আমার জন্য চাপাতি!


ফেসবুকে ভিডিওসহ একটি সংবাদ ভাইরাল হয়েছে। একজন ইমামের মাথায় মল-মূত্র ঢেলে উল্লাস প্রকাশ করেছে প্রতিপক্ষরা। বরিশালে বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। ভিডিওটি দেখে এটাকে কোন মানুষের কাজ বলে আখ্যায়িত করতে পারিনি।

অনলাইন ঘেঁটে জানতে পারলাম, মাদরাসা পরিচালনা কমিটির নির্বাচনে হেরে এক ইমামের মাথায় মল-মূত্র ঢেলে লাঞ্ছিত করেছে পরাজিত প্রার্থী ও তার লোকজন। সেই সঙ্গে মল-মূত্র ঢালার ওই দৃশ্যটি ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছেড়ে দেয় তারা।

এবার এই ঘটনা নিয়ে সবিস্তর আলোচনা করতে চাইলে শান্তির ধর্ম ও তাদের কর্ম নিয়ে অনেক কথা বলার থাকে। কিন্তু এর বাইরে আমি বলব যে ওই লাঞ্ছিত ব্যক্তি একজন মানুষ। মানুষ মানুষকে এমনটা করলে নিজেদের সর্বোচ্চ ঘৃনা ছড়িয়ে দেই সচেতনরা। তবে এ ঘটনায় আমি হতবাক হয়েছি। এর জন্য প্রধান কারণ হচ্ছে ধর্ম। একটা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নিয়ে নির্বাচন। সেই নির্বাচনে হেরে গিয়ে এক মোল্লা আরেক মোল্লাকে মলমূত্র দিয়ে গোসল করালো। ধর্মটা তাদের কাছে কতটা গ্রহণযোগ্য? যারা এই আচরণ করেছেন তাহলে তারা কি?

আখেরাত যখন চিরস্থায়ী ঠিকানা ধার্মিকদের তাহলে এই সামান্য দুনিয়াবি লালসায় যারা এমন কান্ড ঘটিয়েছেন তাদের বিশ্বাস কি? যতটুকু জেনেছি লাঞ্ছনাকারী ব্যক্তিরাও ধর্মপ্রাণ ব্যক্তিবর্গ। আর মূল দ্বন্দ্ব যেহেতু মাদরাসা নিয়ে। সুতরাং পবিত্র শিক্ষাক্ষেত্র নিয়ে এমন নোংরামি কেন? কেন এই অমানবিকতা? এমন কাজের ধর্মীয় বিধান কি তারা জানেন না? খুব করে এসবের উত্তর চাইব না। কারণ এরকম স্বার্থান্বেষী ধার্মিকরা মানবিকতা বুঝে না। আপনার কথা বলা যখন তাদের বুনিয়াদি ব্যবসায় ভাটা ফেলবে তখন আমার জন্য মলমূত্র নয় চাপাতি নিয়ে আসবে।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২ thoughts on “আমার জন্য চাপাতি!

  1. আপনি আগেই ধরে নিয়েছেন ইসলাম
    আপনি আগেই ধরে নিয়েছেন ইসলাম মানুষকে ভাল মানুষ বানায়। আগে এই ধারনাটা ত্যাগ করুন , তারপর নিরপেক্ষভাবে বিবেচনা করুন। সব একেবারে ফক ফকা হয়ে যাবে।

  2. ধরে চড় বসালে ভাল করে লাগে।
    ধরে চড় বসালে ভাল করে লাগে। কাউকে আঘাত করে বলার চেয়ে তারটা মেনে নিয়ে যুক্তি দেয়াই উত্তম বলে মনে করলাম।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 87 = 91