নারী পুরুষের সমতা

এক তরুণী দুঃখ প্রকাশ করে আমাকে লিখল, পুরুষেরা খুব খারাপ।
আমি বলি, এ-আর নতুন কী!
তরুণী বলে, ছেলেরা ভালোবাসতেই জানে না।
আমি বলি, কথাটা একটু আপত্তিকর।
তরুণী বলে, যেভাবে মেয়েরা ভালোবাসতে পারে সেভাবে কি ছেলেরা ভালোবাসতে পারে? বলুন বলুন…।
আমি বলি, তা অবশ্য ঠিক। তবে ভালোবাসতে জানেই না এ-কথাটা ঠিক নয়।

তরুণী বলে, মেয়েরা ভালোবাসার জন্য যে কোন কিছু করতে পারে।
আমি বলি, তা ছেলেরাও পারে। ভালোবাসতে পারে বলেই গাধার মতো নিজেকে ধ্বংস করেও দেয়।
তরুণী খুব উত্তেজিত হয়ে বলে, আপনি নারীবাদী হয়ে কিন্তু পুরুষের পক্ষে অবস্থান নিচ্ছেন।

তরুণীর বার্তা পড়ে আমি আবেগাপ্লুত হয়ে যাই। চোখ দিয়ে প্রায় বৃষ্টি নামবে নামবে এমন অবস্থা-
তরুণীকে বলি, আপনার সম্ভবত নারীবাদ সম্বন্ধে ধারণা কম।
তরুণী বলে, আমি সব জানি।
আমি বলি, ভুল জানেন।
তরুণী বলে, আমি ভেবেছিলাম আমার কষ্টে আপনিও কষ্ট পেয়ে সান্ত্বনা দিবেন।
আমি বলি, আপনি আবার ভাবেনও!

সম্ভবত তরুণী গোস্বা করে। অনেকক্ষণ চুপ থাকে।
তারপর লিখে- ছেলেরা শুধু মেয়েদের চেহারা আর শরীর দেখেই পছন্দ করে।
আমি বলি, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সত্য। তবে অনেক মানুষ আছে যারা চেহারার থেকেও মানুষটিকে বেশি প্রাধান্য দেয়।
তরুণী বলে, এমন ছেলে নাই।
আমি বলি, আমি নিজেই তার প্রমাণ।
তরুণী বলে, আপনি তো ছেলেই না।
আমি থতমত খেয়ে যাই। কী উত্তর দিবো? মনে মনে ভাবি, ভালই বাঁশ দিয়েছে।
তরুণী লিখে, আরে মানে হল আপনার কথা আলাদা।
আমি শান্তির নিঃশ্বাস ফেলে উত্তর দেই, বুঝলাম।

তরুণীকে আমি লিখি, আপনার সাথে প্রায়ই একজন ছেলের ছবি দেখি, তিনি কে?
তরুণী লিখে, ওহ! ওয় তো কদু! আমার ফ্রেন্ড। আমাকে ভালোবাসে কিন্তু ওর সাথে আমার যায় না।
আমি বলি, একটু আগে আপনি বললেন যে, ছেলেরা নাকি চেহারা আর শরীর দেখেই মেয়েদের ভালোবাসে! তাহলে আপনি নিজেও তো একই কাজ করছেন! কদু বলে কি ভালোবাসা পাওয়ার অধিকার নেই?

তরুণী বলে, অদ্ভুত! আমি মেয়ে! আর সে ছেলে! আমি বলতেই পারি!
আমি বলি, স্বপ্ন দেখেন নারী পুরুষের সমতার আর প্রয়োজনে নিজেকে অবলা ও ভিকটিম সাজিয়ে রাখেন।

তরুণী সাথে সাথে ফোন করে। আমি ভয় পাই। অদ্ভুত ও বিকৃত নারীবাদ শোনার অনাগ্রহের কারণে ফোন ধরি না।
তরুণী লিখে, একটা মেয়ের সাথে কীভাবে কথা বলতে হয় তাও শিখলেন না আপনি? ফোন ধরলে নারীবাদ কী তা বলতাম।
আমি লিখি, নারীবাদ নিয়ে আপনার চিন্তিত হতে হবে না। আপনি বরং নিজের হিপোক্রিসি নিয়ে ভাবুন।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

− 1 = 1