      আসিফ সাধু সন্ন্যাসী na, আড়েকটা মহা বদমাশ এবং ইতরশ্রেনীর প্রাণী। তবে যতযাই হোক, আসিফকে আটকের তীব্র নিন্দা জানাই এবং অতি দ্রুত তার মুক্তির দাবী জানাই।

  19. বমি শিয়াল এখন পুরাই কাইত।
    বমি শিয়াল এখন পুরাই কাইত। শাকিলের দেওয়া ধান্ধা বন্ধ হইয়া যাইতেছে। মামু এখন বাবা খাইব কেমতে???? একটাই সোর্স। ছাগুদের দালালী করা। সেই কাজেই বমি শিয়াল বর্তমানে নিয়োজিত আছেরে হতচ্ছাড়া!

  20. আরো একটা বিষয় সামনে আনা
    আরো একটা বিষয় সামনে আনা প্রয়োজন। ‘ভার্চুয়ালি রেইপ করা’ নামে এই গং আঘাত করছে কাদের। আমি তো দেখছি যতটা না ছাগুদের তার চেয়ে বেশি মুক্ত চিন্তার মানুষদের। ধর্ম রক্ষার নামে এই গং কাদের রক্ষা করতে চাইছে। যতটা না ধর্মকে তারচেয়ে জামাত শিবির হেফাজত নামক মৌলবাদিদের।
    পুর্নিমা নামের মেয়েটি ধর্ষিত হলে রাসেল রহমান, বেলের কাটা, তাপস সরকার, রাজু এডভান্স, সুলতান মির্জার, আমি বাঙ্গালীর মতো ধর্ষকরা কেন সোচ্চার হয়। কারন এই ঘটনায় ধর্মীয় মৌলবাদিদের প্রসঙ্গ চলে আসবে। সেটাকে আড়াল করতেই এই পরিমল গং মাঠে নেমেছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

18 + = 23