ইসলাম শান্তির ধর্ম!!!

গা ছম ছম করলো ।

আজ একটি বই পড়লাম ।কোরান হাদিস থেকে যে সব তথ্য পাই । আমি জানতাম যে মুরতাতকে হত্যা করতে হবে এবং গর্দান উড়াইয়া দিতে হবে , যদি কেউ নবী এবং আল্লাহর অবমাননা করে  । কিন্তু কিছু কিছু আলেম বলেন যে,যারা নবী এবং আল্লাহর অবমাননা করে তারা মুরতাত ,আর  মুরতাদদের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড কিন্তু এটা বাস্তবায়নের দায়িত্ব খেলাফতের অর্থাৎ রাষ্ট্র শাসন ব্যবস্হার । আমিও মেনে নিয়েছিলাম এতো বড় বড় আলেমের কথা , তা নিশ্চয়ই মিথ্যা হবার না ।

আজ একটি বই পড়লাম । খুবই অবাক হলাম ইসলাম , কোরান কিংবা নবী মোহাম্মদকে সমালোচনা করলে মোমিনদের সমালোচনাকারীদের হত্যা করাটা জায়েজ ।যুক্তি প্রমাণ দিয়ে “প্রিয় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে অবমাননার শাস্তি”, সংকলন ও সম্পাদনা : মওলানা মুহাম্মাদ ইসহাক খান। ৬০ টাকা হাদিয়ার বইয়ে যাবতীয় রেফারেন্স সহ বলে দেওয়া হয়েছে । খুবই অবাক হলাম, বইটি আবার ‘খান’ প্রকাশনী প্রকাশ করেছে । এ ধরনের আইন হাতে তুলে নেবার উদ্ভুদ্ধকারী বই কিভাবে পাবলিশ হয় । এই বই ব্যানও করা হয় না । আমি নিশ্চিত নয় তবে হয়তো আমাদের রাষ্ট্রের কোন শাখা নেই এগুলো যাচাই বাচাই করার জন্য । কিন্তু রাষ্ট্র যন্ত্র তো বলছে আইন হাতে তুলে নেয়া যাবে না । আবার প্রকাশকের এ ধরনের বই কি ভাবে বাজারে আসে তা আমার বোধগম্য হয় না । তাহলে সত্য কে ? কার উপর ভরসা রাখতে হবে ? রাষ্ট্রের উপর নাকি এমন বইয়ের উপরে । এই বইয়ে লেখক কোন কিছু গোপন তরে লিখেনি । এমন কি কোন মাদ্রাসার শিক্ষক , মোবাইল নম্বর , ইমেইল আইডি কিংবা প্রকাশনীর ঠিকানা ইত্যাদি দেওয়া আছে । তার মানে উনি সত্য নিশ্চয়ই সত্য বলেছেন ।

 

বইটিতে নবী মোহাম্মদকে অবমাননার শাস্তি বলা হয়েছে । বিভিন্ন বিশ্ব বিখ্যাত আলেমদের মতামত দেয়া হয়েছে ।সকলে আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে হত্যা করায় উৎসাহিত করেছে । এমনকি ১৪০০ বছর পূর্বে বিভিন্ন কবিদের মর্মান্তিক ও বীভৎস হত্যাকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে সাধারণ মোমিনদের প্ররোচনা করেছে ।এখন বিষয়টি পরিষ্কার, ভোলায় মোমিন বান্দার কি চেয়েছিল ? নাসির নগরে এমন তাণ্ডব কেন হয়েছিল ? এ সব তো সরিয়া মোতাবেক মোমিনীয় আচরণ ।অনেকে হয়তো আমাকে যুক্তি দিয়ে বোঝাতে চাবেন কিন্তু আমাকে বুঝিয়ে লাভ কি হবে ? আমি তো এমন কর্মকাণ্ডকে বর্বরতাই মনে করি । কিন্তু ২০১২ সাল থেকে লক্ষ লক্ষ লোক এই বই পাঠ করে মস্তিষ্কে হত্যা করার  মত ভাইরাস মাথায় নিয়ে ঘুরছে । নবীকে নিয়ে কোন প্রশ্নকারীকে নবীর অবমাননাকারী বলে নিজ হাতে শাস্তি দিতে চাবেন । হত্যা করতে চাবেন। তাহলে এই বর্বরতার দায়ভার কে নিবে ? আমি সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি একটু নজর দেন এমন লেখকদের বিরুদ্ধে কারণ আমিও আপনার মতো মনে প্রাণে মানতে চাই

“ইসলাম শান্তির ধর্ম।”

জ্যাক পিটার

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of