আমাদের অনেক লাইব্রেরি প্রয়োজন জঙ্গিবাদ ও ধর্মীয় কুসংস্কার দমনে।

মানুষ বেঁচে থাকে তার সু-কর্মে।  ধর্ম কিংবা সম্পদে নয়। মহান কবি নির্মলেন্দু গুণ লাইব্রেরি নির্মাণ করেছেন। কবি ইচ্ছে করলে একটি মন্দির নির্মাণ করতে পারতেন। স্বর্গের লোভে। ওই লোভে কবি পড়েননি। কবি যদি একটি মসজিদ নির্মাণ করতেন। অনেক বাহবা পেতেন।  আলোচনায় আসতেন। নতুন তারকা হয়ে যেতেন। কবি লোকদেখানো খ্যাতি চাননি।

কবি মন্দির, মসজিদ নির্মাণ না করে লাইব্রেরি নির্মাণ করে আলো জ্বাললেন। এ আলো মানব জীবনকে আলোকিত করবে।  এ পৃথিবী হবে সুন্দর ও মায়াময়। মানুষ পাবে সুন্দর জীবনের পথ। ওই সুন্দর পথে জীবন থাকে। খুব কম সাহসী মানুষ থাকে, বাংলাদেশ , ভারত কিংবা পাকিস্তানের মতো দেশে।  যেখানে মসজিদ, মন্দির নির্মাণ না করে একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মানুষ লাইব্রেরি নির্মাণ করে।  আমাদের প্রিয় কবি নির্মলেন্দু গুণ সেই সাহসী মানুষদের একজন।  ভালো থাকবেন কবি। অনেক অনেক ভালো।  এই সুন্দর পথ দেখানোর জন্য।

আমাদের অনেক লাইব্রেরি প্রয়োজন। শহর থাকে গ্রাম পর্যন্ত। মানবিক আলোয় ভোরে যাবে দেশ।  ধর্মীয় কুসংস্কার, জঙ্গিবাদ , সাম্প্রদায়িকতা , অপশাসন এ আলোয় হারিয়ে যাবে। আমরা মানবিক হয়ে উঠবো। ধর্মের নামে আমরা মানুষ হত্যা করবোনা। ধর্মের নামে আমরা মানুষে মানুষে ভেদাভেদ করবোনা। মানবতাই থাকবে  সকল ধর্মের উপরে।

ধর্মীয় সংঘাত, ভেদাভেদ জয় করে  মানবতার পথকে প্রসারিত করতে হবে। আমাদের শিক্ষা ব্যাবস্থায় হেফাজতে ইসলামের কালো ছায়া পড়েছে। অনেক অসাম্প্রদায়িক লেখকের লেখা পাঠ্যপুস্তক থেকে উধাও হয়ে গেলো। অসাম্প্রদায়িক ও ধর্মনিরেপক্ষ বাংলাদেশ আমাদের কাম্য। ধর্মীয় উগ্রবাদীদের নিয়ন্ত্রণ আমাদের সকলের কাম্য। মুক্তচিন্তা অনেক অনেক প্রসারিত হউক। লাইব্রেরি হয়ে উঠুক মুক্ত চিন্তার কেন্দ্রবিন্দু। জ্ঞানবিজ্ঞান চর্চার আসর।

ফেসবুক মন্তব্য

৪ thoughts on “আমাদের অনেক লাইব্রেরি প্রয়োজন জঙ্গিবাদ ও ধর্মীয় কুসংস্কার দমনে।

  1. আমেরিকায় লাইব্রেরী আছে,আনেক। বলা ভাল অসংখ্য। শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি জগতের অনেক বড় বড় দেবতারা আছেন। দেবতদের ললাটে ‘নোবেলের’ সীলমোহরও আছে। এই দেবতারা তাদের দলনেতা বনিয়েছে, ‘আহাম্মমকে’। শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতিয় গাধা।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

56 − 53 =