ধর্ষণেরর ময়ণাতদন্ত

-যেখানেই ধর্ষণ হচ্ছে সেখানেই মামলা হচ্ছে এবং আসামী করা হচ্ছে শুধুই ছেলেদের, কিন্তু কেনো?
আসলেই কি প্রত্যেকটি ধর্ষণের জন্য ছেলেরাই দায়ী??
-আমার তো সেটা মনে হয়না,
আমার মনে হয় এর জন্য দায়ী এ সমাজ ব্যবস্থা
এর জন্য দায়ী বর্তমান মেয়েদের অশালীন কাপড় পরা অশালীন চলাফেরা… এর জন্য দায়ী সকল পরিবার…যারা এসবে বাধা প্রধান করে না….
তবে হ্যাঁ এটা ঠিক যে ছেলেরা মেয়েদের জোরপুর্বক বাসায় থেকে অথবা অন্য কোথাও থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে তারা নিঃসন্দেহে ১০০ ভাগ দোষী, এবং তাদের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড দিলেও কম হয়ে যাবে।
-কিন্তু আমার কথা হলো যারা নিজ ইচ্ছায় ছেলেদের ধর্ষণ করার সুযোগ করে দেয় অথবা ধর্ষণ হবে যেনেও ছেলেদের সাথে ঘুরতে যায়, এবং সেখানে গিয়ে ধর্ষণ হয়, তারপর যখন ছেলেটা বিয়েতে রাজী না হয় তখন তারা মামলা করে,আমার প্রশ্ন এই মামলা গুলোর যৌক্তিকতা?
-আজ দেখলাম নোয়াখালীর নিঝুমদ্বীপের একটি হোটেলে অষ্টম ও দশম শ্রেণীর দুটি মেয়ে ধর্ষণ হয়েছে,
কিন্তু এটা কি শুধুই ধর্ষণ
না এটাকে আমি ধর্ষণ বলবো না কারণ এটা ধর্ষণ না।
-একটা অষ্টম ও দশম শ্রেণীর মেয়ের যদি কোনো ছেলের সাথে রাতের বেলা ঘুরতে যেতে প্রবলেম না হয় তাহলে ধর্ষণ হলে কি প্রবলেম?
আর তাদের মা-বাবার এতো দরদ কোথায় ছিলো?? যখন তাদের মেয়েরা রাতের বেলায় বাহিরে ছিলো???
-মেয়েদের পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করলো আর ছেলেদেরকে গ্রেফতার করলো,নিউজটা ঐরকম না হয়ে যদি এরকম তাহলে কেমন হতো??
অবৈধ,অসামাজিক কাজের জন্য নিঝুমদ্বীপের একটি হোটেল থেকে একজোড়া কপোত কপোতীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ!!
-কিছুদিন আগের খবর, বাংলাদেশের গরম খবর ছিলো আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে ও তার বন্ধুরা মিলে দুটি অসহায় মেয়েকে জোরপূর্বক উত্তরার রেইনট্রি হোটেলে নির্যাতন করেছে।
-আমার প্রশ্ন হলো!!
কোনো অসহায় মেয়ের পক্ষে কি রেইনট্রির মতো হোটেলে যাওয়া সম্ভব?
নারীবাদীরা বলে নারী পুরুষ সমান শক্তিশালী। তবে এক্ষেত্রে তারা নারীকে অসহায় বলছে কেনো? নারীবাদীরা জবাব দিবেন?
আমি মানলাম যাওয়া সম্ভব কিন্তু সেটা জোরপূর্বক তুলে নিলে,কিন্তু ঐ মেয়ে দুইটাকে কি জোরপূর্বক সেখানে নেয়া হয়েছিলো??
-তোমরা নিজেরাই নিজেদের বিপদে ফেলবো আর সব দোষ দেবে ছেলেদের ঘাড়ে সেটাতো হতে পারেনা!!
তোমাদের বোঝা উচিৎ একসাথে ঘুড়তে গেলে অথবা একি বিছানায় শুয়ে থাকলেই সেটা ভালবাসা হয়না, তোমরা বোঝো কিন্তু সবকিছু হারানোর পরে।।
-প্রেম মানে দুটি হ্নদয়ের বন্ধন, দেহের বন্ধন নয়। আজকাল পর্ণ সাইটগুলোতে সার্চ দিলে হাজার হাজার প্রেমিক প্রেমিকার পর্ণ ভিডিও দেয়া যায়।
সেই ভিডিও গুলোর কারনে, অনেক মেয়েই চলে গেছে না ফেরার দেশে
-এখন আমাদের দেশের এমন পরিস্থিতি হয়েছে যেখানে সতী নারী পাওয়া সোনার হরিণ পাওয়ার চেয়েও দুরূহ ব্যাপার,
কিন্তু আমাদের মা অথবা দাদীমাদের যুগে কিন্তু এমন ছিলোনা।
-এখন এমন হওয়ার কারণ,
আমরা এখন আধুনিক হয়ে গেছি, আমরা আগে অনুসরণ করতাম সৌদি আরব সহ সকল মুসলিম দেশকে আর এখন অনুসরণ করি আমেরিকা, ভারত সহ সকল ইহুদিদের, আমাদের স্বভাব চরিত্র এমনতো হবে এটাই স্বাভাবিক।।
-আমাদের দেশের মেয়েদের আবার সেই আগের যুগে ফিরে যেতে হবে এবং মেয়েদেরকে যারা সত্যিকারের ধর্ষণ অথবা বিরক্ত করবে তাদের বিচার হবে যেমনটা হয় সৌদি আরব সহ মধ্যপ্রাচ্যে।
তাহলেই কেবল ধর্ষণ বন্ধ করা যাবে অন্যথায় কখনোই বন্ধ করা সম্ভব না কারণ সবগুলো ধর্ষনেই শুধু ছেলেরা দোষী থাকে না অনেক ধর্ষণের জন্য মেয়েরাও দায়ী থাকে,আমার শেষ প্রশ্ন!!ধর্ষন মানেই কি ছেলেরা অপরাধী??
কথা বুঝে উত্তর দিবেন ???

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

7 + 3 =