অনুভূতি কি আপনার-আমার আছে?? নাকি “জয় বাংলা” ‘র মতন “অনুভূতি” ও কারো নিজস্ব সম্পত্তি হইয়া যাইতেছে ???

অনুভূতি কি আপনার-আমার আছে?? নাকি “জয় বাংলা” ‘র মতন “অনুভূতি” ও কারো নিজস্ব সম্পত্তি হইয়া যাইতেছে ???

“অনুভূতি”

একটি ক্ষুদ্র শব্দ হইলেও উহার বিস্তৃতি বৃহৎ। অনুভূতির বিভিন্ন প্রকরণ রহিয়াছে। তাহার মধ্যহইতে বহুল আলোচিত অনুভূতি হইলো ধর্মানুভুতি, মতান্তরে উহা ধর্মান্ধনুভূতি ও বলা চলে। এই সকল ধর্মান্ধ মানুষের মস্তিষ্কের কতিপয় নিউরণ সকল সময়েই সুপ্তাবস্থায় থাকিলেও, তাহাদের জামাতী মতান্তরে শিবিরী বাপ দের উস্কানিতে উহারা জাগিয়া উঠে। শুধু জাগিয়া উঠিয়াই উহারা ক্ষ্যান্ত হইয়া থাকে নহে, বরং তাহারা দিক্বিদিক জ্ঞ্যানশুন্য হইয়া হাতের কাছে যাহা পায় তাহাই ধ্বংস করিতে পাগল প্রায় হইয়া উঠে। ইহা অনুভূতির এক দিক।

অন্যদিকে অনুভূতির আরো একটি ব্যাপুক আলোচিত দিকের কথা চিন্তা করিলে আমরা দেখিতে পাই যে “সরকারদলীয় অনুভূতি”। এই অনুভূতি বিশেষ বিশেষ কার্য সিদ্ধিতে জাগিয়া উঠে। যেমন কাদের মোল্লার ফাসি দেওয়ার পুর্বক্ষণে জাগিয়া উঠিয়াছিল, তেমনি জাগিয়া উঠিয়াছিল শাহবাগের সাধারণ জনতার ঢলে। আবার সেই একইরকম ভাবে আবারও জাগিয়া উঠিয়াছে তবে অবশ্যই তাহাদের পশ্চাদ্দেশের ক্ষুদ্র চ্ছিদ্রের ব্যাসার্ধ বৃদ্ধি না করিতে। কারণ, সাধারণ মানুষের মাঝে কয়েকজনকে অনায়াসেই হাজতে পুড়িয়া হুজুগে ধর্মান্ধ গুলোকে ঠান্ডা করিয়া নিজের কার্য সিদ্ধি করা খুবই সহজ। আমি হলপ করিয়া বলিতে পারি হযরতে মাওলানা চাঁদনী (চান্দে দেখা গিয়াছিল বলিয়া নতুন বিশেষণে বিশেষিত) সাঈদী সাহেবেরও ফাসি হইবে না। এখন রাষ্ট্রপতি সাহেবকে দিয়া অথবা কোন না কোন টালবাহানা দেখাইয়া উহাকে ফের মুক্ত করিয়া উনাদের কোলে উঠিয়া ক্ষমতায় আসিবার অনুভূতি অনুভব করিতে চাইতেছেন আবারো। (কোলে বসা সঙ্ক্রান্ত কথা বার্তা এক্সপাঞ্জ হইতে পারে)

আরেকপ্রকারের অনুভূতির কথা খেয়াল করিলে দেখিতে পাইবো যে, বিরধীদলীয় অনুভূতি অথবা গাধা অনুভূতি। যাহাদের সকল প্রকার সুযোগ থাকা সত্তেও তাহারা কতিপয়ের কোলে বসিয়া ক্ষমতায় যাওয়ার প্রতিদান দিতে দিতে রাজপথে শহীদ(কথিত) হইবেন, কিন্তু ঋণ উনারা শোধ করিয়াই ছাড়িবেন ইনশাল্লাহ।

অনুভূতির সংজ্ঞা অতঃপর কি দাড়াইতেছে তাহলে??
নিজের খাইয়া পরের মোষ তাড়ানোই অনুভূতি। (কারণ মোষটা যে নিজেই দখল করিবার চিন্তায় বিভোর)

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১৪ thoughts on “অনুভূতি কি আপনার-আমার আছে?? নাকি “জয় বাংলা” ‘র মতন “অনুভূতি” ও কারো নিজস্ব সম্পত্তি হইয়া যাইতেছে ???

  1. “অনুভূতি” হচ্ছে এমন একটি
    “অনুভূতি” হচ্ছে এমন একটি অনুভূতি যাতে কেউ কখনও আঘাত দেয় না। বরং মানুষ নিজ দায়িত্বে তাতে আঘাতপ্রাপ্ত হয়…

  2. আজ এক শ্রেণীর মানুষের কাছে
    আজ এক শ্রেণীর মানুষের কাছে অনুভূতি এতটাই সংবেদনশীল যে তা লজ্জাবতী পাতাকেও হার মানায়! তেলাপোকার আঘাতেও আঘাতপ্রাপ্ত হয় আবার হাতির স্পর্শেও হয়!!
    এদের অবস্থা আজ এতই করুণ যে এদের অতি-সংবেদনশীল অনুভূতিকে রক্ষা করতে চারদেয়ালে বা জেলখানায় বন্ধী করে রাখতে হবে…

  3. এই থিমটা নিয়ে একটা মুভি
    এই থিমটা নিয়ে একটা মুভি বানানো যাইতে পারে। বক্স অফিস শুধু হিট না, ফাইটা যাওয়ার সম্ভাবন আছে। পাপী ভাই ভেবে দেখতে পারেন। :ভেংচি:

  4. মুন্নি আফারে জিগায়া আইতাছি ।
    মুন্নি আফারে জিগায়া আইতাছি । হাজার হইলেও হেতে হইতাছে অনুভুতি রাজকুন্না :হাহাপগে: :হাহাপগে: :হাহাপগে:

    1. আফনে মিয়া এইরকম একটা নাম
      আফনে মিয়া এইরকম একটা নাম নিলেন যে আমার চোখ সাবান দিয়া ধুইতে মুঞ্চাইতাছে 🙁 নোংরা নোংরা লাগতাছে :মাথানষ্ট:

  5. অনুভুতি আত্মার সাথে সম্পৃক্ত!
    অনুভুতি আত্মার সাথে সম্পৃক্ত! সুতরাং যার আত্মা যা চায় তাই অনুভুতি হিসেবে প্রকাশ পায়….

    1. তাহইলে আমাগো আত্মা নাই, খালি
      তাহইলে আমাগো আত্মা নাই, খালি ওইসকল মানুষ গুলারই আছে যারা সব কিছু নিজের করতে চায় 🙁

  6. আমি বলতে চেয়েছি, যার আত্মা
    আমি বলতে চেয়েছি, যার আত্মা নোংরা তার অনুভতিও তাই। আবার যার আত্মা পরিশুদ্ধ তার অনুভুতিও তাই….

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 9 = 12