দোষ কি মেয়েদেরই?

ধর্ষণ সঙ্ক্রান্ত খবর আমরা প্রতিদিনই পেয়ে থাকি। এর মধ্যে সব থেকে বেশি ধর্ষণের শিকার হচ্ছে মেয়েরাই। ভারত, বাংলাদেশ, পাকিস্তানসহ সৌদি আরবেও চলছে শিকার হওয়া নারীদের আর্তনাদ। সবথেকে দুঃখের ব্যাপার হলো তারা বেশির ভাগই দোষারপ করছেন নারীদের। যদি নারীদেরই দোষ হয়ে থাকে তবে সৌদি আরবে যে নারীরা গৃহ কর্মী হিসেবে যায় তারা প্রতিনিয়তই বাংলাদেশে চলে আসতে চাচ্ছে সেখান থেকে। এমন কি এমন তথ্যও উঠে এসেছে বাপ-ছেলে একসাথে মিলে রেপ করছে প্রতিদিন। এবার আপনারাই বলুন যারা নারীর দোষ নারীর দোষ বলে লাফাচ্ছেন তারা এই বিষয়ে কি বলবেন? এই রেপের শিকার যারা হচ্ছে তাদের খবর সৌদি আরবের কয়টা মিডিয়াতে প্রকাশ হয়েছে/হচ্ছে?

ঢাকায় টিভি উপস্থাপিকা ও মডেল ধর্ষণের শিকার হয়েছে। সৌদিতে নারী গৃহকর্মীদের ওপর নির্যাতন বেড়েছে। আপনি যদি এরকম আরও খবর পেতে চান তবে গুগলে "সৌদি আরবে নারী গৃহকর্মী" লিখে সার্চ দিতে পারেন। দেখবেন কি অমানসিক নির্যাতনই তারা করে! এর কারণ কি? নারীর চলাফেরা? কালো বোরকা পরিধান করে যখন প্যাকেট হয়ে থাকছে তখনও যদি রেপের শিকার হতে হয় তবে সেটা নারীর নয় পুরুষের মস্তিষ্কেরই দোষ বলেই গণ্য করা হবে এছাড়া আর কিছুই নয়।

উন্নত বিশ্বের দেশগুলোতে নারীরা তাদের স্বাধীনতায় চলাফেরা করে। কই আমি তো সৌদি আরব/ভারত/বাংলাদেশ/পাকিস্তানের মত এর রেপের কথা শুনিনি। আবার যে শুধু নারীরাই রেপ হচ্ছে তা কিন্তু নয়। অনেক পুরুষরাও রেপে শিকার হচ্ছে নারীদের হাতে। তাহলে যারা নারীদের দোষারপ করেন/করছেন এখন কি বঅলা যেতে পারে না যেঃ সে/তারা উগ্র পোষাক পরিধান ক্রে ছিল তাই রেপের শিকার হয়েছে? আসলে যদি নিরপেক্ষভাবে চিন্তা করে দেখেন তবে আপনি দেখতে পাবেন সমস্যা রেপের শিকার হওয়া নারী/পুরুষের নয় বরং যে ব্যক্তি রেপ করছে তাদেরই!

যদি মস্তিষ্কই বিকৃত থাকে তবে যদি বোকরা পরিধান করলে সমাধান হবে তা নয় বরং লোহার তৈরি কিছু পরিধান করলেও তারা রেপ করবেই! তাই এর জন্য প্রয়োজন উপযুক্ত শাস্তির ও মানষিক চিকিৎসার। সৌদি আরবে চুরির শাস্তি হাত কেটে দেয়া আর পরকিয়ার শাস্তি দোররা মারা। কিন্তু এমন খবর কি পেয়েছেন যে রেপের জন্য ভাল কোনো শাস্তি হয়েছে? তাহলে একেমন আইন?

আপনি এমন খবরও পাবেন যেখানে অপ্রাপ্ত বয়স্ক বাচ্চারাও রেপের শিকার হয়েছে! একটি শিশু যে আসলে এসবের মানেই বোঝে না তাকেও রেপ! এসবই মানসিক রোগেরই লক্ষণ! এদের দ্বারা কেউই নিরাপদ না। আবার অনেকে বলতে পারে সৌদি আরবে রেপের সংখ্যা কম। আমি তাদের বলছি, আগে বুঝে কথা বলুন! সেখানে রেপ ঠিকই বেশি যা মিডিয়াতে ছাড়ে না / ছাড়তে দেয়া হয়না। আপনি আপনার মানসিকতা পরিবর্তন করুন। আর যেসব ধান্দাবাজি করতেছেন তা বন্ধ করুন। আবার যেসব নারীরা পোষাকের দোষারপ করে তহাকেন আশা করি তারাও আর এসব মন্তব্য করবেন না। তার কারণও আমি আগেই উল্লেখ করে দিয়েছি!

Achetez viagra sans ordonnance en ligne. Quel est le médicament générique viagras. Acheter Levitra Vardenafil. Cialis le moins cher. cialispascherfr24 Prescription de Viagra Canada.

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 3 = 1