একজন মহানায়ক

এই মানুষটিকে চেনেন?

১৯৯৩ সালে ওনার স্ত্রী সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার পর ”নিরাপদ সড়ক চাই” আন্দোলন শুরু করেন।

নিজের পয়সায় ”নিসচা” প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন এবং দুর্ঘটনায় আহত ও নিহত মানুষের পরিবারের পাশে দাঁড়ান, তাদের চিকিৎসার দায়িত্ব নেন।

এখনও ওনার আন্দোলন চলছে।২৫ বছর ধরে সড়ক দুর্ঘটনায় যাতে কারো প্রান না যায়,সেই চেষ্টায় নিজেকে উৎসর্গ করে দিয়েছেন। কারো কাছ থেকে একটি পয়সাও নেন নাই। রাস্তায় দাড়িয়ে মানব বন্ধন করেছেন, মন্ত্রী আমলাদের অফিসে অফিসে দৌড়িয়েছেন যাতে আইন কঠোর করা যায়।

উনি যখন আন্দোলন শুরু করেন তখন ফেসবুক ছিলনা।
লাইকের আশায় আন্দোলন করেন নাই।
রাস্তায় গিয়ে গাড়ি ভাঙ্গেন নাই।
পুলিশ এবং সরকারকে গালি দেন নাই।
হাতে চাপাতি নিয়ে রাস্তায় মারামারি করেন নাই।
গুজব ছড়াইয়া মানুষের সহানুভুতি আদায়ের চেষ্টা করেন নাই, মানুষকে দাঙ্গা, সংঘাতের দিকে ঠেলে দেন নাই।

নিরবে নিভৃতে নিরাপদ সড়কের জন্য আন্দোলন করে যাচ্ছেন। হয়ত পুরোপুরি সফল হতে পারেন নাই, কিন্তু মৃত্যুর আগ পর্যন্ত এই লড়াই চালিয়ে যাবেন।

উনি আমার চোখে মহানায়ক, আমাদের ইলিয়াস কাঞ্চন।
আপনাকে বিনম্র শ্রদ্ধা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 3 = 4