অগনতান্ত্রিক ও স্বৈরশাসকের হাত থেকে মুক্ত চিন্তা ও বাক স্বাধীনতার মুক্তি চাই।

বাংলাদেশের বর্তমান সরকার জনগনের ম্যানডেড ছাড়া বিনা ভোটে ক্ষমতাই এসে। বিচার ব্যবস্থা থেকে শুরু করে সকল রাষ্ট্রীয় সরকারী এবং বেসরকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে রাজতন্ত্র অনুযায়ী পরিচালিত করছে।মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে ধুমড়ে মুচড়িয়ে এখন সকল প্রকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকেও তাদের রাজতন্ত্র কায়দায় জব্দ করে রেখেছে। বাংলাদেশের বর্তমান সরকার জামায়েত ইসলাম পার্টির অস্তিত্ব ভেঙ্গে গুঁড়িয়ে দিয়েছে, কিন্তু অন্যান্য চরমপন্থী উগ্র ইসলামী মতবাদে বিশ্বাসে পরিচালিত ধর্মীয় সংগঠন গুলোর সাথে জোট বেঁধেছে জনগনের ভোটহীন নির্বাচনে ক্ষমতা ধরে রাখার জন্য।আর ঐসব ইসলামী জঙ্গী সংগঠন বাংলাদেশকে ভিতরে ভিতরে উগ্রপন্থী ধর্মীয় সমাজ ব্যবস্থার দিকে ঠেলে দিয়েছে। সরকার বিভিন্ন ধর্মীয় নেতাদের উগ্রপন্থী ও জঙ্গিবাদসহ বিভিন্ন কার্যক্রম উত্থান দেখেও। কোনো টনক নড়ছে না। পক্ষান্তরে গড়ে তুলেছে হাজার হাজার চরম পন্থি ওহাবিজম ইসলামিক সেন্টার। আর এসব হচ্ছে চরমপন্থী উগ্র ইসলামিক মতাদর্শে বিশ্বাসী রাষ্ট্র সৌদি-আরবের অর্থায়নে। বাংলাদেশে বাক-স্বাধীনতা এবং সংবাদপত্র ও মিডিয়ার স্বাধীনতা হরন করে রেখেছে বর্তমান অরাজনৈতিক ও অগনতান্ত্রিক সরকার। বাংলাদেশে মুক্তার চিন্তার আলোর ফেরিওয়ালারা আজ প্রানভয়ে পালিয়ে পালিয়ে অমানবিক জীবন কাটাচ্ছে আর কেউ কেউ বিশ্বের ভিন্ন প্রান্তে গিয়ে জীবনের নিরাপত্তার প্রান ভিক্ষা চাচ্ছে। বাক স্বাধীনতা এবং মুক্ত চিন্তার স্বাধীনতা মানুষের শুধু মৌলিক মানবিক অধিকার নয়। বরং নিজেকে সমাজের পরিবর্তনের কাজে লাগানোর হাতিয়ারও বটে।তাই বাংলাদেশে অবৈধ ও অগনতান্ত্রিক বাক স্বাধীনতা রুদ্ধ করা উগ্রপন্থী ইসলামিক সংগঠনের পৃষ্ঠাপোশকতা করা সরকার ও ধর্মীয় উগ্রতা এবং ইসলামের অযুক্তিক অমানবিক প্রথা ও গল্পগুলোকে প্রত্যাখ্যান করে আধুনিক গনতান্ত্রিক ও বিজ্ঞান সম্মত রাষ্ট্র ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য লিখে যাও মুক্ত চিন্তার ফেরিওয়ালারা।মুক্ত চিন্তার ও বাক স্বাধীনতার জয় হোক।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 49 = 55