পাহাড়ের আকাঙ্খা

হে শান্তির মানবতা….
তুমি আসবে বলে, তোমার জন্য পাহাড় সেজেছিল ফুল-ফল, পাখিদের কলকাকলি ও সবুজ বৃক্ষ-ঝর্ণা ধারায়;

প্রতীক্ষার প্রহরে….
অনেক স্বপ্ন আড়ালে হেসে ওঠে, অকস্মাৎ আবার লুকাও কেন তুমি কালো মেঘেদের ফাঁক-ফোকরে?

পাহাড়ি জীবন সংগ্রামে….
বেড়াজাল থেকে মুক্তির আকাঙ্খায় এক ঝাঁক তারা সেদিন ছুটেছিলো সমর থেকে মহারণে।

অধিকার সংকুচিত….
আজ সাজানো বাগানে অযাচিত কৃত্রিম দাবানল অপারেশন উত্তরণ; বন্দুকের নল তাক করা জনপদে দৃশ্যমান রক্তপাত, সেই রক্তের ধারা মিশে যেন একাকার কর্ণফূলি নদীর কান্নায়।

হে ধরিত্রী….
আমার জন্য বলিনি, বলেছি আমি তোমার
ভূমিপুত্র, অধিকারহীন মানুষ তবু বাঁচাবো বলে গড়েছি অগ্রভাগে তোমায়, স্মরণে তাই তুমি আমার।

মানবাধিকার তুমি….
পাহাড় আজ পরাধীনতার শিকলে বন্দী, বাতাসে লাশের গন্ধ, অসহায় রুদ্ধশ্বাস;
মানবতায় মানবিকতাবোধে রাখা হয় বারে বারে পশ্চাৎপদ, পাহাড়ের আকাশে বাতাসে ভাসছে শুধু চরম অবিশ্বাস।

প্রত্যয়ে তোমার অধিকার….
জেগে উঠুক জুম পাহাড় দাবির স্লোগানে স্লোগানে, তবেই হবে আঁকা এক কাঙ্খিত মানচিত্রের ভেতর বিন্দু রেখা;
আন্দোলনেই বেঁচে থাকবে জুম পাহাড়, হবে অধিকার সুপ্রতিষ্ঠিত, আর বৈষম্যের বেড়াজাল ছিন্নবিচ্ছিন্ন করে আন্দোলনেই গড়ে উঠবে নব দিগন্তের নতুন এক মুক্ত পতাকা।

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of