নবীকে প্রকৃত গালাগালি দেয়া লোকদের কেউ বিচার চায় না

ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন উপজেলায় নবী মুহাম্মদকে কথিত গালাগালি দিয়ে ফেসবুকে পোষ্ট নিয়ে সৃষ্ট দাঙ্গায় পুলিশের গুলিতে ৪ জন মারা গেছে। প্রকৃত ঘটনা হলো – বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামের এক হিন্দু ছেলের ফেসবুক আই ডি হ্যাক করে , দুই মুসলমান ছেলে নবী মুহাম্মদের সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করে পোষ্ট দিয়ে সাথে সাথে তা বহু জনের কাছে শেয়ার করে দেয়।ঘটনা ঘটার প্রায় সাথে সাথেই উক্ত হিন্দু ছেলে পুলিশের কাছে রিপোর্ট করে। কিন্তু তার পরেও মুমিন মুসলমানরা একত্রিত হয়ে যে কোন প্রকারেই হোক হিন্দু ছেলেটিকে দোষী করে সাম্প্রদায়ীক দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা করে।এক পর্যায়ে তারা পুলিশের ওপর চড়াও হয়। তখন পুলিশ আত্ম রক্ষার্থে গুলি চালাতে বাধ্য হয় , যার ফলে উক্ত নিহতের ঘটনা ঘটে।

এটা নিয়ে সারা দেশে তুল কালাম কান্ড চলছে।কিন্তু বিস্ময়কর ভাবে লক্ষ্য করা যাচ্ছে – সবাই মিলে যে কোন ভাবেই হোক , সেই হিন্দু ছেলেটিকেই দোষী করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এরপর পুলিশ কেন আত্মরক্ষার্থে  গুলি করল সেটা নিয়ে ব্যাপক প্রশ্ন তুলছে।

অথচ  যারা প্রকৃত দোষী অর্থাৎ হ্যাককারী দুই মুসলমান ছেলে যারা মূলত: নবী মুহাম্মদের নামে কুৎসাপূর্ন কথা বার্তা প্রচার করেছে , তাদের বিচার করার দাবী এ পর্যন্ত কেউ জোরে শোরে করছে না। এর দ্বারা আসলে কি বোঝা গেল? এটাই কি বোঝা গেল না যে দেশের তথাকথিত শান্তির ধর্ম ইসলামের অনুসারীরা যে কোন ভাবেই হোক হিন্দুদের ওপর অত্যাচার নির্যাতন করার একটা অজুহাত তৈরী করে তাদের দেশ থেকে তাড়াতে চায় ?

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of