আজকের ভারতে হিন্দুত্ববাদ সেই ‘লড়কে লিয়েঙ্গে পাকিস্তান’এর প্রতিক্রিয়া!

বিশ্বে তখনো অনেক মুসলিম জাতীয়তাবাদী রাষ্ট্র তৈরি হয়ে গিয়েছে। কিন্তু তা দিয়ে উপমহাদেশীয় মুসলিমদের হবেনা। তাদের আরো একটা রাষ্ট্র লাগবে, এবং তা হবে পুর্ব ও পশ্চিম পাকিস্তান। এই মুসলিম রাষ্ট্র কিভাবে হবে? অবশ্যই ভারতের ভূখণ্ডকে আলাদা করে। ব্রিটিশরা চলে যাবে, এখন মুসলমানদের জন্য আলাদা রাষ্ট্রের কি হবে? তারা কিভাবে আদায় করবে মুসলমানদের জন্য একটি রাষ্ট্র? তাই অবিভক্ত ভারতজুড়ে অধিকাংশ মুসলমানদের মধ্যে স্লোগান উঠে লড়কে লিয়েঙ্গে পাকিস্তান! লড়কে লিয়েঙ্গে পাকিস্তান! হিন্দুদের বিরুদ্ধে একশ্যান ডে শুরু করো। সব হিন্দুকো কাটো মারো, রক্তাক্ত লাশ করো।এই পবিত্র রমজান মাসেই হিন্দুদের বিরুদ্ধে জিহাদ করে মুসলমানদের পবিত্র ভুমি পাকিস্তান আদায় করো। একটা মুসলমান সমান ৫ টা হিন্দু, অর্থাৎ একজন মুসলমান যেভাবেই পারে ৫ জনকে হিন্দুকে খতম করবে। ৪৬ সালে পাকিস্তান আদায়ের জন্য মুসলিম লীগের প্রভাবশালী নেতা জিন্নাহ, সুরাবর্দী (সোহরাওয়ার্দী), খাজা নাজিমুদ্দিন, খাজা ওসমান খানরা এই কথাগুলো ঘোষনা দিয়ে লিফলেট দিয়ে প্রচার করেছিল। দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে পাকিস্তান আদায় করার জন্য তারা বেছে নিয়েছিল নিরীহ হিন্দুদের উপর গনহত্যা। ১৬ আগষ্টে শুরু হয় ক্যালকাট কিলিং। এর দুই মাস পর পূর্ববঙ্গ-এ শুরু হয় নোয়াখালী কিলিং। আমার আলোচ্য বিষয় হিন্দুদের উপর ক্যালকাটা ও নোয়াখালী কিলিং নয়, আমার আলোচ্য বিষয় হলো আজ ভারতের হিন্দুত্ববাদ নিয়ে। আজ কেন ভারতীয় হিন্দুরা ভারতকে একটি হিন্দুরাষ্ট্র হিসেবে দেখতে চায়? আজ কেন বাংলাদেশ-পাকিস্তানের মুসলমানরা ভারতের হিন্দুত্ববাদ নিয়ে খুব উদ্ধিগ্ন? কথাটা আজ থেকে ৭০ বছর আগে কেন তাদের মনে হয়নি? যখন মুসলমান রাষ্ট্রের জন্য ভারতকে খন্ড করে পুর্ব ও পাকিস্তান বানিয়েছিলো? আজ ভারত যদি হিন্দু রাষ্ট্র হতে চাই, তাহলে কোনো মুসলমানের নৈতিক অধিকার আছে কি সেই বিষয়ে নাক গলানোর? বাংলাদেশ-পাকিস্তানের মুসলমানরা বলার অধিকার রাখে কি ভারত একটা গনতান্ত্রিক রাষ্ট্র হোক?

দ্বিজাতি তত্ত্বকে সামনে রেখে ধর্মের ভিত্তিতে ভারত থেকে আলাদা হয়ে মুসলিমরা যখন নিজেদের জন্য ইসলামিক রাষ্ট্র পাকিস্তান গঠন করেছিল, তখন ভারতের হিন্দুরা চাইবে কেন তাদের জন্য একটা হিন্দু রাষ্ট্র গঠন করতে? এই চাওয়া কোন দিক দিয়ে অযৌক্তিক? কিন্তু তৎকালীন গান্ধী-নেহেরুর সেক্যুলার গনতান্ত্রিক নীতি ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হতে দেয়নি। একটা প্রশ্ন রাখলাম, ভারত ভাগ হওয়ার পর আসলে গান্ধী-নেহেরুর কংগ্রেস পার্টি কি ভারতকে বাস্তবে সেক্যুলার নীতিতে পরিচালিত করেছিলেন? এরা হিন্দুদের উপেক্ষা করে নগ্নভাবে মুসলমানদের তোষন করেন নি? মসজিদ মাদ্রাসার জন্য রাষ্ট্রীয় ভুর্তুকি আর উলটো ওদিকে মন্দিরের জন্য কর ব্যবস্থা চালু করেননি? মুঘল আমলের মুসলমান দুঃশাসকদের অতি মাত্রায় বীর ও উদার আখ্যা দিয়ে অপ-ইতিহাস রচনা করেন নি? আমাকে বলতে পারেন এটা কোন ধরনের ধর্মনিরপেক্ষতা?

ভারতকে হিন্দুরাষ্ট্র বানানোর বারুদ হিন্দুদের বুকে আগেই জমা ছিল। কিন্তু জ্বলে উঠতে পারেনি শুধুমাত্র একটি সলতের অভাবে। আর সেই সলতে তারা এখন পেয়ে গেছেন। আর সেটা হলেন বিজেপির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মৌদি। প্রতিক্রিয়াশীল গান্ধী-নেহেরুর কংগ্রেস পার্টি যুগের পর যুগ ভারত রাষ্ট্রের ক্ষমতায় আসীন থেকে হিন্দুদের উপেক্ষা করে, মুসলিম তোষন করে উলটো তাদের বুকের চাপা বারুদ দিন দিন আরো বাড়িয়েছে। কমায় নি একটুও।

আজ কেন ভারতের হিন্দুরা আর ভন্ড সেক্যুলার রাষ্ট্র ব্যবস্থার আর চাইছে না? কেন তারা সেক্যুলারকে বাদ দিয়ে নতুন একটি হিন্দু রাষ্ট্রের জন্য জেগে উঠতে চাইছে। এই দায় কার? ভারতের মুসলিম তোষনকারী দল সিপিএম ও কংগ্রেস দল চাইলে এই দায় এড়াতে পারেন? যখন ৭০ বছর আগে বলেছিলা, লড়কে লিয়েঙ্গে পাকিস্তান! লড়কে লিয়েঙ্গে পাকিস্তান! তখন একবারের জন্য মনে হয়নি ধর্মনিরপেক্ষতার কথা? তখন একবারের জন্যও মনে হয়নি অখন্ড ভারতবর্ষে ধর্মকে ভুলে গিয়ে একই সাথে মিলেমিশে থাকার কথা? যদি মনে হয়, তাহলে আবার মুসলমানদের পাকিস্তান জম্ম দিতে গেছিলা কি জন্য? যারা হিন্দুদের মেরে কেটে একশ্যান ডে সৃষ্টি করে পাকিস্তান দেশ তৈরি করেছিল, তাদের একবারের জন্যও কি মনে ছিলো না আজকের ভারতের মুসলমানদের কথা? আজকের ভারতের হিন্দুরা যে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র বানাতে চাই, আমি তো এদের কোনো দোষই দেখিনা। দেখি ৭০ বছর আগের ধর্মের ভিত্তিতে মুসলিমরা যে পাকিস্তান সৃষ্টি করেছিল এটা তারই প্রতিক্রিয়া। সেই একশ্যান ডে, সেই দ্বিজাতিতত্ত্ব, সেই লড়কে লিয়েঙ্গে পাকিস্তান-এর প্রতিক্রিয়া মাত্র।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of